BREAKING NEWS

১০  আশ্বিন  ১৪২৯  বৃহস্পতিবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

নজিরবিহীন! প্রধানমন্ত্রী মোদির নিরাপত্তায় এবার ‘দেশি কুকুর’

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: August 19, 2022 7:45 pm|    Updated: August 19, 2022 8:04 pm

Mudhol Hounds, the 'desi' dog breed PM Modi spoke of, joins SPG squad | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ক্ষমতায় এসেই আত্মনির্ভর ভারত গড়ার ডাক দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। বলেছিলেন, অন্যের উপর নির্ভরশীল না হয়ে, নিজের পায়ে দাঁড়াতে হবে। সেই দিশায় এবার বেনজির পদক্ষেপ হিসেবে প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তা বলয়ে এবার যোগ হতে চলেছে দুই ‘দেশি কুকুর’।

সূত্রের খবর, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সুরক্ষায় এবার দেশি ‘মুধল হাউন্ড’ কুকুর মোতায়েন করা হবে। ইতিমধ্যে ‘ক্যানাইন রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশন সেন্টার’ থেকে দু’টি কুকুরছানা নিয়ে গিয়েছে ‘স্পেশ্যাল প্রোটেকশান গ্রুপ’ (এসপিজি)। বলে রাখা ভাল, প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তার দায়িত্বে রয়েছে বিশেষভাবে প্রশিক্ষিত এই কমান্ডো বাহিনী। জানা গিয়েছে, এপ্রিলের ২৫ তারিখ কর্ণাটকের তিম্মাপুরে অবস্থিত ওই ক্যানাইন রিসার্চ সেন্টারে একটি বিশেষ দল পাঠায় এসপিজি। ওই দলে ছিলেন দুই চিকিৎসক ও কয়েকজন কমান্ডো। ইতিমধ্যে দু’মাস বয়সের ওই কুকুরছানাদের প্রশিক্ষণ শুরু হয়ে গিয়েছে। চলবে মাস চারেক ধরে। তারপর প্রশিক্ষণের শেষ ধাপ পেরলে তাদের প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তায় মোতায়েন করা হবে।

[আরও পড়ুন: ‘ও দলিত মেয়েকে ছোঁবে না’, যৌন নির্যাতন মামলায় অভিযুক্তকে জামিন দিল কেরল আদালত]

উল্লেখ্য, প্রাচীনকাল থেকেই কর্ণাটকে ‘মুধল হাউন্ড’ কুকুর বিখ্যাত। সেসময় এই প্রজাতি রাজা-রাজরা ও শিকারীদের অত্যন্ত পছন্দের ছিল। প্রায় ২০-২২ কিলোগ্রাম ওজনের এই সারমেয়দের মাথা ছোট, শরীর হালকা ও লম্বা হয়। শারীরিক বৈশিষ্ট্যের জন্যই এরা অনেকটা পথ অত্যন্ত দ্রুত দৌড়ে যাওয়ার ক্ষমতা ধরে। আগে একাধিকবার প্রধানমন্ত্রীর মুখে হাউন্ডের প্রশংসা শোনা গিয়েছে। ‘দেশি কুকুর’দের নিরাপত্তা সংস্থা ও সেনায় অন্তর্ভুক্তির বিষয়ে জোর দিয়েছেন মোদি।

প্রসঙ্গত, গত জুলাই মাসে বিহার থেকে দুই সন্ত্রাসবাদীকে গ্রেপ্তার করা হয়। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে হত্যার ছক তৈরি করছিল ধৃতরা। বিশেষ প্রশিক্ষণও নিয়েছিল তারা। পাকিস্তান, বাংলাদেশ এবং তুরস্কের মতো দেশ থেকে নিয়মিত অর্থ পাঠানো হত ধৃত জঙ্গিদের কাছে। ভারতে নাশকতা মূলক কাজ চালানোর জন্যই সেই অর্থ আসত বলে অনুমান পুলিশের। এহেন সময়ে প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তা আরও মজবুত করতে ‘মুধল হাউন্ড’ ব্যবহার করতে চলেছে এসপিজি।

[আরও পড়ুন: ত্রিপুরায় বিএসএফ-জঙ্গি সংঘর্ষ, গুলিতে শহিদ এক জওয়ান]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে