BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

সব হারিয়েও মেডিক্যাল এন্ট্রান্সে নজির তফসিলি কিশোরের

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 18, 2016 3:53 pm|    Updated: June 18, 2016 3:53 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: স্বপ্ন ছিল বড় হয়ে স্নায়ুরোগ বিশেষজ্ঞ হবে৷ কিন্তু দারিদ্র্য বার বার স্বপ্নের পথে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে৷ শুধুই কি দারিদ্র? ২০১৩ সালে মা মারা যান আর ২০১৫ সালে চলে যান বাবা৷ এহেন ছেলের স্বপ্নপূরণ কি আদৌ সম্ভব ছিল?
হয়তো ছিল৷ তা না হলে এমন কঠিন পরীক্ষায় এত সহজে উত্তীর্ণ হওয়া কি মুখের কথা?
ওড়িশার তফসিলি সম্প্রদায়ের নারায়ণ মল্লিক সব হারিয়েও AIIMS এন্ট্রান্সের মেধা তালিকায় ত্রয়োদশ স্থান অধিকার করেছে৷ মেডিক্যাল এন্ট্রান্সের পরীক্ষায় এমন ফলাফলে স্বভাবতই খুশি নারায়ণের আত্মীয়-স্বজন৷ খুশি সে নিজেও৷
কিন্তু এহেন কঠিন পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে কী করে সফল হল নারায়ণ?
লাজুক নারায়ণ জানিয়েছে, বাবা মারা যাওয়ার পর থেকে আত্মীয়’র বাড়িতেই থাকত সে৷ প্রত্যেকেই সাহায্য করেছিলেন তাঁকে যাতে সে লেখাপড়া চালিয়ে নিয়ে যেতে পারে৷ শত সমস্যার মধ্যেও সে পরীক্ষায় পাশ করার চেষ্টা চালিয়ে গিয়েছে৷ তার এই অধ্যবসায়েরই ফল মিলেছে এবার৷ অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অফ মেডিক্যাল সায়েন্স-এর প্রবেশিকা পরীক্ষায় তফশিলি তালিকায় ত্রয়োদশ স্থান অর্জন করেছে সে৷
কিন্তু এমন আর্থিক অনটনের মধ্যে লেখাপড়া চালিয়ে যাবে কী ভাবে নারায়ণ?
জানা গিয়েছে, ওড়িশার বেরহামপুরের একটি বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এগিয়ে এসেছে নারায়ণের সাহায্যে৷ তার লেখাপড়ার খরচ বহনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে এই সংস্থার পক্ষ থেকে৷
তবে কি স্বপ্ন সত্যি নারায়ণের?
আরও পড়তে চায় নারায়ণ৷ স্নায়ুরোগ বিষয়ে গবেষণা করতে চায় সে৷ আর তাই স্বপ্নের পথে সদ্য যাত্রা শুরু হয়েছে তার৷ ”এখনও অনেকটা পথ চলা বাকি”, বলল লাজুক ছেলেটি!

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement