১৪  আশ্বিন  ১৪২৯  রবিবার ২ অক্টোবর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

পাক ‘গুপ্তচর’-এর সঙ্গে একমঞ্চে, ছবি দেখিয়ে দাবি বিজেপির, অস্বীকার আনসারির

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: July 15, 2022 6:43 pm|    Updated: July 15, 2022 7:08 pm

Pak Journalist Row: Hamid Ansari's Denial Again As BJP Releases Photo | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: তৎকালীন উপরাষ্ট্রপতি হামিদ আনসারির ‘আমন্ত্রণে’ ভারতে আসা পাক সাংবাদিক নাকি আসলে ছিলেন গুপ্তচর! নুসরত মির্জা নামের ওই কলামিস্ট নিজেই পাক গুপ্তচর সংস্থা আইএসআইয়ের হয়ে কাজ করার কথা স্বীকার করেছেন। তাঁর এহেন চাঞ্চল্যকর স্বীকারোক্তিকে হাতিয়ার করে এবার কংগ্রেস এবং প্রাক্তন উপরাষ্ট্রপতি আনসারির বিরুদ্ধে তীব্র আক্রমণ শানিয়েছে বিজেপি। শুক্রবার একটি ছবি প্রকাশ করে বিজেপি ফের দাবি করেছে ‘পাক চর’ মির্জার সঙ্গে একই মঞ্চে ছিলেন হামিদ আনসারি।

এক সংবাদমাধ্যমের সামনে এদিন একটি ছবি প্রকাশ করেন বিজেপি মুখপাত্র গৌরব ভাটিয়া। তিনি দাবি করেন, ২০০৯ সালে ভারতে অনুষ্ঠিত সন্ত্রাসবাদ সংক্রান্ত একটি সম্মেলেনে একই মঞ্চে ছিলেন হামিদ আনসারি (Hamid Ansari) ও নুসরত মির্জা। তারপরই প্রাক্তন উপরাষ্ট্রপতির কার্যালয় থেকে পালটা বিবৃতি জারি করে সমস্ত অভিযোগ উড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। ওই বিবৃতিতে বলা হয়েছে, “প্রাক্তন উপরাষ্ট্রপতি ফের নিজের অবস্থান স্পষ্ট করে জানাচ্ছেন যে পাকিস্তানি সাংবাদিক নুসরত মির্জাকে তিনি চেনেন না, ২০০৯ বা ২০১০ সালে সন্ত্রাসবাদ বা অন্য কোনও সম্মেলনে ওই সাংবাদিককে কখনও তিনি আমন্ত্রণ জানাননি।”

[আরও পড়ুন: কেন অশোকস্তম্ভকেই বেছে নেওয়া হয়েছিল জাতীয় প্রতীক হিসেবে? জানুন ইতিহাস]

এদিকে, কংগ্রেস ও প্রাক্তন রাষ্ট্রপতিকে অস্বস্তিতে ফেলে এদিন বিবৃতি জারি করেছেন ‘অল ইন্ডিয়া বার অ্যাসোসিয়েশন’-এর চেয়ারম্যান আদিশ আগরওয়াল। তিনি বলেন, “২৭ অক্টোবর সন্ত্রাসবাদ নিয়ে একটি সম্মেলনের আয়োজন করে জামা মসজিদ ইউনাইটেড ফোরাম। সেখানে তিনি (নুসরত মির্জা) মঞ্চে ছিলেন। একই মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন তৎকালীন উপরাষ্ট্রপতি হামিদ আনসারি।”

উল্লেখ্য, এক সাক্ষাৎকারে ভারত সফরের বর্ণনা দিতে গিয়ে পাক সাংবাদিক মির্জা বলেন পাঁচবার ভারতে এসেছিলেন তিনি। দিল্লি ছাড়াও বেঙ্গালুরু, চেন্নাই, পাটনা এবং কলকাতায় গিয়েছিলেন তিনি। বিশ্লেষকদের একাংশের মতে, ওই পাক কলামিস্টের ভারত-বিদ্বেষ সবার জানা। বিভিন্ন সময় ভারত সরকারের নীতির কড়া সমালোচনাও করেছিলেন তিনি। পাকিস্তানে ভারতের বিরুদ্ধে বহু সভাও সংগঠিত করেছিলেন। পাকিস্তানের ঘরোয়া ক্রিকেট লিগকে ভারতের বিরুদ্ধে হাইব্রিড যুদ্ধ বলেও অভিহিত করেছিলেন নুসরত মির্জা। আর এই হাইব্রিড যুদ্ধে পাকিস্তান জিতেছে বলে তাঁর ধারণা।

[আরও পড়ুন: ‘হিন্দু ধর্ম সবচেয়ে সহনশীল’, জুবেইরের জামিন মঞ্জুর করে মন্তব্য আদালতের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে