২৪ চৈত্র  ১৪২৬  মঙ্গলবার ৭ এপ্রিল ২০২০ 

Advertisement

তথ্যপ্রমাণের অভাবে চার্জশিট দাখিলে ‘ব্যর্থ’ NIA, জামিনে মুক্ত পুলওয়ামা হামলার ষড়যন্ত্রকারী

Published by: Sayani Sen |    Posted: February 28, 2020 9:00 am|    Updated: February 28, 2020 9:12 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নির্ধারিত সময়ের মধ্যে চার্জশিট জমা দিতে পারেনি জাতীয় তদন্তকারী সংস্থা বা এনআইএ (NIA)। তার জেরে জামিনে মুক্তি পেল পুলওয়ামা জঙ্গি হামলায় অভিযুক্ত ইউসুফ চোপান (Yusuf Chopan)। ভয়াবহ ওই জঙ্গি হামলার বর্ষপূর্তির মাত্র কয়েকদিন পরেই গত ১৮ ফেব্রুয়ারি দিল্লির এক বিশেষ আদালত থেকে জামিনে মুক্তি পায় সে। পুলওয়ামা ষড়যন্ত্রকারী সন্দেহে ধৃতের মুক্তি নিয়ে স্বাভাবিকভাবে সুর চড়িয়েছে বিভিন্ন মহল। এই ঘটনার তীব্র প্রতিবাদে সরব কংগ্রেস।

২০১৯ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি ভালবাসার দিনে রক্তে লাল হয়ে গিয়েছে জম্মু-কাশ্মীরের পুলওয়ামা। সেনা কনভয়ে জঙ্গি হামলায় শহিদ হন চল্লিশেরও বেশি সিআরপিএফ জওয়ান। সিআরপিএফের কনভয় লক্ষ্য করে অতর্কিতে হামলার ঘটনায় পাক মদতপুষ্ট জইশ-ই-মহম্মদ জঙ্গিরা জড়িত ছিল। এই ঘটনার পরই ক্ষোভে ফুঁসতে থাকে গোটা দেশ। প্রত্যাঘাতের সিদ্ধান্ত নেয় ভারত। পুলওয়ামা কাণ্ডের ঠিক বারোদিনের মাথায় ২৬ ফেব্রুয়ারি বালাকোটে অভিযান চালিয়েছিল ভারতীয় বায়ুসেনা। আকাশপথে হামলায় গুঁড়িয়ে দেওয়া হয় জঙ্গিশিবির। 

[আরও পড়ুন: পাকিস্তানের জেলেই অভিনন্দনের পাঁজর ভেঙেছিল! প্রকাশ্যে চাঞ্চল্যকর তথ্য]

জানা গিয়েছে, পুলওয়ামার ওই হামলার ঘটনাতেই জড়িত সন্দেহে মোট আটজনকে গ্রেপ্তার করে এনআইএ। দু’টি চার্জশিটও পেশ করা হয়। তবে উপযুক্ত তথ্যপ্রমাণের অভাবে ওই দু’টি চার্জশিটে নাম ছিল না ইউসুফ চোপানের। ১৮০ দিন ধরেই হেফাজতে ছিল ইউসুফ চোপান। স্পেশ্যাল এনআইএ বিচারপতি জানান, ১১ ফেব্রুয়ারি সেই সময়সীমা অতিক্রান্ত হয়েছে। তিনি আরও জানান, প্রমাণের অভাবে চার্জশিট দিতে পারেনি এনআইএ। তার ফলে গত ১৮ ফেব্রুয়ারি বিচারক প্রবীণ সিং পুলওয়ামার ষড়যন্ত্রকারী সন্দেহে ধৃত ইউসুফ চোপানকে অন্তর্বর্তী জামিন দেন। তাকে ৫০,০০০ টাকার বন্ডে জামিন নিতে হয়েছে। তাকে যখনই ডাকা হবে, তখনই তদন্তের যোগ দিতে হবে। ইউসুফ চোপানকে অন্তর্বর্তী জামিন দেওয়ায় এনআইএ’র ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন কংগ্রেস নেতা আহমেদ প্যাটেল। তিনি বলেন, “পুলওয়ামার ষড়যন্ত্রকারীকে জামিন দেওয়া পুলওয়ামার শহিদদের প্রতি অবিচার ছাড়া কিছুই নয়।”

Advertisement

Advertisement

Advertisement