১৩ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  সোমবার ৩০ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

আরও শক্তিশালী ভারত, সুখোই যুদ্ধবিমান থেকে ব্রহ্মস মিসাইলের সফল উৎক্ষেপণ

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: October 30, 2020 10:16 pm|    Updated: October 30, 2020 10:16 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:‌ আরও শক্তিশালী হল ভারতীয় বায়ুসেনা (Indian Air Force)। মুকুটে জুড়ল আরও একটি পালক। শুক্রবার সুখোই ৩০ এমকেআই যুদ্ধবিমান থেকে ফের সফলভাবে পরমাণু বোমা বহনে সক্ষম ব্রহ্মস (BrahMos) মিসাইল ছোঁড়া হল। পরিকল্পনামাফিক মাঝ আকাশে বিমানে তেল ভরার পর বঙ্গোপসাগরে নির্দিষ্ট লক্ষ্যমাত্রায় ছোঁড়া হয় সুপারসনিক এই ক্রুজ মিসাইলটি। আর অতি সহজেই নির্দিষ্ট লক্ষ্যমাত্রায় আঘাত হানে ক্ষেপণাস্ত্রটি।

চিন ও পাকিস্তানের কাছ থেকে লাগাতার হামলার হুমকি পাওয়ার মধ্যে ভারতীয় বায়ুসেনার জন্য অবিলম্বে এই প্রক্রিয়া শুরু করা জরুরি হয়ে পড়েছিল। কেন্দ্রের লক্ষ্যই ছিল, একইসঙ্গে দু’মুখো যুদ্ধ শুরু হলে ভারত যেন পালটা মার দিতে পারে শত্রুদের। এজন্য গত কয়েকবছর ধরেই সুখোই ৩০ এমকেআই ও ব্রহ্মস সংযুক্তির কাজ চালাচ্ছিল দেশীয় সংস্থা হ্যাল।

[আরও পড়ুন: লকডাউনে কর্মহীন মা, চা বিক্রি করে বোনেদের পড়াশোনার খরচ সামলাচ্ছে কিশোর]

এদিন সকাল ৯টা নাগাদ পাঞ্জাবের (Punjab) হালওয়ারা বিমানঘাঁটি থেকে ব্রহ্মস মিসাইল নিয়েই সুখোই ৩০ এমকেআই যুদ্ধবিমানটি ওড়ে। এরপর মাঝ আকাশে সেটিতে তেলও ভরা হয়। তারপর বঙ্গোপসাগরে দুপুর দেড়টা নাগাদ লক্ষ্যবস্তু হিসেবে রাখা একটি জাহাজে আঘাত হানে ব্রহ্মস মিসাইলটি। টুইট করে খবরটি জানানো হয়েছে সংবাদ সংস্থা এএনআইয়ের পক্ষ থেকে।

 

শব্দেরও কয়েক গুণ গতি সম্পন্ন ঘাতক ব্রহ্মস মিসাইলটি ভারত ও রাশিয়ার যৌথভাবে বানিয়েছে। ইতিমধ্যেই দু’দেশের সেনার ভাঁড়ার রয়েছে ক্ষেপণাস্ত্রটি। ২০০৬ সালে স্থলসেনা ও নৌসেনার অস্ত্র ভাণ্ডারে যুক্ত হয় ব্রহ্মস ক্ষেপণাস্ত্র (Missile)। মিসাইলটিকে আরও ঘাতক করে তোলা হয়। এরপর তা যুক্ত করা হয় ভারতীয় বায়ুসেনাতেও।

[আরও পড়ুন: কে পেল ‘আচ্ছে দিন’? ভিভিআইপি বিমান প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী মোদিকে কটাক্ষ রাহুলের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement