২৬ আষাঢ়  ১৪২৭  শনিবার ১১ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

পুলওয়ামার বিস্ফোরণস্থলে NIA টিম, গাড়ির নম্বর প্লেট নিয়ে বাড়ছে ধোঁয়াশা

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: May 28, 2020 2:19 pm|    Updated: May 28, 2020 2:45 pm

An Images

ফাইল ফটো

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নিরাপত্তারক্ষীদের তৎপরতায় অল্পের জন্য পুলওয়ামা হামলার পুনরাবৃত্তি থেকে রেহাই পেল জম্মু ও কাশ্মীর। বৃহস্পতিবার পুলওয়ামায় বিস্ফোরক ভরতি একটি গাড়ি বাজেয়াপ্ত করে বিস্ফোরণ ঘটায় সেনার বম্ব স্কোয়াড। ইতিমধ্যে ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে জাতীয় তদন্তকারী সংস্থার (NIA) একটি দল। বিস্ফোরণে চূর্ণবিচূর্ণ গাড়িটির নম্বর প্লেট উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছেন তদন্তকারীরা। আর সেটিকে ঘিরেই দানা বেঁধেছে রহস্য।

[আরও পড়ুন: ঝাড়খণ্ডে নিরাপত্তারক্ষীদের সঙ্গে তুমুল গুলির লড়াই, খতম তিন মাওবাদী]

পুলিশ সূত্রে খবর, বিস্ফোরণ হওয়ায় গাড়িটির নম্বর প্লেটটি ভুয়ো। এক বিএসএফ সাব-ইন্সপেক্টরের মোটরসাইকেলর নম্বর প্লেট ব্যবহার করেছে জঙ্গিরা। ওই বিএসএফ কর্মী শ্রীনগরেই কর্মরত রয়েছেন। সেখানে তাঁর পরিবারও রয়েছে। কয়েকদিন আগেই ওই জওয়ানের মোটরসাইকেটি চুরি যায়। ইতিমধ্যে সেই বাহনটি উদ্ধার করা হয়েছে। তবে কেন বিএসএফ আধিকারিকের জনের নম্বর প্লেট ব্যবহার করল জঙ্গিরা, তা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক পুলিশ আধিকারিকের মতে। নিরাপত্তারক্ষীদের বাহনগুলির একটি তালিকা সংশ্লিষ্ট দপ্তরগুলির কাছে থাকে। ফলে সেগুলি ব্যবহার করে পুলিশ ও সেনাকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করে জঙ্গিরা। এছাড়া, এমনটা করলে কোনও সুত্রও খুঁজে পাবে না তদন্তকারীরা। এদিকে, এই হামলার নেপথ্যে পাকিস্তানি বম্ব এক্সপার্ট ওয়াহিদ ভাই নামের এক জঙ্গি রয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে,। লস্কর ও জইশ মিলিতভাবেই এই পরিকল্পনা করেছিল বলেও আশঙ্কা। 

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার পুলওয়ামা হামলার ধাঁচেই নাশকতার ছক কষেছিল জঙ্গিরা। বৃহস্পতিবার একটি গাড়ি তারা বাজেয়াপ্ত করে। গাড়ির রেজিস্ট্রেশন নম্বরটি ছিল ভুয়ো। এদিন সকালে গাড়িটিকে বেশ দ্রুতগতিতেই আসছিল। গাড়ির গতি দেখে সন্দেহ হয় পুলিশের। তারা একটি চেকপয়েন্টে গাড়িটিতে থামার জন্য সিগন্যাল দেখায়। কিন্তু গাড়িটি সেই নির্দেশ মানেনি। উলটে গতি আরও বাড়িয়ে ব্যারিকেড ভেঙে বেরিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত তা করতে পারেনি চালক। গাড়িটিকে ধরে ফেলেন পুলিশকর্মীরা। তখনই জানা যায়, এর নম্বর প্লেট ভুয়ো। পুলিশের ইনসপেক্টর জেনারেল বিজয় কুমার জানিয়েছেন, গাড়িটি যখন ব্যারিকেড ভেঙে বেরিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে তখন নিরাপত্তারক্ষীরা গুলি চালিয়েছিলেন। গুলির শব্দে চালক ভয় পেয়ে গাড়িটি রেখে পালায়। গাড়ি পরীক্ষা করার সময় ২০ কেজি আইইডি উদ্ধার করা হয়। তারপর বিস্ফোরণ ঘটিয়ে সেটিকে নিষ্ক্রিয় করা হয়।

[আরও পড়ুন: ফের একদিনে করোনা আক্রান্তের সংখ্যায় বড়সড় বৃদ্ধি, মৃত্যু পেরল সাড়ে চার হাজার]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement