২১ আষাঢ়  ১৪২৭  মঙ্গলবার ৭ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

রাম মন্দির তৈরিতে সায়, অযোধ্যার জমি হিন্দুদের ফেরাতে চাইছে মুসলিম সংগঠন

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: October 11, 2019 9:22 am|    Updated: October 11, 2019 9:22 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আগামী ১৮ অক্টোবরের মধ্যে অযোধ্যা মামলার শুনানি শেষ করার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ। তার আগেই হিন্দুদের হাতে ওই জমি ফেরানোর ইচ্ছাপ্রকাশ করল উত্তরপ্রদেশের একটি মুসলিম সংগঠন। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষার স্বার্থেই দেশের সমস্ত মুসলিমকে এই বিষয়ে একমত হওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন ওই সংগঠনের সদস্যরা।

[আরও পড়ুন: ১৫০টি ট্রেনকে বেসরকারিকরণের প্রক্রিয়া শুরু রেলের, তৈরি হচ্ছে টাস্ক ফোর্স]

বৃহস্পতিবার এই সংক্রান্ত বিষয়ে আলোচনার জন্য উত্তরপ্রদেশের লখনউতে একটি সেমিনারের আয়োজন করা হয়েছিল। ‘ইন্ডিয়ান মুসলিমস ফর পিস’ নামে একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের ওই অনুষ্ঠানে হাজির ছিলেন মুসলিম সমাজের বিশিষ্ট ব্যক্তিরা। সেখানে রাম জন্মভূমি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়। দেশের শান্তিপ্রিয় ভাবমূর্তি ধরে রাখতে রাম মন্দির তৈরির পক্ষেই রায় দেন আলোচনায় উপস্থিত বিভিন্ন ক্ষেত্রের বিশিষ্ট মানুষরা।

[আরও পড়ুন:উত্তরপ্রদেশে দুর্গাপুজোর বিসর্জনের শোভাযাত্রায় হামলা, গ্রেপ্তার ৮ মুসলিম যুবক]

ওই বিতর্কিত জমি হিন্দুদের ফেরানোর পক্ষে জোরালো সওয়াল করেন আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন উপাচার্য জমিরউদ্দিন শাহও। আদালতের বাইরে এর সমাধান করে নজির তৈরি করা উচিত বলেও উল্লেখ করেন। অবসরপ্রাপ্ত ওই লেফটেন্যান্ট জেনারেলের কথায়, ‘সবাইকে বাস্তব পরিস্থিতি সম্পর্কে সচেতন হতে হবে। সুপ্রিম কোর্ট এই মামলার রায় মুসলিমদের পক্ষে দিলেও জমিটা হিন্দু ভাইদের ছেড়ে দিতে হবে। কারণ তাতে দেশের শান্তিপ্রিয় ও সৌভ্রাতৃত্বের ঐতিহ্য বজায় থাকবে। এটাই একমাত্র পথ আর না হলে আমাদের যুদ্ধ করতে হবে। আদালতের রায়ে জমি পেলেও সেখানে মসজিদ গড়া সম্ভব হবে না। তাই অসম্ভব বিষয় নিয়ে চিন্তা করে কোনও লাভ নেই। দেশের সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষের হাতে ওই জমি তুলে দিয়ে গোটা বিশ্বে একটা নজির তৈরি করতে পারেন ভারতীয় মুসলিমরা। এর ফলে নিজেদের অন্য অধিকারগুলিও সুরক্ষিত থাকবে।’

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement