২ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

দেশের করোনা আক্রান্তদের সুস্থতার হার ৫০ শতাংশেরও বেশি, আশার বাণী মোদির

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: June 16, 2020 6:23 pm|    Updated: June 16, 2020 6:31 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আনলক ওয়ান (Unlock1) পর্বে দেশ যে পথে চলেছে, তাতে বেশ আশা দেখছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ধীরে ধীরে জয়ের পথে এগোচ্ছে ভারত। এদেশে ৫০ শতাংশেরও বেশি রোগীর সুস্থতার হারই তার প্রমাণ। এর জন্য বিশ্বের দরবারেও প্রশংসিত ভারত। আজ মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে বৈঠকে এমন আশার কথা বললেন প্রধানমন্ত্রী।

জুনের প্রথম দিন থেকে ধাপে ধাপে লকডাউন প্রত্যাহার করা হয়েছে দেশে। আনলক-১ পর্বে মূলত অর্থনীতিকে একেবারে সচল করার পথে হেঁটেছে কেন্দ্র। সেইমতো অফিস, কলকারখানা খুলে গিয়েছে। নতুন করে শুরু হয়েছে ব্যবসা-বাণিজ্য, কাজকর্ম। এতদিনকার গৃহবন্দি দশা থেকে মুক্ত হওয়ার পর কাজে ফিরতে পারায় স্বস্তি সাধারণ নাগরিকের। তবে তাৎপর্যপূর্ণভাবে এই সময়েই দেশে করোনা ভাইরাস (Coronavirus) সংক্রমণের হার অনেকটা বেশি। সপ্তাহ দুই ধরে ফি দিন ১০ থেকে ১১ হাজার মানুষের শরীরে নতুন করে জীবাণুর সন্ধান মিলছে। আক্রান্তের হারে বিশ্বের তালিকায় ভারত উঠে এসেছে চতুর্থ স্থানে। মৃত্যুর নিরিখে অষ্টম স্থানে দেশ।

[আরও পড়ুন: যুদ্ধের আবহে দিল্লি-মীরাট সড়ক প্রকল্পে সুড়ঙ্গ নির্মাণের বরাত পেল চিনা সংস্থা]

তবে শুধুমাত্র এই পরিসংখ্যানের দিকে তাকালেই হবে না। দেখতে হবে সুস্থতার হারও। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিসংখ্যান মন্ত্রকের নয়া হিসেব অনুযায়ী, দেশে করোনার কামড় থেকে সুস্থ হয়ে ওঠা রোগীর হার ৫২.৪৭ শতাংশ। যা করোনা যুদ্ধের অন্যতম শক্তিশালী অস্ত্র। প্রধানমন্ত্রীও বললেন সেই একই কথা। আজ দেশের ২০ টি রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে আলোচনা করেন মোদি। সেখানেই তিনি বলেন যে বিশ্বের অন্যান্য দেশের তুলনায় ভারতের পরিস্থিতি ভাল। ৫০ শতাংশেরও বেশি রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন। এর জন্য বিশ্বের অন্যান্য দেশও ভারতের ভূমিকার প্রশংসা করেছে বলেও জানিয়েছেন তিনি। তবে তাঁর পরামর্শ, মাস্ক ব্যবহারকে অপরিহার্য করে তুলতে হবে। হাত ধোয়া এবং পথেঘাটে যে কোনও মানুষের থেকে ন্যূনতম দূরত্ব বজায় রাখা আবশ্যকীয়। এসব নিয়ম মেনে চললেই ভারত করোনা যুদ্ধে জিতে যাবে বলে আশা প্রধানমন্ত্রীর।

[আরও পড়ুন: ‘জ্বালানির দাম বাড়িয়ে মুনাফা লুঠছে কেন্দ্র’, সরকারকে তোপ সোনিয়ার]

এছাড়া ‘আত্মনির্ভর ভারত’ প্রকল্প এবং পরিযায়ী শ্রমিকদের নিয়েও এদিন বক্তব্য রেখেছেন প্রধানমন্ত্রী মোদি। তাঁর দাবি, কয়েক সপ্তাহের মধ্যে ভিন রাজ্যে থাকা শ্রমিকরা যে যার ঘরে ফিরে যেতে পেরেছেন। বিদেশে আটকে থাকা ভারতীয়রাও ফিরে এসেছেন। অর্থনীতিতে যেটুকু ঘাটতি পড়েছিল, আনলক পর্বে তা ধীরে ধীরে মিটিয়ে নেওয়া যাবে বলে আশাপ্রকাশ করেন মোদি। বুধবার বাকি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে দ্বিতীয় বৈঠক করবেন প্রধানমন্ত্রী।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement