১০ আষাঢ়  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২৫ জুন ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: লোকসভা ভোটের পারফরম্যান্সে ২০১৪-কে ছাপিয়ে গিয়েছে ২০১৯। এবার সরকারের কর্মদক্ষতাতেও প্রথম ইনিংসকে ছাপিয়ে আরও জমজমাট দ্বিতীয় ইনিংস খেলতে চাইছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। বুধবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে পাওয়া গেল তেমন আভাসই।

[আর পড়ুন- ছড়াচ্ছে জেহাদের বিষ, তামিলনাড়ুতে গ্রেপ্তার কুখ্যাত ইসলামিক স্টেট জঙ্গি]

প্রধানমন্ত্রী স্পষ্ট নির্দেশ দিলেন, গোটা দেশজুড়ে সদর্থক প্রভাব পড়বে এমন সিদ্ধান্ত সব মন্ত্রককেই নিতে হবে প্রথম ১০০ দিনের মধ্যেই। একই সঙ্গে জানিয়ে দেওয়া হল কাজে ফাঁকি বরদাস্ত করা হবে না মোটেই। সকাল সাড়ে ন’টার মধ্যেই ঢুকে পড়তে হবে অফিসে। বদলাতে হবে দপ্তরে না এসে বাড়ি থেকে কাজ করার অভ্যাসও। মোদির কড়া নির্দেশ, এখন থেকে রোজ দপ্তরে এসেই কাজ করতে হবে মন্ত্রীদের। একই সঙ্গে বুঝতে হবে সাধারণ মানুষের চাওয়া-পাওয়াও। তাই নিয়মিত সংযোগ রাখতে হবে তাঁদের সঙ্গে। যোগাযোগ রাখতে হবে দলের অন্য সাংসদদের সঙ্গেও। দরকারে সেই কাজ শুরু করতে হবে নিজের রাজ্যের সাংসদদের সঙ্গে কথা বলার মাধ্যমেই।

মন্ত্রিসভায় একগুচ্ছ নতুন মুখ। মোদি জানিয়ে দেন, তাঁদের কাজ শেখাবার ভার নিতে হবে অভিজ্ঞ মন্ত্রীদের। একই সঙ্গে তিনি স্পষ্ট করে দেন, কোনওমতেই অবহেলা করা যাবে না প্রতিমন্ত্রীদের। প্রধানমন্ত্রী নির্দেশ দেন, এখন থেকে মন্ত্রকের সব গুরুত্বপূর্ণ ফাইল ভাগ করে নিতে হবে প্রতিমন্ত্রীদের সঙ্গে। বিভিন্ন ফাইল ছাড়ার ব্যাপারেও তাঁদের সঙ্গে নিয়েই সিদ্ধান্ত নিতে হবে পূর্ণমন্ত্রীদের। মোদি পরামর্শ দেন, কাজের গতি বাড়াতে একসঙ্গে বসেই সিদ্ধান্ত নিন দপ্তরের পূর্ণমন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রীরা।

[আর পড়ুন- আগ্রায় কোর্ট চত্বরেই গুলিতে ঝাঁজরা বার কাউন্সিলের প্রথম মহিলা সভাপতি]

কী রকম কাজ তাঁর মন্ত্রীদের থেকে আশা করছেন প্রধানমন্ত্রী? তার রূপরেখাও দেওয়া হয় এই বৈঠকেই। প্রতিটি মন্ত্রকের জন্য আলাদা ‘ভিশন ডকুমেন্ট‘ প্রকাশ করেন পীযূষ গোয়েল। একই সঙ্গে সংসদকে কীভাবে সরকারের অনুকূলে ব্যবহার করা যায় সেই ব্যাপারেও একটি প্রেজেন্টেশন দেন কৃষিমন্ত্রী নরেন্দ্র সিং তোমার। গত মন্ত্রিসভায় সংসদ বিষয়ক মন্ত্রীর ভার সামলেছেন তিনিই। আসন্ন কেন্দ্রীয় বাজেটের জন্য বিভিন্ন মন্ত্রক থেকে প্রয়োজনীয় পরামর্শের জন্যও আবেদন করেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ। আগামী ৫ জুলাই নতুন সরকারের প্রথম বাজেট পেশ করবেন নির্মলা। আগামী সপ্তাহ থেকেই শুরু হচ্ছে সংসদের অধিবেশন। মোদি চাইছেন তাঁর আগেই যথেষ্ট প্রস্তুতি নিয়ে তৈরি থাকুন বিভিন্ন মন্ত্রকের মন্ত্রীরা। মোদির এই নয়া নির্দেশিকার পরেই সাজ সাজ রব পড়ে গিয়েছে সব মন্ত্রকে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং