১৪ মাঘ  ১৪২৯  রবিবার ২৯ জানুয়ারি ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

‘রাজ্যের স্বার্থের পাশাপাশি জাতীয় ইস্যুতেও সরব হতে হবে’, দিল্লিতে সাংসদদের পরামর্শ মমতার

Published by: Paramita Paul |    Posted: December 7, 2022 7:22 pm|    Updated: December 7, 2022 7:22 pm

Mamata Banerjee meeting with all TMC MP at Delhi | Sangbad Pratidin

নন্দিতা রায়, নয়াদিল্লি: সংসদে শীতকালীন অধিবেশনে কী হবে তৃণমূলের রণকৌশল? তা ঠিক করতে বুধবার বৈঠকে বসেছিলেন তৃণমূলের সংসদীয় চেয়ারপার্সন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (CM Mamata Banerjee)। সেখানে তাঁর সাফ বার্তা, শুধু রাজ্যের ইস্যুতে নয়, দলীয় সাংসদদের জাতীয় ইস্যুতেও সংসদে সরব হতে হবে। তবে সাংসদদের দলনেত্রীর সাবধানবাণী ‘বোল্ডলি বাট কুললি’ অর্থাৎ কড়া ভাষায় আক্রমণ শানালেও মাথা ঠাণ্ডা রাখতে হবে। আক্রমণাত্মক কোনও পদক্ষেপ করা যাবে না।

সৌগত রায়ের দিল্লির বাড়িতে বৈঠক ছিল এদিন। সেখানে উপস্থিতি ছিলেন তৃণমূলের প্রায় সকল সাংসদ। তবে ছিলেন না তারকা সাংসদ দেব। তিনি শুটিংয়ের কাজে ব্যস্ত থাকবেন বলে আগেই জানিয়েছিলেন। ডাকা হয়নি শুভেন্দু ও দিব্যেন্দু অধিকারীকে। ছিলেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্য়োপাধ্যায়, সাংসদ অর্জুন সিংরাও। 

 

[আরও পড়ুন: ‘সংসদে বিপজ্জনক বিল আসছে, রাজ্যের ক্ষমতা খর্ব হবে’, দিল্লিতে আশঙ্কা মমতার]

সংসদে তৃণমূলের রণকৌশলের সুর বেঁধে দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়। সংসদে সাংসদদের আরও সক্রিয় হওয়ার বার্তা দেন। মূল্যবৃদ্ধি, ১০০ দিনের কাজের প্রকল্প, আবাস যোজনা, গঙ্গাভাঙনের জন্য বরাদ্দ টাকা নিয়ে সরব হওয়ার পরামর্শ দেন তিনি। সাংসদদের উদ্দেশে দলনেত্রীর পরামর্শ, “শুধুমাত্র রাজ্য়ের ইস্যুতে নয়। জাতীয় স্বার্থেও সংসদে সরব হন।”

 

জাতীয় রাজনীতিতে কংগ্রেস (Congress) এবং তৃণমূলের সমীকরণে ফের বদলের ইঙ্গিত! সংসদের শীতকালীন অধিবেশনের প্রথম দিনই কংগ্রেসের রাজ্যসভার দলনেতা তথা দলের সর্বভারতীয় সভাপতি মল্লিকার্জুন খাড়গের ডাকা বৈঠকে উপস্থিত থাকলেন তৃণমূলের প্রতিনিধি। তাহলে কি এবার ফের কংগ্রেস-তৃণমূল কাছাকাছি আসছে? সেই ইঙ্গিত মিলেছে তৃণমূল সুপ্রিমোর কথাতেও। মমতা এদিন বলেন, “যারা বিজেপির ঔদ্ধত্যের বিরুদ্ধে লড়াই করবে, আমাদের সঙ্গে চলবে, তাদের সঙ্গে আমরা আছি।”

 

[আরও পড়ুন: ‘পুষ্করে স্নান করলে পাপ ধুয়ে যেত’, মুখ্যমন্ত্রীকে বেনজির আক্রমণ ‘নাস্তিক’ বিমান বসুর]

দলনেত্রী আরও বলেন, “১৬টি বিল আসছে-বিদ্যুৎ বিল, সমবায় বিল, তথ্য সংরক্ষণ বিল। অনেকগুলি বিপজ্জনক বিল রয়েছে। তাতে এমন অনেকগুলি বিল রয়েছে যাতে রাজ্যের অধিকারে হস্তক্ষেপ করা হচ্ছে। রাজ্যের গণতান্ত্রিক অধিকার, যুক্তরাষ্ট্রীয় পরিকাঠামোকে খর্ব করার চেষ্টা চলছে। আজকের বৈঠকে এনিয়ে সাংসদদের সঙ্গে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে।” 

 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে