৩০ কার্তিক  ১৪২৬  রবিবার ১৭ নভেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ৫৫তম মৃত্যুবার্ষিকীতে স্বাধীন ভারতের প্রথম প্রধানমন্ত্রী প্রয়াত জওহরলাল নেহরুকে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করলেন নরেন্দ্র মোদি৷ ভাবী প্রধানমন্ত্রী আরও একবার মনে করালেন, দেশের বিকাশে নেহরুর অবদান৷ সোমবার টুইটারে নরেন্দ্র মোদি লিখলেন, ‘‘মৃত্যুবার্ষিকীতে জওহরলাল নেহরুজিকে জানাই শ্রদ্ধা৷ দেশের প্রতি ওঁনার অবদান সর্বদা মনে রাখব আমরা৷’’ যদিও ভাবী প্রধানমন্ত্রীর এই টুইটকে খুব একটা সহজভাবে নিচ্ছে না বিরোধীদের একাংশ৷ তাঁদের বক্তব্য, ভোট বড় বালাই! আর সেকারণেই নির্বাচনের মরশুমে যাঁকে এতদিন তুলোধোনা করেছেন নরেন্দ্র মোদি৷ ভোট মিটতেই সব ভুলে তাঁকে শ্রদ্ধা জানাচ্ছেন তিনি৷

[আরও পড়ুন: ফেজ টুপি পরায় মুসলমান যুবককে ‘মার’, ঘটনার তীব্র নিন্দায় গৌতম গম্ভীর ]

কখনও সরাসরি বা কখনও পরোক্ষে, নির্বাচনী প্রচারে একাধিকবার নেহরুর শাসনের সমালোচনা করতে শোনা যায় নরেন্দ্র মোদিকে৷ যা নিয়ে তাঁকে আক্রমণ করেন কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক প্রিয়াঙ্কা গান্ধী৷ প্রধানমন্ত্রী থাকাকালীন গত পাঁচ বছরে মোদি কী কাজ করেছেন, তার হিসাব চান রাজীবকন্যা৷ তুঙ্গে উঠে রাজনৈতিক তরজা৷ কেবল মোদি নন, সোমবার প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীকে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন উপরাষ্ট্রপতি বেঙ্কাইয়া নায়ড়ু৷ টুইটারে নেহরুকে ‘আধুনিক ভারতের রূপকার’ বলে উল্লেখ করেন তিনি৷ এছাড়া দেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রীকে শ্রদ্ধা জানান, বিদায়ী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং, পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়-সহ একাধিক প্রমুখ রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব৷

[ আরও পড়ুন: হাজারেরও বেশি মানুষকে খাবার খাইয়ে বিশ্বরেকর্ড, নেটদুনিয়ায় প্রশংসিত যুবক]

অন্যদিকে সোমবার সকালে বারাণসীর কাশী বিশ্বনাথ মন্দিরে পুজো দেন ভাবী প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি৷ এরপর বারাণসীতে বিজেপি সমর্থকদের উদ্দেশে ভাষণ দেন তিনি৷ এবং সেখানে নাম না করে বাংলার সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে সরব হতে শোনা যায় তাঁকে৷ বিজেপি কর্মীদের উদ্দেশে মোদি জানান, এবারের নির্বাচনে অনেক বেশি সন্ত্রাসের শিকার হয়েছেন বিজেপি কর্মীরা৷ বারবার তাঁদের উপর হামলা হয়েছে৷ কেউ কেউ তাতে প্রশ্রয়ও দিয়েছে৷ কিন্তু তাও কর্মীরা নিজেদের লক্ষ্যে অনড় ছিলেন৷ তিনি আরও বলেন, ‘‘তিনটে নির্বাচনে উত্তরপ্রদেশে যে ফলাফল হয়েছে, তা দেশের রাজনীতিতে বিরাট বদল এনেছে। ২০১৪, ২০১৭ এবং ২০১৯-এ বিজেপির পক্ষে ভোট দিয়ে দেশের রাজনৈতিক বোদ্ধাদের পড়াশোনা পালটে গিয়েছে৷ রসায়নের কাছে অঙ্ক পরাজিত হয়েছে৷’’

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং