BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

বুয়া-ভাতিজার মহাজোটে ইতি, একলা চলার ডাক মায়াবতীর

Published by: Tanujit Das |    Posted: June 3, 2019 9:32 pm|    Updated: June 3, 2019 9:32 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পোড়খাওয়া রাজনীতিকদের দূরদৃষ্টিতে এমনটাই ছিল৷ বাস্তবে হলও তাই৷ নির্বাচন শেষ হতেই ইতি পড়তে চলেছে ‘বুয়া-ভাতিজা’র মহাজোটে৷ মধুচন্দ্রিমা পর্বের মোহ কাটিয়ে আবারও ‘একলা চলো’র রাস্তা ধরতে চলেছেন বিএসপি নেত্রী মায়াবতী৷ জানা গিয়েছে, সোমবার দলীয় বৈঠকে বিএসপি সুপ্রিমো ঘোষণা করেছেন, আগামী দিনে উত্তরপ্রদেশের যে ১১ টি বিধানসভা কেন্দ্রে উপনির্বাচন হবে, সেখানে একাই লড়াবে তাঁর দল। এখানেই শেষ নয়, লোকসভা ভোটে মহাজোটের ভরাডুবির দায়, অখিলেশ যাদবের উপর চাপিয়েছেন দলিত নেত্রী৷ কাঠগড়ায় তুলেছেন সমাজবাদী পার্টিকে৷

[ আরও পড়ুন: নাবালক ছেলেকে ফাঁস দিয়ে ঝুলিয়ে দিল বাবা! নৃশংস দৃশ্য ক্যামেরাবন্দি করল মেয়ে]

সূত্রের খবর, দলীয় বৈঠকে সপা প্রধান অখিলেশ যাদবের বিরুদ্ধে একরাশ ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন মায়াবতী৷ তিনি জানিয়েছেন, যাদব ভোট বিএসপির দিকে আসেনি৷ অখিলেশের পরিবারও যাদবদের আস্থা অর্জনে ব্যর্থ হয়েছে৷ সেকারণেই হারের মুখ দেখতে হয়েছে সপা প্রধানের স্ত্রী ডিম্পল যাদবকে৷ পরাজিত হয়েছেন তাঁর দুই নিকটাত্মীয় অক্ষয় ও ধর্মেন্দ্র যাদব। প্রত্যাশা থাকলেও সমাজবাদী পার্টি মাত্র পাঁচটি আসনেই আটকে গিয়েছে৷ জানা গিয়েছে, সপার গ্রহণযোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তোলার পাশাপাশি শিবপাল যাদব ও কংগ্রেসের ভোট কাটাকাটির বিষয়টিকেও দলীয় বৈঠকে সামনে এনেছেন দলিত নেত্রী৷ কর্মীদের হতাশ না হওয়ার বার্তা দিয়ে মায়াবতী জানিয়েছেন, ২০১৪-য় শূন্য আসন পাওয়া বিএসপি ২০১৯-এ ১০ টি আসন পেয়েছে। ফলে আগামী দিনে হতে চলা উপনির্বাচনগুলিতে একক ক্ষমতায় লড়বে দল৷ ঠিক যেমনটা মধ্যপ্রদেশ ও রাজস্থানে লড়েছে৷

[ আরও পড়ুন: ফিরল নিপা আতঙ্ক, কেরলের হাসপাতালে ভরতি পড়ুয়া ]

প্রসঙ্গত, লোকসভা নির্বাচনের আগে গতবছরই উত্তরপ্রদেশের কৈরানা, ফুলপুর ও গোরক্ষপুরে উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়৷ যেখানে আশাতীত ফল করে অবিজেপি দলগুলি৷ বিশেষ করে মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের নিজের কেন্দ্র গোরক্ষপুরেই পরাজিত হয় বিজেপি৷ এরপরই মহাজোটের ভাবনা মাথাচাড়া দেয় জাতীয় রাজনীতিতে৷ ২৫ বছরের শত্রুতায় ইতি টেনে একমঞ্চে আসতে দেখা যায় এসপি-বিএসপিকে৷ কংগ্রেসকে বাদ দিয়েই উত্তরপ্রদেশে নির্বাচনী ময়দানে নামেন ‘বুয়া-ভাতিজা’ জুটি৷ কিন্তু ফলাফল ঘোষণা হতে দেখা যায়, পুরোপুরি মুখ থুবড়ে পড়েছে মহাজোট৷ সমস্ত সংখ্যাতত্ত্বকে গরমিল করে উত্তরপ্রদেশের চাবিকাঠি নিজেদের দখলেই রেখেছে গেরুয়া শিবির৷ গতবারের তুলনায় আসন কমলেও, ৮০ আসন বিশিষ্ট এই রাজ্যে বিজেপি একাই পেয়েছে ৬২টি আসন৷ এবং তাঁর জোটসঙ্গী আপনা দল পেয়েছে ২টি আসন৷ অন্যদিকে মহাজোটের বিএসপি পেয়েছে ১০টি আসন৷ এবং এসপির ঝুলিতে গিয়েছে মাত্র ৫টি আসন৷ কংগ্রেসের ভাগ্যে জুটেছে মাত্র একটি আসন৷ দীর্ঘদিনের আসন আমেঠিতে পরাজিত হয়েছেন খোদ কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী৷ কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানির কাছে পরাজিত হয়েছেন তিনি৷ 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement