১৫  আষাঢ়  ১৪২৯  শুক্রবার ১ জুলাই ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

যোগ দিবসে এ কী করলেন বিজেপির দুই মন্ত্রী?

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 21, 2017 9:47 am|    Updated: June 21, 2017 9:47 am

MP minister caught napping during International Yoga Day Celebration

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দেশবাসীকে যোগের গুরুত্ব বোঝাতে খোদ ময়দানে নেমেছেন নরেন্দ্র মোদি। বৃষ্টি উপেক্ষা করে লখনউয়ে তাঁর শরীরচর্চার ছবি উৎসাহীদের কাছে আলোচনার বিষয়। প্রধানমন্ত্রী যোগ নিয়ে ব্যস্ত থাকলেও, তাঁর দলের কয়েকজন মন্ত্রী যা করলেন তাতে বিজেপির মুখ পুড়েছে। মধ্যপ্রদেশের বিজেপির এক মন্ত্রী আন্তর্জাতিক যোগ দিবসে ঘুমিয়ে পড়লেন। আর এক মন্ত্রী ব্যস্ত ছিলেন মোবাইলে। সোশ্যাল মিডিয়ায় সেই ছবি দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। সাফাই দিতে গিয়ে বিতর্ক আরও বাড়িয়েছেন মন্ত্রীরা।

[বয়স ৯৮, যোগের কেরামতিতে এখনও তাক লাগাচ্ছেন ইনি]

সম্প্রতি কৃষক আন্দোলনে নিয়ে প্যাঁচে মধ্যপ্রদেশের বিজেপি সরকার। এই ইস্যু থেকে নজর ঘোরাতে বড় কোনও কর্মসূচির দরকার ছিল। শিবরাজ সিং চৌহানের সরকার  হাতের পাঁচ হিসাবে পেয়ে যায় আন্তর্জাতিক যোগ দিবসকে। সেইমতো বুধবার গোটা রাজ্য জুড়ে যোগ দিবস পালন করা হয়। কিন্তু এতেই বাধে গোল। মধ্যপ্রদেশের ছিন্দওয়ারায় যোগ দিবসের দায়িত্বে ছিলেন কৃষিমন্ত্রী গৌরীশঙ্কর বিষেণ। প্রায় ২০ হাজার পড়ুয়ার সঙ্গে কৃষিমন্ত্রী বিষেণ যোগ ব্যায়াম করছিলেন। মেরেকেটে ১০ মিনিট মাঠে ছিলেন কৃষিমন্ত্রী। তারপর মন্ত্রীমশাইয়ের মনে হয়েছিল অনেক আসন হয়েছে। এবার সোফায় বসা অনেক ভাল। মাঝপথে ব্যায়াম ছেড়ে গৌরীশঙ্কর আরাম কেদারায় শরীরটা এলিয়ে দেন। তারপরই প্রবল তন্দ্রা। কয়েক হাজার লোকের সামনে ঘুমিয়ে একবার কাদা হয়ে যান মন্ত্রীমশাই। যা নিয়ে হইচই শুরু হওয়ায় অদ্ভুত সাফাই দিয়েছেন মধ্যপ্রদেশের কৃষিমন্ত্রী। তাঁর দাবি তিনি নাকি ঘুমোননি। শরীর খারাপ হওয়ায় ব্যায়াম বন্ধ করে উঠে আসেন। গেরুয়া শিবিরের মুখ পুড়িয়েছেন দলের আরও এক মন্ত্রী। মধ্যপ্রদেশের স্কুলশিক্ষামন্ত্রী বিজয় শাহ যোগ ব্যায়ামের সময় মোবাইলে ব্যস্ত ছিলেন। খান্ডোয়ায় তিনি একটুও ব্যায়াম না করে সংবাদমাধ্যমকে যোগের উপকারিতা বোঝালেন। যোগার সময় কেন মোবাইলে ব্যস্ত ছিলেন? এর জবাবে বিজয়ের দাবি তিনি মোবাইলে গেম খেলছিলেন না, প্রধানমন্ত্রীর অনুষ্ঠান দেখছিলেন।

[লখনউয়ে মোদি, লাদাখে সেনা, যোগের সূত্রে বাঁধল গোটা দেশ]

এর আগে একাধিকবার বিতর্কে জড়িয়েছেন গৌরীশঙ্কর বিষেণ। কিছুদিন আগে প্রকাশ্যে এসপিকে ধমকে ছিলেন। সাম্প্রতিক কৃষক আন্দোলন নিয়ে আলটাপকা মন্তব্য করে দলকে বিড়ম্বনায় ফেলেছিলেন কৃষিমন্ত্রী। যোগ নিয়ে দুই মন্ত্রী যা করলেন তাতে আরও অস্বস্তিতে পড়েছে বিজেপি। জলঘোলা হতে থাকায় গেরুয়া শিবির অবশ্য মুখে কুলুপ এঁটেছে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে