৪ ফাল্গুন  ১৪২৬  সোমবার ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo দিল্লি ২০২০ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ২০১৪ সালে বিজেপি ক্ষমতায় আসার পর থেকেই কট্টরপন্থী ও জাতীয়তাবাদীদের বাড়বাড়ন্ত লক্ষ্য করা গিয়েছে। তার প্রভাব পড়ছে সাধারণ নাগরিকদের খাদ্যাভাস থেকে দৈনন্দিন জীবনেও। কিছুদিন আগেও বন্দে মাতরম বা ভারত মাতার জয় না বলার কারণে হেনস্তার শিকার হতে হয়েছে অনেককে। জয় শ্রী রাম স্লোগান নিয়ে কেচ্ছা হয়েছে অনেক। মাঝে তো এই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর সামনে কেউ জয় শ্রী রাম স্লোগান দিলেই মারাত্মক রেগে যাচ্ছিলেন তিনি। ভোট কৌশলী প্রশান্ত কিশোর তৃণমূলের পরামর্শদাতা হিসেবে নিযুক্ত হওয়ার পর অবশ্য সেই অবস্থার পরিবর্তন হয়েছে। এর মাঝেই ফের বন্দে মাতরম নিয়ে হুঁশিয়ারি দিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রতাপচন্দ্র সারেঙ্গি।

গুজরাটের সুরাটে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের সমর্থনে একটি জনসভার আয়োজন করা হয়েছিল। সেখানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে বন্দে মাতরমের প্রসঙ্গ উত্থাপন করেন মাঝারি, ছোট ও ক্ষুদ্র শিল্প মন্ত্রকের রাষ্ট্রমন্ত্রী প্রতাপচন্দ্র সারেঙ্গি। বলেন, ‘যারা বন্দে মাতরম স্লোগান দিতে রাজি নয় তাদের ভারতে থাকার কোনও অধিকার নেই। কারণ, বিনামূল্যে বিদ্যুৎ পরিষেবা ও জল দিলে দেশের কোনও উন্নতি হয় না। দেশের উন্নতি হয় নাগরিকদের দায়বদ্ধতা বৃদ্ধি পেলে। দেশের প্রতি তাঁদের ভালবাসায়। সেটা না থাকলে কোনও লাভ নেই।’

[আরও পড়ুন: দিল্লিতে পাঁচ বছরের শিশুকন্যাকে ধর্ষণের ঘটনায় দোষী সাব্যস্ত ২ ]

 

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন(CAA)’র সমর্থন করতে গিয়ে তিনি আরও বলেন, ‘দেশভাগের সময় কংগ্রেস যে ভুল করেছিল তা সংশোধনের জন্য নাগরিকত্ব আইনে সংশোধন করা হয়েছে। এতে ৭২ বছর আগে হওয়া পাপের প্রায়শ্চিত্ত হয়েছে।’

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং