১১ বৈশাখ  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ২৫ এপ্রিল ২০১৯ 

Menu Logo নির্বাচন ‘১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও #IPL12 ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দিল্লিতে জোট নিয়ে এবার আপ-কংগ্রেসের কোন্দল প্রকাশ্যে। খোদ কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী প্রকাশ্যে টুইট করে কেজরিওয়ালকে জোট করার বার্তা দিলেন। বলা ভাল, ঘুরিয়ে খোঁচা দিলেন। যা নিয়ে ক্ষুব্ধ আপ শিবির। আম আদমি পার্টির তরফে পালটা কটাক্ষ ধেয়ে এল কংগ্রেসেরক দিকেও৷ যে জোট হওয়ার কথা ছিল বিজেপিকে রোখার জন্য, সেই জোটের নেতারা কথাবার্তা শুরুর আগেই যেভাবে কোন্দলে নেমে পড়েছেন, তাতে মূল উদ্দেশ্য কতটা সাধিত হবে, তা নিয়ে সন্দিহান বিরোধী শিবির।

[আরও পড়ুন: সাম্প্রদায়িক মন্তব্যের জের, ৭২ ঘণ্টার জন্য যোগীর প্রচারে নিষেধাজ্ঞা কমিশনের]

দিল্লিতে আম আদমি পার্টি আর কংগ্রেসের মধ্যে জোট নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে আলোচনা চলছে। আসন রফা না মেটার জন্য কখনও আপ কংগ্রেসকে, আবার কখনও কংগ্রেস আপকে কাঠগড়ায় তুলছেন। কিন্তু, এ নিয়ে এখনও মুখ খুলেছিলেন না কংগ্রেস সভাপতি। অবশেষে, তিনি মুখ খুললেন। শুধু মুখ খুললেন বলা ভুল, বরং বিস্ফোরণ করলেন। ঘুরিয়ে কেজরিওয়ালকে তীব্র খোঁচা দিলেন কংগ্রেস সভাপতি।

রাহুল গান্ধী টুইট করে সরাসরি আপের কাছে আবেদন করলেন। বললেন, “দিল্লিতে জোট হলে বিজেপি শেষ হয়ে যেত। সেজন্য আমরা আপের জন্য চারটি আসনও ছাড়তে রাজি। কিন্তু কেজরিওয়াল মহাশয় আবার নিজের অবস্থান বদলালেন। যাই হোক, রাস্তা এখনও খোলা রয়েছে। তবে, হাতে সময় বড্ড কম।” আসলে, এর আগে কেজরি নিজেও রাহুলকে প্রকাশ্যে তোপ দেগেছিলেন। এদিন তারই পালটা দিলেন কংগ্রেস সভাপতি।

[আরও পড়ুন:কাশ্মীরের অনন্তনাগে মেহবুবা মুফতির কনভয়ে পাথর হামলা]

কিন্তু, রাহুলের এই প্রস্তাব মানতে নারাজ। তারা আবার পালটা কংগ্রেসের মনোভাবকেই কাঠগড়ায় তুলেছেন। আপ সাংসদ সঞ্জয় সিং পালটা টুইট করে বলছেন, “পাঞ্জাবে আমাদের চারজন সাংসদ আছেন, ২০ জন বিধায়ক আছেন, অথচ কংগ্রেস সেখানে আমাদের একটি আসনও ছাড়তে রাজি নয়। হরিয়ানায় ওদের মাত্রে ১ জন সাংসদ আছেন অথচ সেখানেও আমাদের একটি আসনও ছাড়তে রাজি নয়। এদিকে দিল্লিতে না কংগ্রেসের কোনও সাংসদ আছেন, না কোনও বিধায়ক আছেন। অথচ, ওরা আমাদের থেকে তিনটি আসন চাইছে। এটাকে কি আপস করা বলে? ওরা অন্য রাজ্যগুলিতে বিজেপিকে হারাতে চাইছে না কেন?”

পরস্পর বিরোধী শক্তির জোট যে সুমধুর হয় না, সেকথা আলাদা করে বলার প্রয়োজন পড়ে না। এবারের নির্বাচনে মোদিকে রুখতে গিয়ে এমন একাধিক পরস্পর বিরোধী শক্তিকেই এক ছাতার তলায় আসতে হচ্ছে। কিন্তু দিল্লির দুই বিজেপি বিরোধী দল যেভাবে নিজেদের মধ্যে কাদা ছোঁড়াছুঁড়ি করছে, তাতে গেরুয়া শিবিরই অ্যাডভান্টেজ পেয়ে যাচ্ছে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং