৩ কার্তিক  ১৪২৬  সোমবার ২১ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এক মহিলাকে সম্মোহন করে শ্লীলতাহানি করার অভিযোগ উঠল বহুজাতিক সংস্থা আমাজনের ডেলিভারি বয়ের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের নয়ডায়। অভিযুক্ত ৩০ বছরের ওই যুবকের বিরুদ্ধে পুলিশের কাছে এফআইআর দায়ের করেছেন নির্যাতিতা। তার ভিত্তিতে তদন্ত শুরু হলেও অভিযুক্তকে এখনও গ্রেপ্তার করেনি পুলিশ।

[আরও পড়ুন: ‘একজন জওয়ান শহিদ হলে ১০ জন শত্রুকে মারব’, হুঁশিয়ারি অমিত শাহের]

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, কয়েকদিন আগে আমাজনের মাধ্যমে অনলাইনে পাঁচটি বাক্স কিনেছিলেন নয়ডার বছর ৪৩-এর এক মহিলা। কিন্তু, হাতে পাওয়ার পর সেগুলি পছন্দ না হওয়া আমাজনের কাছে বদলে দেওয়ার আবেদন করেছিলেন তিনি। গত সোমবার সকাল ১১ টা ২০ মিনিটে বাক্সগুলি ফেরত নিতে ওই মহিলার নয়ডার ফ্ল্যাটে আসে ভূপেন্দ্র পাল নামে এক ডেলিভারি বয়। পাঁচটি বাক্স রিটার্ন করার কথা থাকলেও সে চারটি ফেরত নেবে বলে জানায়। এই বিষয় নিয়ে ওই মহিলার সঙ্গে কিছুক্ষণ বচসাও হয় তার। পরে বাক্সগুলি ফেরত না নিয়ে সে ফিরে যায়।

এই ঘটনার পরেই আমাজনে ফোন করে গোটা বিষয়টি জানান ওই মহিলা। কিন্তু, তার কিছুক্ষণ বাদেই ফের ফিরে আসে ভূপেন্দ্র নামে অভিযুক্ত যুবকটি। মহিলাটিকে বলে পাঁচটি বাক্সই তাকে ফেরত দিতে। কিন্তু, মহিলাটি তাকে জানান আমাজন কোম্পানি বাক্সগুলি অন্যদিন ফেরত নেওয়া হবে বলে জানিয়েছে। তাই ওই বাক্সগুলি তিনি ওই যুবককে দেবেন না। আর এই কথা শোনার পরেই যুবকটি তাঁকে সম্মোহন করে বলে অভিযোগ। শুধু তাই নয়, সম্মোহনের ফলে অচৈতন্য হয়ে পড়লে তাঁর প্যান্ট খুলে ধর্ষণের চেষ্টা করে। আচমকা সেসময়ই জ্ঞান ফিরে পান ওই মহিলা। বুঝতে পারেন যুবকটির উদ্দেশ্যও। তারপর নিজেকে বাঁচাতে চেঁচামেচি শুরু করে দেন। এক দৌড়ে বাথরুমে ঢুকে বৃষ্টির জল পরিষ্কারের ওয়াইপার নিয়ে এসে যুবকটিকে মারতে শুরু করেন। আর পরিস্থিতি বেগতিক দেখে পালিয়ে যায় অভিযুক্ত।

[আরও পড়ুন:অভিনব উদ্যোগ, ১৪০০ কিমি দীর্ঘ সবুজ দেওয়াল তৈরির পথে ভারত]

এই ঘটনার পরেই স্থানীয় পুলিশের কাছে অভিযোগ করেন ওই মহিলা। তার ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। তাদের দাবি, ওই মহিলার অভিযোগের ভিত্তিতে যুবকটির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে। প্রাথমিকভাবে ওই যুবকটি মহিলার ফ্ল্যাটে গিয়েছিল বলেও জানা গিয়েছে। তদন্তে দোষী প্রমাণিত হলে অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করা হবে।

এপ্রসঙ্গে আমাজনের এক মুখপাত্র জানান, মহিলাদের সম্মান ও নিরাপত্তার বিষয়টি কোম্পানির কাছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। অভিযোগ পাওয়ার পরেই পণ্য সরবরাহের দায়িত্বে থাকা সংস্থাকে জানানো হয়েছে। পুলিশও তদন্ত শুরু করেছে। অভিযুক্তের দোষ প্রমাণিত হলে কড়া পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং