৭ মাঘ  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২১ জানুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: জেলবন্দি অপরাধীরা গো-পালন করলে তাদের মানসিকতার পরিবর্তন ঘটে। শনিবার মহারাষ্ট্রের পুনেতে একটি অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে এই মন্তব্য করলেন রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘের সরসংঘচালক মোহন ভাগবত। বিষয়টি প্রকাশ্যে আসার পরেই তাঁর এই মন্তব্যকে কটাক্ষ করছে আরএসএস ও বিজেপি বিরোধীরা।

[আরও পড়ুন: দেশে এবার পুলিশ বিশ্ববিদ্যালয় তৈরি করার ঘোষণা করলেন অমিত শাহ]

শনিবার পুনেতে গো-সেবা পুরস্কার দেওয়ার জন্য একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিল গো-বিজ্ঞান সংশোধন সংস্থা। সেখানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে মানসিকতা পরিবর্তনের জন্য গো-সেবার কোনও বিকল্প নেই বলে উল্লেখ করেন তিনি। জানান, তাঁকে বিভিন্ন জেলের জেলাররা জানিয়েছেন যে জেলে গোশালা থাকলে অপরাধীদের মানসিকতার পরিবর্তন হয়। গরুদের সেবা করতে গিয়ে নৃংশস মানসিকতার লোকেরাও বদলে যায়। তাদের মনে ঘৃণার পরিবর্তে ভালবাসা জন্ম নেয়। অনেকে এই বিষয়টি বিশ্বাস করতে না চাইলেও এটাই বাস্তব।

গরুকে রক্ষার জন্য দেশের সব মানুষকে এগিয়ে আসতে হবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। বলেন, ‘কাউকে সেবা করলে আমরাও সুস্থ থাকতে পারব। বাড়িতে থাকতে থাকতে কুকুর, বিড়াল বা অন্য গৃহপালিত পশুদের প্রতি ভালবাসাই জন্ম নেয় মানুষের মনে। গরুর ক্ষেত্রেও তা আরও বেশি করে হয়। আমরা গরুকে এই বিশ্বের মা বলে মনে করি। কারণ, তারা পৃথিবীর মাটি, গাছ, পশু, পাখি ও মান সবার দেখাশোনা করে। বিভিন্ন অসুখের হাত থেকে রক্ষা করে। তাই তাদের নিঃস্বার্থভাবে সেবা করলে মন পবিত্র হয়। পরিবর্তন হয় মানসিকতারও।’

[আরও পড়ুন: ‘অজিতের সঙ্গে হাত মেলানোর বিষয়ে সবই জানতেন শরদ’, দাবি ফড়ণবিসের]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং