৮ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৬  বুধবার ২২ মে ২০১৯ 

Menu Logo নির্বাচন ‘১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ট্রেনের খাবারে টিকটিকি কিংবা আরশোলা পাওয়ার অভিযোগ উঠেছে বারবার৷ যাত্রীদের ক্ষোভের ক্ষতে প্রলেপ দিতে নানা ব্যবস্থা নিয়েছে ভারতীয় রেল৷ তবে এবার সেই তালিকায় নাম জুড়ল প্রসিদ্ধ বিপণীর৷ হলদিরামের খাবারেই মিলল মরা টিকটিকি৷ একজন ক্রেতার অভিযোগের ভিত্তিতে ওই আউটলেটটিকে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে৷

[ আরও পড়ুন: কারফিউ অগ্রাহ্য করে গর্ভবতী হিন্দু মহিলাকে হাসপাতালে নিয়ে গেলেন মুসলিম অটোচালক]

মঙ্গলবার দুজন নাগপুরের আজানি স্কোয়ারের হলদিরামে খেতে গিয়েছিলেন৷ ইডলি এবং সম্বর নিয়েছিলেন তাঁরা৷ খেতে গিয়েই চোখ আটকে যায় দুজনের৷ তাঁরা দেখেন সম্বরের মধ্যে ভাসছে টিকটিকির দেহ৷ সঙ্গে সঙ্গে হলদিরামের সুপারভাইজারের সঙ্গে কথা বলেন তাঁরা৷ গোটা ঘটনাটি জানান৷ সম্বরে ভেসে ওঠা মরা টিকটিকির ছবিও তোলেন ক্রেতারা৷ ওই ছবিটিও সুপারভাইজারের কাছে পাঠান৷ তবে থানায় কোনও অভিযোগ জানাননি তাঁরা৷ ইতিমধ্যেই অসুস্থ হয়ে পড়েন দুজনে৷ ভরতি হন একটি নার্সিংহোমে৷ চিকিৎসকদের মাধ্যমে সেই খবর পৌঁছায় খাদ্যদপ্তরে৷ আপাতত সুস্থ রয়েছেন দুজনেই৷ 

[ আরও পড়ুন: মূর্তি ইস্যুতে মমতার পাশে অন্য বিরোধীরা, ধন্যবাদ জানালেন মুখ্যমন্ত্রী]

এরপরই খাদ্যদপ্তরের আধিকারিকরা হলদিরামের ওই আউটলেটে যান৷ সেখানে গিয়ে রান্নার জায়গা ঘুরে দেখেন৷ তাঁদের দাবি, হলদিরামের ওই আউটলেটের জানালার অবস্থা খুবই খারাপ৷ তাতে অবিলম্বে জাল লাগানোর দাবি জানিয়েছেন আধিকারিকরা৷ এছাড়াও সম্বর, ইডলির পাশাপাশি বিভিন্ন খাবারের নমুনাও সংগ্রহ করেন তাঁরা৷ খাবার সংগ্রহ করার পর তা পরীক্ষা করতে পাঠানো হয়েছে৷ খাদ্যদপ্তরের তরফে ইতিমধ্যেই ওই আউটলেটটি বন্ধ করে দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে৷ পরীক্ষার রিপোর্ট হাতে না আসা পর্যন্ত হলদিরামের নাগপুরের আউটলেটটি বন্ধ থাকবে বলেই জানিয়েছেন তাঁরা৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং