BREAKING NEWS

৪ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

সংক্রমণ রোখার চেষ্টা, প্রধানমন্ত্রীর ডাকে সাড়া দিয়ে শুরু জনতা কারফিউ

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: March 22, 2020 9:01 am|    Updated: March 22, 2020 2:12 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: চিনের মৃত্যু মিছিল দেখেও উদাসীন ছিল ইটালি। তাই আজ করোনা ভাইরাসের প্রকোপে সবথেকে বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে সেখানে। প্রতিদিনই মৃতের সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। তৈরি করছে নতুন রেকর্ড। পরিস্থিতি এতটাই নাগালের বাইরে চলে গিয়েছে যে ইটালির অবস্থা দেখে ভয়ে কাঁপছে গোটা বিশ্ব।

Janata curfew

অবস্থা বুঝতে পেরে আজ, রবিবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ডাকে সাড়া দিয়ে দেশজুড়ে জনতা কারফিউ (Janata curfew) পালন করছেন সাধারণ মানুষ। সংক্রমণ রুখতে গৃহবন্দি হয়েই দিন শুরু করেছে আট থেকে আশি। সকাল থেকেই গোটা দেশের পাশাপাশি কলকাতা-সহ গোটা পশ্চিমবঙ্গেও সেই ছবি চোখে পড়ল।

এপ্রান্তে শ্যামবাজার পেরিয়ে ডানলপ বা ওপ্রান্তে যাদবপুর। দু-একটি বিক্ষিপ্ত জায়গা বাদ দিয়ে বৃহত্তর কলকাতার বাকি সব জায়গাই প্রায় ফাঁকা। রাস্তাঘাট শুনসান, মাঝে মধ্যে শুধু দু-একটি লোককে দেখা যাচ্ছে। তবে কিছু মানুষকে দেখা গেল কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতাল-সহ শহরের প্রায় হাসপাতালের সামনে। দেখে রোগীর আত্মীয়-পরিজন বলেই মনে হল।

Janata-curfew

অন্যদিকে শহরে যানবাহন চললেও তার পরিমাণ খুবই কম। মেট্টো পরিষেবা থেকে সরকারি-বেসরকারি বাস বা অন্য যানবাহন সবই কম চলছে। আর তাতেই যাত্রী রয়েছে দু-চারটি। কলকাতার মতো প্রায়ই একই অবস্থা জেলাশহরগুলিতেও। খড়গপুর থেকে বহরমপুর। কিংবা দুর্গাপুর থেকে হুগলি জেলার চুঁচুড়া সর্বত্রই একই ছবি।

[আরও পড়ুন: করোনা LIVE UPDATE: আক্রান্ত ৩১৬, দেশজুড়ে শুরু জনতা কারফিউ]

 

রবিবার সকালেও টুইট করে এই কারফিউতে অংশ নেওয়ার আবেদন জানালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তিনি টুইট করেন, বাড়িতে থেকে অংশ নিন কারফিউতে। কোটি কোটি ভারতবাসীর শক্তি দিয়েই করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়তে হবে।

[আরও পড়ুন: জনতার কারফিউ অগ্রাহ্য করে স্কুল খোলার সরকারি নির্দেশ, বিপাকে শিক্ষকরা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement