BREAKING NEWS

১৪  আষাঢ়  ১৪২৯  বৃহস্পতিবার ৩০ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

বিএসএফের কাজের এক্তিয়ার বৃদ্ধির বিরোধিতা, কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে পাঞ্জাব সরকার

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: December 11, 2021 9:15 pm|    Updated: December 11, 2021 9:33 pm

Paunjab Govt. moves to Supreme Court against centre's decision of expanding jurisdiction of BSF | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পশ্চিমবঙ্গের পর এবার বিএসএফ নিয়ে কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তের বিরোধিতায় সরব পাঞ্জাবও (Punjab)। দেশের সীমান্তে বিএসএফের (BSF) কাজের ক্ষমতা ১৫ কিলোমিটার থেকে বাড়িয়ে ৫০ কিলোমিটার করা নিয়ে যে সিদ্ধান্ত বলবৎ করতে চাইছে কেন্দ্র, তার বিরোধিতা করে শীর্ষ আদালতে (Supreme Court) মামলায় দায়ের করল ক্যাপটেন অমরিন্দর সিংয়ের প্রশাসন। আগামী একমাস পর সুপ্রিম কোর্টে এই মামলার শুনানি।

সংবিধানের ১৩১ নং ধারায় কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে মামলা করেছে পাঞ্জাব সরকার। মামলার আবেদনে বলা হয়েছে, একতরফাভাবে কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্ত অসাংবিধানিক। আবেদনে বলা হয়েছে, বিএসএফের কাজের এক্তিয়ার বাড়ানোর জেরে অসুবিধার সম্মুখীন হচ্ছে পাঞ্জাব। কারণ, তাদের রাজ্যে ভারত-পাকিস্তান সীমান্ত (Border) লাগোয়া এলাকাতেই রয়েছে বেশিরভাগ সরকারি কার্যালয়। তাই সেসব এলাকায় বিএসএফ সবসময় কাজের জন্য ঘোরাফেরা করলে সরকারি কাজ ব্যাহত হতে পারে, এই আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়েছে।  পাশাপাশি কোনও আলোচনা ছাড়াই অসম, পাঞ্জাব এবং পশ্চিমবঙ্গ – এই তিন রাজ্যের সীমান্তে বিএসএফের কাজের পরিসর বাড়ানো যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোয় (Federal Structure) আঘাত করা বলেও মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে। 

[আরও পড়ুন: করোনা নিয়ে সতর্ক করে ১০ রাজ্যকে চিঠি কেন্দ্রের, কলকাতার পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ]

সংবিধানের ১৩১ নং ধারা অনুযায়ী, কেন্দ্র ও কোনও রাজ্যের মধ্যে কোনও মতানৈক্য তৈরি হলে সুপ্রিম কোর্টের এক্তিয়ার রয়েছে তা মীমাংসায় হস্তক্ষেপ করা। পাঞ্জাব সরকার তাই ওই ধারাটি উল্লেখ করে শীর্ষ আদালতের কাছে সমাধানের পথ খুঁজছে। তবে এখনই নয়, শীর্ষ আদালতে এই মামলার শুনানির দিন স্থির হয়েছে ৪ সপ্তাহ পর অর্থাৎ আগামী বছর।  

[আরও পড়ুন: ‘যুগ যুগ ধরে অপমানিত হয়েছে হিন্দুরা, সম্মান ফিরিয়েছেন মোদি’, মন্তব্য অমিত শাহের]

শুধু পাঞ্জাবই নয়, বিএসএফের এক্তিয়ার বৃদ্ধির বিরোধিতায় সর্বাগ্রে সরব হয়েছিল পশ্চিমবঙ্গ (West Bengal)। এ রাজ্য়ের মুখ্যমন্ত্রী নিজে বারবার এ নিয়ে কেন্দ্রকে তোপ দেগেছেন। কেন্দ্র-রাজ্য সহযোগিতা করে এগিয়ে চলার মানসিকতা ধাক্কা খেয়েছে এই ইস্যুতে, তেমনই মত রাজ্যের শাসকদলের। এমনকী রাজ্য বিধানসভায় কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তের বিরোধিতায় বিলও পাশ হয়েছে। রাজ্যপাল তা সই করলেই আইনে পরিণত হবে। আর এবার বিরোধিতার অন্য পথ বেছে একেবারে শীর্ষ আদালতের দোরগোড়ায় তা টেনে নিয়ে গেল পাঞ্জাব সরকার।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে