১৩ মাঘ  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ২৭ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

স্ত্রীকে তিন তালাক দেওয়ায় ২ লক্ষ টাকা জরিমানা হল এক মুসলিম যুবকের

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 13, 2017 8:14 am|    Updated: June 13, 2017 8:14 am

Muslim youth fined Rs 3 lakh for invoking triple talaq

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:  তিন তালাক সাংবিধানিকভাবে বৈধ কিনা, তা খতিয়ে দেখছে সুপ্রিম কোর্ট। আগামী মাসেই সম্ভবত এ বিষয়ে চূড়ান্ত রায় ঘোষণা করবে শীর্ষ আদালত। কিন্তু, উত্তরপ্রদেশের সম্বল এলাকায় এই ‘কুপ্রথা’  বিলোপ করতে উদ্যোগী হয়েছেন স্থানীয় মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষরাই। স্ত্রীকে তিন তালাক দেওয়ায়, এক ব্যক্তিকে দু’লক্ষ টাকা জরিমানা করেছে পঞ্চায়েত। বিয়ের সময়ে পাত্রীর বাড়ি থেকে পণ ও অন্য যেসব উপহার দেওয়া হয়েছিল, তাও ফিরিয়ে দিতে বলা হয়েছে ওই ব্যক্তিকে। এছাড়া স্ত্রীকে ‘মেহর’ বাবদ ৬০ হাজার টাকা দিতে বলা হয়েছে।

[এবার গুজরাটেও তৈরি হবে ‘অ্যান্টি রোমিও স্কোয়াড’]  

জানা গিয়েছে, বছর তিনেক আগে সম্বলের বাসিন্দা বছর পঁয়তাল্লিশের সলমন তুর্কের সঙ্গে বিয়ে হয় বছর চব্বিশের শাবিহা বেগমের। কিন্তু সেই বিয়ে সুখের হয়নি। নিত্যদিন ঝগড়া-অশান্তি লেগেই থাকত। গত ১ জুন স্বামী স্ত্রীর অশান্তি চরমে ওঠে। এরপরই রাগের মাথায় শাবিহাকে তিন তালাক দেন সলমন। স্থানীয় মুসলিম তুর্ক সম্প্রদায়ের নেতা শাহিদ হোসেন জানিয়েছেন, এই ঘটনার পর গ্রামের বয়ষ্কদের দ্বারস্থ হয় পাত্রীর পরিবার। এ বিষয়ে ফয়সালা করতে পঞ্চায়েত বসে। গ্রামের মোড়লদের পাশাপাশি পঞ্চায়েতে হাজির ছিলেন গ্রামের মুরুব্বিরাও। সেখানেই সলমন তুর্ককে ২ লক্ষ টাকা জরিমানা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়। পাশাপাশি, স্ত্রীকে ‘মেহর’ বাবদ ৬০ হাজার টাকা দিতে বলা হয়েছে।

[কৃষকদের ঋণ মকুবের দায় নিতে নারাজ কেন্দ্র]

গত রবিবার সম্বল গ্রামে পঞ্চায়েত বসেছিল। পঞ্চায়েতে হাজির ছিলেন স্থানীয় মুরুব্বি লিয়াকত হোসেন। তিনি বলেন, কেউ নিজের ইচ্ছামতো যখন-তখন তিন তালাক দিতে পারেন না। বিবাহবিচ্ছেদের বিষয়টি পুর্নবিবেচনার জন্য তিন মাসের সময় দেওয়া প্রয়োজন। তাই প্রথমে দু’বার তালাক শব্দটি উচ্চারণ করতে হবে। তারপর তিন মাস অপেক্ষা করার পর, তৃতীয়বার তালাক শব্দটি উচ্চারণ করতে হয়। তাছাড়া রাগের মাথায় বা নেশার ঘোরে কেউ যদি স্ত্রীকে তিন তালাক দেন, তাহলে সেটি গ্রাহ্য হয় না। তাই স্থানীয় মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষরা সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, তিন তালাক প্রথা কোনওভাবেই বরদাস্ত করা হবে না।

[সৌদিতে অত্যাচারিত ভারতীয় মহিলা, দেশে ফেরার জন্য দ্বারস্থ বিদেশমন্ত্রীর]

প্রসঙ্গত, দিন কয়েক আগেই তুর্ক সম্প্রদায়ে তিন তালাকের মাধ্যমে তাৎক্ষণিক বিবাহবিচ্ছেদের প্রথাকে নিষিদ্ধ বলে ঘোষণা করেছে স্থানীয় পঞ্চায়েত। এরআগে পণ, অতিরিক্ত জাঁকজমক, ধুমধাম করে বিয়ে, সামাজিক অনুষ্ঠানে প্রচণ্ড শব্দে গান বাজানো বন্ধ করতেও উদ্যোগ নেয় তারা।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে