২ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

উত্তপ্ত বেঙ্গালুরুতে সম্প্রীতির নজির, মন্দির বাঁচাতে মানববন্ধন ইসলাম ধর্মাবলম্বীদের

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: August 12, 2020 3:03 pm|    Updated: August 12, 2020 3:03 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ধর্মীয় উন্মাদনার মাঝেই সম্প্রীতির নজির গড়ল উত্তপ্ত বেঙ্গালুরু। ধর্মোন্মাদদের রোষের আগুন থেকে মন্দির বাঁচাতে মানববন্ধন করে রাতপাহাড়া দিলেন ইসলাম ধর্মাবলম্বীরা।

[আরও পড়ুন: নাক ডাকায় ঘুমের ব্যাঘাত! বচসার জেরে বাবাকে পিটিয়ে খুন করল ছেলে]

মহম্মদকে নিয়ে কংগ্রেস বিধায়ক শ্রীনিবাস মূর্তির ভাইপোর সোশ্যাল মিডিয়ায় বিতর্কিত পোস্ট ঘিরে রণক্ষেত্র বেঙ্গালুরু। গতকাল বিধায়কের বাড়ি এবং থানার সামনে বিক্ষোভ দেখায় উত্তেজিত জনতা। পরিস্থিতি সামাল দিতে বাধ্য হয়ে গুলি চালায় পুলিশ। তাতেই মৃত্যু হয়েছে তিনজনের। এখনও পর্যন্ত গ্রেপ্তার শতাধিক। শহরজুড়ে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। এহেন পরিস্থিতিতে বুধবার একটি ভিডিও পোস্ট করেছে সংবাদ সংস্থা এএনআই। সেখানে দেখা যাচ্ছে, বেঙ্গালুরুর ডিজে হাল্লি থানার অন্তর্গত একটি মন্দির বাঁচাতে জোট বাঁধছেন জনা চল্লিশেক যুবক। উন্মত্ত জনতা যাতে মন্দির চত্বরে না পৌঁছতে পারে তা নিশ্চিত করতে হাতে হাত রেখে বিরাট মানববন্ধন গড়তেও দেখা যায় তাঁদের।

ঘটনার সূত্রপাত মঙ্গলবার সকালে। সেদিনই একটি বিতর্কিত ফেসবুক পোস্ট করেন কংগ্রেস বিধায়ক শ্রীনিবাস মূর্তির ভাইপো। নেটদুনিয়ায় প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই ওঠে ঝড়। এরপর রাতে বিধায়কের বাড়ির সামনে উত্তেজিত জনতা ভিড় জমায়। বাড়ি লক্ষ্য করে ইট, পাথর, কাচের বোতল ছুঁড়তে শুরু করে। ২-৩টি গাড়িতেও আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয়। এরপর ডিজে হাল্লি থানায় ভাঙচুর চালায় হামলাকারীরা। পুলিশের সঙ্গে উত্তেজিত জনতার খণ্ডযুদ্ধ বেঁধে যায়। পরিস্থিতি সামাল দিতে বাধ্য হয়ে গুলি চালায় পুলিশ। তাতে ২ জনের মৃত্যু হয়। আরও কয়েকজন আহত হন। প্রায় ৬০ জন পুলিশকর্মীও জখম হয়েছেন।

[আরও পড়ুন: ভারতে ঢুকে ১ হাজার কোটির কেলেঙ্কারি! আয়কর বিভাগের নজরে চিনা নাগরিক]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement