BREAKING NEWS

৭ মাঘ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২১ জানুয়ারি ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

প্রধানমন্ত্রী রাত কাটানোর পরেই ভিড় বাড়ছে কেদারনাথের ধ্যানগুহায়

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: June 29, 2019 6:49 pm|    Updated: June 29, 2019 6:49 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: লোকসভা ভোটের শেষদিন কেদারনাথের ধ্যানগুহায় রাত কাটিয়ে ছিলেন প্রধানমন্ত্রী। উদ্দেশ্য ছিল, এই গুহার ব্যবসায়িক প্রচার। যাতে আরও বেশি পর্যটক এই গুহা ব্যবহার করেন। একমাস বাদে জানা গেল এই উদ্দেশ্য সফল হয়েছে গাড়োয়াল মণ্ডল বিকাশ নিগম লিমিটেড (জিএমভিএন)-র। প্রধানমন্ত্রীকে দেখে দেশবিদেশের অনেক পর্যটক রাত কাটাতে চাইছেন এখানে। এর ফলে মে মাসের শেষদিক থেকে একদিনও খালি যায়নি। এমনকী জুলাই মাস পর্যন্ত বুকিং কমপ্লিট হয়ে গিয়েছে ধ্যানগুহার। এখন অগ্রিম বুকিং চলছে আগস্ট, সেপ্টেম্বর ও অক্টোবর মাসের। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে অনলাইনে বুকিং করছেন পর্যটকরা।

[আরও পড়ুন- বুরারি হাউস এখন ভূতুড়ে বাড়ি, রাত হলেই অনুভূত হয় অশরীরীর অস্তিত্ব]

এপ্রসঙ্গে রুদ্রপ্রয়াগের জেলাশাসক মঙ্গেশ ঘিলদিয়াল জানান, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এই গুহায় ধ্যান করার পরেই পর্যটকের সংখ্যা আচমকা বেড়ে গিয়েছে। পরিস্থিতি যা তাতে ১২,৫০০ ফুট উপরে কেদারনাথ মন্দিরের কাছে তিনটি আরও গুহা তৈরির পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। ইতিমধ্যে একটি গুহা তৈরির কাজ শুরুও হয়ে গিয়েছে। অন্য দুটির জন্য জায়গা দেখা হচ্ছে।

[আরও পড়ুন-স্বাস্থ্যকেন্দ্রে মাতলামি! মদ্যপ ডাক্তারকে বেধড়ক মারধর রোগীর পরিবারের]

তিনি আরও বলেন, “এক বছর আগে ধ্যানগুহাটি তৈরি করা হলেও ভিড় হত না। কিন্তু, গত ১৮ মে নরেন্দ্র মোদি গিয়ে ধ্যান করার পরেই ছবিটা পুরো বদলে গিয়েছে। তবে শুধু গুহাই নয় ভিড় বেড়েছে কেদারনাথ মন্দিরেও। এই বছরে মাত্র ৫০ দিনে ৭ লাখ ৬২ হাজার মানুষ এসেছেন পবিত্র এই মন্দির দর্শন করতে। যা একটি রেকর্ড। গতবছর মোট পর্যটক এসেছিলেন ৭ লাখ ৩২ হাজার। কিন্তু, এবছর ৯ মে মন্দির খোলার পর এখনও পর্যন্ত সাড়ে সাত লাখের বেশি মানুষ এসেছেন। মন্দির বন্ধ হতে এখনও তিনমাস বাকি আছে। তাই আমরা আশা করছি এবছর পর্যটকের সংখ্যা ১০ লাখ ছাড়িয়ে যাবে। কেদারনাথ মন্দিরের ইতিহাসে যা আগে কোনও দিন হয়নি।”

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement