BREAKING NEWS

২৮ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৮  শনিবার ১২ জুন ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

ভোটের মুখে মিঠুন চক্রবর্তীর সঙ্গে সাক্ষাৎ মোহন ভাগবতের, জল্পনা রাজনৈতিক মহলে

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: February 16, 2021 11:42 am|    Updated: February 16, 2021 11:58 am

Mohan Bhagwat visits Mithun Chakraborty ahead of Bengal elections | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বাংলার ভোটের মুখে হঠাতই সুপারস্টার মিঠুন চক্রবর্তীর (Mithun Chakraborty) মুম্বইয়ের বাংলোয় হাজির আরএসএস প্রধান মোহন ভাগবত (Mohan Bhagwat)। মঙ্গলবার সাতসকালে মহাতারকার বাংলোয় যান ভাগবত। ভোটের মুখে এই সাক্ষাৎ ঘিরে স্বাভাবিকভাবেই জল্পনা শুরু হয়েছে রাজনৈতিক মহলে। তাহলে কি বাংলার নির্বাচনে মিঠুনদার সমর্থন চাইছে সংঘ পরিবার? শুরু হয়েছে কানাঘুষো।

মোহন ভাগবতের সঙ্গে মিঠুন চক্রবর্তীর এই সাক্ষাৎ অবশ্য নতুন কিছু নয়। এর আগে নাগপুরে ভাগবতের সঙ্গে দেখা করেন ‘মহাগুরু’। দু’জনের মধ্যে সৌহার্দ্য বিনিময় হয়। সূত্রের খবর, তখনই ভাগবতকে নিজের বাড়িতে আসার জন্য আমন্ত্রণ জানান মিঠুন। মঙ্গলবার বসন্ত পঞ্চমীর সকালে মুম্বইয়ের মাঢ অঞ্চলে মহাতারকার বাংলোয় হাজির হন আরএসএস প্রধান। বেশ কিছুক্ষণ কথা হয় দু’জনের। অভিনেতা অবশ্য দাবি করেছেন, এই বৈঠক অরাজনৈতিক। তাঁর দাবি, ‘ওঁর সঙ্গে আমার আধ্যাত্মিক আলোচনা হয়েছে।’ বৈঠক নিয়ে মুখই খুলতে চাননি আরএসএস (RSS) প্রধান।

[আরও পড়ুন: এবার আত্মহত্যা সুশান্ত সিং রাজপুতের সহ-অভিনেতার! বাড়ি থেকে উদ্ধার ঝুলন্ত দেহ]

প্রসঙ্গত, মিঠুন চক্রবর্তী দীর্ঘদিন এরাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। তৃণমূলের (TMC) তরফে রাজ্যসভার সদস্যও করা হয় তাঁকে। একটা সময় এরাজ্যের শাসকদলের হয়ে ভোটের প্রচারেও দেখা গিয়েছে মিঠুনকে। বছর পাঁচেক আগে একটি চিটফান্ড মামলায় নাম জড়ায় মিঠুনের। একটি অর্থলগ্নি সংস্থার কাছ থেকে আর্থিক সুবিধা পাওয়ার অভিযোগ ওঠার কিছুদিন পরই রাজনীতির ময়দান থেকে সরে দাঁড়ান মিঠুন। ভগ্ন স্বাস্থ্যের কারণ দেখিয়ে ২০১৬ সালের শেষদিকে রাজ্যসভার সাংসদ পদও ত্যাগ করেন মিঠুন। তারপর থেকেই কার্যত রাজনীতির সঙ্গে কোনও যোগাযোগ নেই মিঠুনের।

[আরও পড়ুন: আন্তর্জাতিক মঞ্চে সেরা সহ-অভিনেত্রীর পুরস্কার পেলেন স্বস্তিকা, নেটিজেনদের শুভেচ্ছা]

বাংলার বিধানসভা (Bengal Assembly Election) নির্বাচনের আগে আরএসএস প্রধানের সঙ্গে মিঠুনের এই সাক্ষাৎ সেজন্যই গুরুত্বপূর্ণ। আসলে ‘মহাগুরু’ আজও চূড়ান্ত জনপ্রিয়। ভোটের মুখে মিঠুনের সমর্থন জোগাড় করতে পারলে বিজেপি যে বাড়তি অক্সিজেন পেয়ে যাবে, সেটা বলার অপেক্ষা রাখে না। রাজনৈতিক মহলের ধারণা, সম্ভবত সেকারণেই মিঠুনের সঙ্গে আরএসএসের মাধ্যমে যোগাযোগ শুরু করল বিজেপি। 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement