BREAKING NEWS

১০ মাঘ  ১৪২৮  সোমবার ২৪ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Farmers’ Protest: কৃষক বিক্ষোভ নিয়ে উলটো সুর মেঘালয়ের রাজ্যপালের, তোপ দাগলেন বিজেপিকে

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: August 29, 2021 5:31 pm|    Updated: August 29, 2021 5:31 pm

Meghalaya Governor Targets BJP Over Farmers' Protest | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: হরিয়ানায় (Haryana) আক্রান্ত কৃষকদের পাশে দাঁড়িয়ে ফের একবার সে রাজ্যের বিজেপি (BJP) সরকারকে তুলোধনা করলেন মেঘালয়ের (Meghalaya) রাজ্যপাল সত্যপাল মালিক (Satya Pal Malik)। এই ঘটনা কিছুতেই মেনে নেওয়া যায় না। অবিলম্বে ক্ষমা চাওয়া উচিত হরিয়ানার মুখ্যমন্ত্রী মনোহর লাল খাট্টারের। এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এমনই দাবি তুললেন মালিক। শুধু তাই নয়, বিতর্কিত কৃষি আইনের প্রতিবাদে মুখর কৃষকদের উপর লাঠিচার্জের নির্দেশ দেওয়া সরকারি আধিকারিকের অপসারণেরও দাবি তুললেন তিনি।

কেন্দ্রের আনা বিতর্কিত তিন কৃষি আইনের প্রতিবাদে দীর্ঘদিন ধরে আন্দোলনে মুখর পাঞ্জাব, হরিয়ানা, দিল্লির কৃষকরা। গোটা দেশের থেকে সমর্থনও পেয়েছেন তাঁরা। শনিবার কৃষক বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে ওঠে হরিয়ানার (Haryana) কার্নাল জেলা। পুলিশের লাঠির ঘায়ে রক্তাক্ত হন কৃষকরা। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া এক সরকারি আধিকারিককে বলতেও শোনা যায়, “যাঁরা ব্যারিকেডকে ভেঙে এগোনোর চেষ্টা করবেন, তিনি যে-ই হন না কেন, যেখানকারই হন না কেন, কোনও ভাবেই তাঁদের ছাড় দেওয়া যাবে না” এর সঙ্গেই তাঁর সংযোজন, “নির্দেশের জন্য অপেক্ষার দরকার নেই। পরিস্থিতি তৈরি হলে কৃষকদের লাঠিই হাতে লাঠি তুলে নেবেন। সোজা মাথায় আঘাত করবেন। কোনও আন্দোলনকারী যদি নিরাপত্তা বেষ্টনী ভেঙে বেরিয়েও আসেন, আমি যেন দেখি তাঁর মাথা রক্তাক্ত।” এই ঘটনাই গোটা দেশে তীব্র আলোড়ন ফেলে দিয়েছে।

ইতিমধ্যে এই ঘটনার নিন্দায় সরব হয়েছেন বিরোধীরা। আর এবার মুখ খুললেন মেঘালয়ের রাজ্যপাল সত্যপাল মালিকও। সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, “কৃষকদের কাছে মনোহর লাল খাট্টারের ক্ষমা চাওয়া উচিত। হরিয়ানার মুখ্যমন্ত্রী চাষিদের উপর লাঠি ব্যবহার করেছে। কেন্দ্র কিন্তু ফোর্স ব্যবহার করেনি। আমি দলের উচ্চ নেতৃত্বকে সেকাজে বারণ করেছি।”

[আরও পড়ুন: কাশ্মীরের পর রাজ্যের মর্যাদার দাবিতে আন্দোলন শুরু লাদাখেও, চাপ বাড়ছে কেন্দ্রের উপর]

এরপরই তাঁর সংযোজন অবিলম্বে অভিযুক্ত সরকারি আধিকারিককে অপসারিত করা প্রয়োজন। মালিক বলেন, “ওই এসডিএমকে অবিলম্বে অপসারিত করা উচিত। উনি এই পদে থাকার যোগ্য নন। রাজ্য সরকার ওই আধিকারিককে সমর্থন করছে।” যদিও এই ঘটনা প্রসঙ্গে ইতিমধ্যে খাট্টার জানিয়েছেন, ওই বিক্ষোভে কৃষকরা পাথর ছুঁড়েছিল। আর সেকারণেই পুলিশ লাঠিচার্জ করেছে। তবে সূত্রের খবর, ইতিমধ্যে ওই সরকারি আধিকারিকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থাও নাকি নিতে চলেছে হরিয়ানা সরকার।

[আরও পড়ুন: Viral Video: মারধরের পর গাড়ির পিছনে বেঁধে টানাহেঁচড়া, দলিত যুবকের মৃত্যুতে নিন্দার ঝড় ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে