BREAKING NEWS

২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২০ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

মোদির জন্মদিন পালন করতে গিয়ে দুর্ঘটনা! পটকা ফেটে আহত বিজেপি কর্মীরা

Published by: Biswadip Dey |    Posted: September 19, 2020 11:00 pm|    Updated: September 19, 2020 11:05 pm

An Images

ফাইল চিত্র।

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: গত ১৭ সেপ্টেম্বর সারা দেশজুড়ে পালিত হয়েছিল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির জন্মদিন (PM’s Birthday)। ওইদিন বহু গেরুয়া সমর্থক পটকা ফাটিয়ে উদযাপন করেন তাঁদের প্রিয় নেতার জন্মদিন। কিন্তু ওইদিনই তামিলনাডুর চেন্নাইয়ে ঘটে যায় এক বিপত্তি। জানা গিয়েছে, সেখানে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে (Chennai) পটকা ফাটাতে গিয়ে জখম হয়েছেন বেশ কয়েকজন বিজেপি (BJP) সমর্থক।

[আরও পড়ুন: বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা, বুধবারই শেষ হতে পারে সংসদের বাদল অধিবেশন]

ওইদিন বিপুল সংখ্যক বিজেপি কর্মী হিলিয়াম বেলুন ও পটকা-সহ উদযাপনের প্রস্তুতি নিয়েছিলেন। অকস্মাৎই ঘটে যায় দুর্ঘটনা। হিলিয়াম বেলুনে আগুন লেগেই ঘটে যায় বিপত্তি।

জখম হন কর্মীরা। ফুটেজে দেখা গিয়েছে, বিজেপি কর্মীরা ভয় পেয়ে দৌড়াদৌড়ি শুরু করে দিলে রাস্তায় হুমড়ি খেয়ে পড়ে যাচ্ছেন পুলিশ কর্মীরা। বহু দলীয় সদস্যকে দেখা যায় প্রধানমন্ত্রীর বিরাট পোস্টারের সামনে দাঁড়িয়ে সেখানে যাতে আগুন না লাগে সে চেষ্টা করছেন। 

[আরও পড়ুন: করোনা আক্রান্তকে পিটিয়ে মারল হাসপাতালের কর্মচারী, ভাইরাল গুজরাটের ভিডিও]

বিস্ফোরণের ঠিক পরের মুহূর্তগুলি ধরা রয়েছে ক্যামেরায়। ভয় পেয়ে ছুটতে শুরু করেন বিজেপি কর্মীরা। কেউ কেউ বাকিদের রাস্তা পরিষ্কার রাখার নির্দেশ দেন। পুলিশকে দেখা যায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করতে।

প্রসঙ্গত, তামিলনাডুতে দৈনিক ৬ হাজার মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন। তার মধ্যে চেন্নাইয়ে আক্রান্ত হচ্ছেন প্রায় ১ হাজার মানুষ। এই পরিস্থিতিতে সংক্রমণ এড়াতে তামিলনাডুতে পাঁচ বা তার বেশি মানুষের জমায়েতের নির্দেশ নিষিদ্ধ করেছে রাজ্য সরকার। এই পরিস্থিতিতে কী করে অতজন মানুষ একসঙ্গে হলেন প্রশ্ন উঠছে তা নিয়ে। দেখা গিয়েছে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন পালনের জন্য শতাধিক গেরুয়া সমর্থক একত্র হয়েছেন।

গত বৃহস্পতিবার সত্তরে পা দিয়েছেন প্রধান‌মন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। বিশ্বনেতা, রাজনীতিবিদ ও সেলেব্রিটিরা টুইটারে তাঁকে শুভেচ্ছা জানান। এক সপ্তাহ ধরেই নরেন্দ্র মোদির জন্মদিন উদযাপন শুরু করেছিলেন গেরুয়া শিবির। আয়োজন করা হয়েছে নানা অনুষ্ঠানের। দরিদ্র মানুষদের মধ্যে রেশন বিতড়ন, রক্তদান শিবির ও চোখ পরীক্ষা শিবিরের আয়োজন করা হয়েছে। ১৪ সেপ্টেম্বর থেকে আয়োজন করা হয়েছে এক সপ্তাহ ব্যাপী ‘সেবা শপথ’-এর।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement