BREAKING NEWS

২  ভাদ্র  ১৪২৯  বুধবার ১৭ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

‘২০২৪-এর রাস্তা দেখাল উত্তরপ্রদেশ’, চার রাজ্যে বিপুল জয়ে লোকসভার ডঙ্কা বাজিয়ে দিলেন মোদি

Published by: Kishore Ghosh |    Posted: March 10, 2022 8:50 pm|    Updated: March 10, 2022 9:54 pm

PM Modi speech on Assembly results of BJP in 5 states | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: জাতপাতের ধুয়ো তুলে উত্তরপ্রদেশের মানুষকে ছোট করেছে একাংশের রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। সেই উত্তরপ্রদেশই ২০২৪-এর রাস্তা তৈরি করে দিল। উত্তরপ্রদেশ-সহ একাধিক রাজ্যে বিজেপির (BJP) বিপুল জয়ের পর এই ভাষাতেই আগামী লোকসভা ভোটের ডঙ্কা বাজিয়ে দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi)।

চার রাজ্য উত্তরপ্রদেশ (Uttar Pradesh), উত্তরাখণ্ড (Uttarakhand), গোয়া (Goa), মণিপুরে (Manipur) জয়জয়কার গেরুয়া শিবিরের। যার পর এদিন সন্ধ্যায় দিল্লিতে বিজেপির সদর দপ্তরে বক্তব্য রাখেন নরেন্দ্র মোদি। শুরুতেই উত্তরপ্রদেশ-সহ চার রাজ্যের ভোটারদের ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন তিনি। বলেন, “আজ গণতন্ত্রের উৎসবের দিন। আজ থেকেই শুরু হোক আগাম হোলি।”

[আরও পড়ুন: ফ্যাকাশে সরকার বিরোধী সমস্ত ইস্যু, উত্তরাখণ্ড-মণিপুর-গোয়ায় ‘আত্মনির্ভর’ বিজেপি]

উত্তরপ্রদেশ-সহ চার রাজ্যে বিজেপির বিপুল জয়কে ‘স্ত্রী শক্তির জয়’ বলেন মোদি। তাঁর কথায়, “কোটি কোটি মা-বোনেরা আমাদের সুরক্ষাকবচ। তাঁদের সমর্থন আমাদের আশীর্বাদ। দেশের মহিলা মহল বিজেপিকেই ভরসা করে”। তিনি আরও বলেন, “যেখানে যেখানে বেশি সংখ্য মহিলা ভোট দিয়েছেন, সেখানেই বিজেপির জয় হয়েছে”। এর পরেই ২০২৪ লোকসভা ভোটের ডঙ্কা বাজিয়ে দেন নরেন্দ্র মোদি। বলেন, ২০২২ সালের উত্তর প্রদেশ ২০২৪-এর রাস্তা দেখিয়ে দিল।

[আরও পড়ুন: বিধানসভা ভোটে অভিষেকেই ছক্কা যোগীর, পৃথক আসনে লড়েও ‘হারালেন’ অখিলেশকে]

উল্লেখ্য, মোদি যে উত্তরপ্রদেশকেই মিশন ২০২৪ রাস্তা হিসেবে দেখছেন তার একাধিক কারণ রয়েছে। অন্যতম কারণ, যোগীর নেতৃত্বে উত্তরপ্রদেশের (Uttar Pradesh) ইতিহাস বদলে দিয়েছে বিজেপি (BJP)। ৩৫ বছরের রীতি ভেঙে পরপর দু’বার সরকার গড়তে চলেছে দল। আড়াইশোর বেশি আসনে পদ্ম ফুটিয়েছেন যোগী আদিত্যনাথ (Yogi Adityanath)। নিজেও জিতেছেন বিপুল ভোটে। অথচ ভোটের আগেই দেশের সবচেয়ে বড় রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধেই ক্ষোভের ঝড় বয়ে যেতে দেখা গিয়েছে। যদিও সেই ক্ষোভের প্রভাব পড়েনি ভোটবাক্সে। এর ফলে একটি বিষয় স্পষ্ট হয়েছে, কৃষক আন্দোলন, লখিমপুর খেড়ি-সহ একধিক সংবেদনশীল ইস্যু থাকলেও বিজেপির হিন্দু তাশের রাজনৈতিক কৌশল ফের সফল হয়েছে। ফলে লখনউয়ের রাস্তা ধরেই ফের দিল্লি পৌঁছানোর কথা ভাবছে বিজেপি। এদিন যে কথা উঠে এল মোদির মুখে।   

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে