১১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

আমাকে ও মেয়েকে বাঁচান, স্বামীর অত্যাচার থেকে বাঁচতে আর্তি গৃহবধূর

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: February 5, 2018 1:15 pm|    Updated: February 5, 2018 1:17 pm

Mumbai woman pleads to be rescued from abusive husband on twitte

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দয়া করে আমাকে ও মেয়েকে বাঁচান। নাহলে স্বামীর মানসিক, শারীরিক অত্যাচারে মরেই যাব। সুবিচার না পেলে সোমবার প্রকাশ্যে রাস্তায় নিজেকে শেষ করে ফেলব।” ফের গার্হস্থ হিংসার শিকার গৃহবধূ। পুলিশকে জানিয়ে সুরাহা মেলেনি। তাই টুইটারে সুবিচারের আর্তি জানিয়েছেন তিনি। আক্রান্ত গৃহবধূর নাম অমিতা কর। অভিযুক্ত স্বামীর নাম গুরপ্রীত সিং। প্রখ্যাত সমাজকর্মী তথা চলচ্চিত্র পরিচালক অশোক পণ্ডিত গৃহবধূর ভিডিওটি শেয়ার করেছেন। ঘটনাটি মুম্বইয়ের খার এলাকার।

[সঞ্জয় মিত্রর দৌত্যে ইজরায়েলের কাছ থেকে ৩০০০ ‘স্পাইক মিসাইল’ কিনছে ভারত]

আক্রান্ত গৃহবধূর অভিযোগ, দীর্ঘদিন ধরেই গার্হস্থ্য হিংসার শিকার তিনি। সুযোগ পেলেই স্বামী তাঁকে বেধড়ক মারধর করে। শনিবার তাঁর বিছানায় বিদ্যুৎ সংযোগ করে দেয় স্বামী। যেকোনও মুহূর্তে শটসার্কিট হয়ে পড়সড় বিপদ ঘটতে পারত। অমিতার দুই ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে। বেশ কয়েকবার মেয়ে-সহ মাকে মেরে ফেলার চেষ্টা করেছে গুরপ্রীত। অমিতার নিজের একটি ফ্ল্যাট রয়েছে। প্রাণের ভয় দেখিয়ে ফ্ল্যাটটি হস্তগত করেছে ওই ব্যক্তি। তার বিবাহবহির্ভূত সম্পর্ক রয়েছে। সেজন্য মাঝে মধ্যেই প্রাণে মেরে ফেলার হুমকিও দিচ্ছে। কিন্তু সন্তানদের মুখের দিকে তাকিয়ে বাড়ি ছাড়তে পারছেন না অমিতা। অত্যাচারের বিষয়টি পুলিশকে জানিয়েছেন। তবে লিখিত অভিযোগ না করায় পুলিশ কোনওরকম সহযোগিতা করবে না। এমনটাই থানা থেকে জানিয়েছে। এদিকে ওই বাড়িতে থেকে যদি স্বামীর বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন, তাহলে টিকতে পারবেন না। আর পেরে উঠছেন না। তাই সুবিচারের আশায় টুইটারের দ্বারস্থ হয়েছেন। এখানেও সুবিচার না মিললে প্রকাশ্য রাস্তায় তিনি আত্মঘাতী হবেন।

ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে কান্নায় ভেঙে পড়েছেন অমিতা কর। কাঁদতে কাঁদতে গত কয়েক মাসের দুর্দশার কথা শোনাচ্ছেন। চোখে মুখে আতঙ্কের ছাপ। মারধরের চিহ্ন স্পষ্ট হয়ে উঠেছে গায়ে। এদিকে অশোক পণ্ডিত ভিডিওটি টুইটারে শেয়ার করতেই তা ভাইরাল হয়েছে। নড়ে চড়ে বসেছে খার থানার পুলিশ।

এই প্রসঙ্গে পুলিশ জানিয়েছে, নির্যাতিতা গৃহবধূর মুম্বইয়ের খার এলাকার একটি ডুপ্লেক্স অ্যাপার্টমেন্টে থাকেন। তিন সন্তান রয়েছে তাঁদের। অ্যাপার্টমেন্টের ১২তলায় দুই ছেলেকে নিয়ে তাঁর স্বামী থাকেন। ১৩তলার একটি ফ্ল্যাটে মেয়েকে নিয়ে থাকেন ওই গৃহবধূ। স্বামীর বিবাহবহির্ভূত সম্পর্ক ও গার্হস্থ হিংসা নিয়ে পৃথক দুটি অভিযোগ জমা পড়েছে থানায়। তদন্ত শুরু হয়েছে। অভিযুক্তের  বিরুদ্ধে যথাযথ পদক্ষেপের ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

[কেরলের স্পিকারের ৫০ হাজারি চশমা! বিতর্কে ‘সর্বহারা’ দল]

 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে