BREAKING NEWS

১৬ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  শনিবার ৩০ মে ২০২০ 

Advertisement

‘এখনই দেশ জুড়ে NRC চালুর পরিকল্পনা নেই’, পিছু হঠে লিখিত বিবৃতি স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: February 4, 2020 12:39 pm|    Updated: February 4, 2020 2:02 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে ভিন্ন সুর প্রতিমন্ত্রীর। লোকসভায় NRC সংক্রান্ত আলোচনার মুখে স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী নিত্যানন্দ রাই লিখিত বিবৃতি দিয়ে সাফ জানালেন, “এখনই দেশ জুড়ে জাতীয় নাগরিকপঞ্জির কাজ শুরু করার কোনও পরিকল্পনা নেই।” তাঁর এই মন্তব্যকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের জবাব বলে ধরে নেওয়া হচ্ছে। এবং সেক্ষেত্রে অর্থাৎ NRC নিয়ে অমিত শাহর মৌখিক আস্ফালন অনেকটাই ফাঁকা আওয়াজ বলে মনে করতে শুরু করেছে রাজনৈতিক মহলের একাংশ।

নরেন্দ্র মোদি, অমিত শাহ থেকে শুরু করে কেন্দ্রের অন্যান্য মন্ত্রী, এমনকী এ রাজ্যের বিজেপি নেতারাও CAA-NRC লাগু করা নিয়ে বারবারই কার্যত হুঁশিয়ারি দিয়ে যাচ্ছেন। এ নিয়ে অসম-সহ দেশের বিভিন্ন অংশে চলছে আন্দোলন। যার সর্বাগ্রে রয়েছে বাংলা। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে এই আন্দোলনে গোটা দেশকেই দিশা দেখিয়েছে তৃণমূলের প্রতিবাদ কর্মসূচি। সংসদের অন্যান্য অধিবেশনের মতো বাজেট অধিবেশনেও এসবের বিরুদ্ধে সুর চড়ানোর কৌশল নিয়েছে কংগ্রেস, তৃণমূল-সহ বিরোধী দলগুলি। সংসদের ভিতরে এবং বাইরে NRC-CAA বিরোধী বিক্ষোভে শাসকদলকে চাপে রাখতে চান তাঁরা।

[আরও পড়ুন: বাড়ছে আগ্রাসন, ৯ মাসে দু’হাজারেরও বেশি সংঘর্ষবিরতি লঙ্ঘন পাকিস্তানের]

সেইমতো মঙ্গলবার অধিবেশন শুরু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই শুরু হয় বিক্ষোভ। পরে এই সংক্রান্ত একটি প্রশ্নের উত্তরে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী নিত্যানন্দ রাই লিখিত বিবৃতিতে জানিয়ে দিলেন, “এখনও পর্যন্ত, দেশ জুড়ে জাতীয় নাগরিকপঞ্জির কাজ শুরু করার কোনও সিদ্ধান্ত নেয়নি সরকার।” তাঁর এই মন্তব্যের পরই রাজনৈতিক মহলে শুরু হয়েছে আলোচনা। তাহলে কি লাগাতার বিক্ষোভের মুখে পড়ে NRC ইস্যুতে ‘ধীরে চলো’ নীতি গ্রহণ করছে কেন্দ্র? নাকি অসম থেকে শিক্ষা নিয়ে পিছু হঠছেন নেতারা? অসমে NRC-র পরও বাদ যাওয়া ১৯ লক্ষ মানুষের মধ্যে ১২ লক্ষই হিন্দু বাঙালি। যা প্রায় ব্যুমেরাং হয়ে এসেছে বিজেপির কাছে।

বিশেষজ্ঞদের একাংশের মত, নিত্যানন্দ রাইয়ের এই লিখিত বিবৃতি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর বক্তব্যের সঙ্গে অমিল। যেখানে মন্ত্রী বারবারই জাতীয় নাগরিকপঞ্জি লাগু করতে ব্যস্ত হয়ে উঠছেন, প্রধানমন্ত্রী নিজেও এর প্রয়োজনীয়তা ব্যাখ্যা করছেন বিভিন্ন সভায়, সেখানে প্রতিমন্ত্রীর এই লিখিত বিবৃতিতেই স্পষ্ট যে তাঁদের সেসব বক্তব্য কেবলই মুখের কথা। আসলে দেশের সামগ্রিক পরিস্থিতি বুঝে, রাজনীতির জল মেপে তবেই NRC চালুর সিদ্ধান্ত নেবে কেন্দ্র। আরেকাংশের মতে, NRC বিষয়টি এতটাই স্পর্শকাতর হয়ে উঠেছে এই মুহূর্তে যে এ নিয়ে কোনও নির্দিষ্ট পরিকল্পনাই গড়ে তুলতে পারেনি মোদি সরকার।

[আরও পড়ুন: ঋণে জর্জরিত এয়ার ইন্ডিয়া কিনতে চলেছে টাটা গোষ্ঠী, তুঙ্গে জল্পনা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement