ad
ad

Breaking News

সুপ্রিম কোর্ট হাতের মুঠোয়, রাম মন্দির নিয়ে বিজেপি মন্ত্রীর মন্তব্যে বিতর্ক তুঙ্গে

প্রশ্নের মুখে যোগীর মন্ত্রিসভার মন্ত্রী।

Minister says,‘Supreme Court is ours, so Ram temple will be built'
Published by: Bishakha Pal
  • Posted:September 9, 2018 12:15 pm
  • Updated:September 9, 2018 12:49 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের বিতর্কে জড়ালেন যোগীর মন্ত্রিসভার এক মন্ত্রী। উত্তরপ্রদেশের মন্ত্রী মুকুট বিহারি বর্মা বলেছেন, অযোধ্যায় রাম মন্দির হবেই। কারণ, দেশের বিচার ব্যবস্থা তাঁদের হাতেই।

মন্ত্রী মুকুট বিহারি বলেছেন, বিজেপি ক্ষমতায় এসেছে তার অন্যতম কারণ রাম মন্দিরের ইস্যুর পুনরুত্থান। বিজেপির অন্যতম লক্ষ্য অযোধ্যায় রাম মন্দির স্থাপন। কারণ সুপ্রিম কোর্ট তাদের হাতের মুঠোয়। শুধু তাই নয়, সমগ্র বিচার ব্যবস্থা ও প্রশাসন তাদের। রাম মন্দিরও তাই। ফলে রাম মন্দির যে হবেই, এ বিষয়ে কোনও সন্দেহ নেই।

মুক্তি পাবে রাজীব হত্যাকারীরা? রবিবার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে তামিলনাড়ু ]

তবে এই প্রথমবার বিজেপির কোনও মন্ত্রী রাম মন্দির নিয়ে বিতর্কে জড়ালেন এমন নয়। রাম মন্দির স্থাপন মামলা এখনও সুপ্রিম কোর্টে ঝুলে রয়েছে। কিন্তু তা সত্ত্বেও বিজেপি নেতারা একের পর এক বিতর্কিত মন্তব্য করে যাচ্ছেন। বিজেপি নেতারা ফের বলতে শুরু করেছেন ২০১৯-এর আগেই অযোধ্যায় তৈরি হবে রাম মন্দির। এর আগে মন্দির নিয়ে একাধিকবার বিতর্কিত মন্তব্য করেছেন বিনয় কাটিয়ার। বিজেপি সাংসদ সাক্ষী মহারাজ, সাধ্বী প্রজ্ঞারাও বারবার সওয়াল করেছেন মন্দিরের পক্ষে। তাদের দাবি ভোটের আগেই মন্দির তৈরি করতে হবে। গত মাসে উত্তরপ্রদেশের উপ-মুখ্যমন্ত্রী কেশব প্রসাদ মৌর্যও এই তালিকায় নিজের নাম নথিভুক্ত করেন। বলেন, প্রয়োজনে সংসদে বিল এনে আইন তৈরি করা হবে। যদি লোকসভায় বিল পাশও হয়ে যায়, রাজ্যসভায় তা আটকে যাবে। কিন্তু যখনই রাজ্যসভায় শাসক গোষ্ঠীর শক্তি বাড়বে সরকার তার সদ্ব্যবহার করবে। একমাত্র রাম মন্দির স্থাপনের মাধ্যমেই প্রয়াত বিশ্ব হিন্দু পরিষদ নেতা অশোক সিংহল, রাম জন্মভূমি শিলান্যাস কমিটির প্রাক্তন চেয়ারম্যান মহন্ত শ্রী রামচন্দ্র দাস পরমহংস এবং করসেবকদের আত্মত্যাগের প্রতি সত্যিকারের শ্রদ্ধা জানানো হবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

ভিড়ে মিশে ‘মুখোশধারী’, কাশ্মীরে প্রমাদ গুনছে পাথর নিক্ষেপকারীরা ]

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ