BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

দেশের করোনা আক্রান্তদের দুই তৃতীয়াংশের উৎস ৫ রাজ্য, পরিস্থিতি পর্যালোচনায় বৈঠক মোদির

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: June 13, 2020 9:40 pm|    Updated: June 13, 2020 10:48 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভারতে কিছুতেই থামছে না করোনার মৃত্যুমিছিল। দেশে লাগাতার লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। বিশেষ করে ভাবিয়ে তুলছে মহারাষ্ট্র, তামিলনাড়ু, দিল্লি, গুজরাট ও উত্তরপ্রদেশ এই পাঁচটি রাজ্য। এহেন সংকটের সময়ে শনিবার পরিস্থিতি পর্যালোচনায় মন্ত্রিসভার সঙ্গে বৈঠক সারলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

[আরও পড়ুন: আর ১৮ বছর নয়, অনেকটাই বাড়তে চলেছে মেয়েদের বিয়ের ন্যূনতম বয়স!]

এদিনের বৈঠকে হাজির ছিলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন, প্রধানমন্ত্রীর প্রিন্সিপপাল সেক্রেটারি পিকে সিনহা ও আইসিএমআর-এর করত ড. বলরাম ভার্গব-সহ অনেকেই। বৈঠকে আগামী দু’মাস করোনা সংক্রমণ কোন জায়গায় গিয়ে দাঁড়াবে, তা নিয়ে আলোচনা হয়। যে কোনও পরিস্থিতির সঙ্গে মোকাবিলার জন্য রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলির সঙ্গে আলোচনা করে পরিকল্পনা তৈরি করার নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী। এছাড়া, বর্ষার মরশুমে সংক্রমণ বাড়ার আশঙ্কার কথা মাথায় রেখে স্বাস্থ্যমন্ত্রককে পরিস্থিতির জন্য তৈরি থাকার কোথায় বলেন মোদি।

সূত্রের খবর, এদিনের বৈঠকে প্রধানমন্ত্রীকে পাঁচটি রাজ্য নিয়ে বিশেষভবে রিপোর্ট দেন বিশেষজ্ঞরা। এই পাঁচ রাজ্য হল–মহারাষ্ট্র, তামিলনাড়ু, দিল্লি, গুজরাট ও উত্তরপ্রদেশ। বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, দেশের করোনা আক্রান্তদের দুই তৃতীয়াংশের উৎস এই পাঁচ রাজ্য। এই রাজ্যগুলিতে বিশেষভবে নজর দেওয়ার কোথায় বলেন তাঁরা।

উল্লেখ্য, ইতিমধ্যেই করোনা পরিস্থিতি ও লকডাউনের মেয়াদ নিয়ে সিদ্ধান্ত নিতে ফের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠকের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। আগামী ১৬ ও ১৭ জুন এই বৈঠক করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। দু দফায় এই বৈঠক হবে বলে জানানো হয়। আগষ্ট মাসের পর থেকে ধাপে ধাপে বিশ্ববিদ্যালয়, কলেজ ও স্কুল খোলার কথা ভাবছে কেন্দ্র। ১০০ শতাংশ কাজ চালু করার কথাও চিন্তা করা হচ্ছে। তবে দেশে লাফিয়ে বাড়ছে সংক্রমণের হার। তাতেই উদ্বিগ্ন কেন্দ্র ও রাজ্য সরকার। লকডাউনের পঞ্চম পর্বে দেশের অর্থনীতিকে স্বাভাবিক ছন্দে ফেরাতে শুরু হয়েছিল ‘আনলক ওয়ান’। তার মেয়াদ শেষ হবে ৩০ জুন। তারপর লকডাউনের মেয়াদ ও করোনা মোকাবিলা করতে কেন্দ্র ও রাজ্যের পরবর্তী পদক্ষেপ কী হবে সেই বিষয়েই আলোচনা করা হবে আগামী ১৬ ও ১৭ জুন।

[আরও পড়ুন: একুশের লক্ষ্যে অমিত শাহর সঙ্গে বৈঠক, দিল্লিতে নিজের ঘুঁটি সাজাচ্ছেন মুকুল!]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement