BREAKING NEWS

১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  বুধবার ২ ডিসেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ধর্মে মতি আম্বানির! কামাখ্যা মন্দিরের চূড়া ১৯ কেজি সোনায় মুড়ে দিচ্ছে রিলায়েন্স

Published by: Biswadip Dey |    Posted: November 8, 2020 5:44 pm|    Updated: November 8, 2020 5:44 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সামনেই দীপাবলি। সেই আবহেই অসমের কামাখ্যা মন্দির (Kamakhya Temple) নতুন সাজে সাজছে। রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজের কর্ণধার মুকেশ আম্বানি (Mukesh Ambani) প্রায় ১০ কোটি টাকা খরচ করে মন্দিরের পাত মুড়ে দিচ্ছেন সম্পূর্ণ সোনায়। জানা যাচ্ছে, এর জন্য প্রায় ১৯ কেজি সোনা লাগছে। ইতিমধ্যেই কাজ শুরু হয়ে গিয়েছে। দীপাবলির আগেই তা শেষও করে ফেলা হবে।

শেষবার যখন তিনি এই মন্দিরে এসেছিলেন, তখনই মন্দির কর্তৃপক্ষকে কথা দিয়েছিলেন, মূল মন্দিরের চূড়া সোনা দিয়ে মুড়ে দিতে যা খরচ হবে তা তিনি দেবেন। কথা রেখেছেন আম্বানি। রিলায়েন্স গ্রুপের ইঞ্জিনিয়ার ও শ্রমিকদের পাঠানো হয়েছে এখানে। মন্দিরের ট্রাস্ট বোর্ডের প্রধান মোহিতচন্দ্র শর্মা জানাচ্ছেন, প্রাথমিক কাজ শেষ হয়ে গিয়েছে। আশা করা যাচ্ছে কাজ সম্পূর্ণ হয়ে যাবে দীপাব‌লির আগেই। রিলায়েন্সের তরফে মন্দির চত্বরে কড়া নিরাপত্তার ব্যবস্থাও করা হয়েছে। অতিমারীর কারণে দীর্ঘ সময় বন্ধ ছিল মন্দিরটি। অবশেষে আবার তা খুলে দেওয়া হয়েছে গত ১২ অক্টোবর। মোহিতচন্দ্র আশাবাদী, মন্দিরের এই নবরূপ আরও বেশি ভক্তকে আকৃষ্ট করবে।

[আরও পড়ুন: প্রথম দফায় করোনার টিকা পাবেন ৩০ কোটি ভারতীয়, কারা ঠাঁই পাচ্ছেন কেন্দ্রের তালিকায়?]

৫১ সতীপীঠের অন্যতম দেবী কামাখ্যার এই মন্দির। এই মন্দিরের বিশেষত্ব দেবী সতীর গর্ভ এবং যোনি এখানে পড়েছিল। সেই কারণেই দেবী কামাখ্যাকে ‘উর্বরতার দেবী’ বলা হয়। এই মন্দির চত্বরে দশমহাবিদ্যার মন্দিরও আছে। তন্ত্রসাধকদের কাছে কামাখ্যার মন্দিরের গুরুত্ব অপরিসীম। প্রসঙ্গত, অসমের স্বাস্থ্যমন্ত্রী তথা বিজেপি নেতা হিমন্ত বিশ্বশর্মা মা কামাক্ষ্যার একনিষ্ঠ ভক্ত। সেই কারণে মন্দিরের সৌন্দর্যায়নের কাজে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন তিনিও।

এদিকে এমাসের শুরুতেই জানা গিয়েছিল, একদিনে ৬.৮ বিলিয়ন মার্কিন ডলার বা ৫০ হাজার কোটি টাকার ক্ষতির মুখে পড়তে হয়েছে মুকেশ আম্বানিকে। ফলে বিশ্বে ধনী ব্যক্তিদের তালিকাতেও তিন ধাপ নেমে গিয়েছেন তিনি। আপাতত ধনসম্পদের নিরিখে বিশ্বের শ্রেষ্ঠ ধনীদের তালিকায় তিনি নবম স্থানে রয়েছেন। গত ন’বছর ধরে তিনিই দেশের ধনীতম ব্যক্তি।

[আরও পড়ুন: ‘ওটা ছিল সুপরিকল্পিত ষড়যন্ত্র’, নোট বাতিলের চতুর্থ বর্ষপূর্তিতে তোপ রাহুলের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement