BREAKING NEWS

১৭ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  শনিবার ৪ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

রামদেবের ‘অ্যালোপ্যাথি’ মন্তব্যের জের, আজ দেশজুড়ে ‘কালা দিবস’ পালন ডাক্তারদের

Published by: Biswadip Dey |    Posted: June 1, 2021 1:56 pm|    Updated: June 1, 2021 2:14 pm

Resident doctors association observes black day on June 1 condemning derogatory statements of Baba Ramdev | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বাবা রামদেবের (Baba Ramdev) অ্যালোপ্যাথি নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্যের প্রতিবাদে মঙ্গলবার দেশজুড়ে ‘কালা দিবস’ পালন করছে সর্বভারতীয় চিকিৎসক সংগঠনগুলি। দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের ডাক্তারদের ইতিমধ্যেই যোগগুরুর বিরুদ্ধে বিক্ষোভ প্রদর্শন করতে দেখা গিয়েছে। দ্য ফেডারেশন অব রেসিডেন্ট ডক্টর্স অ্যাসোসিয়েশন তথা ফোরডা ওই কালাদিবস পালনের ডাক দিয়েছিল। প্রস্তাবকে সমর্থন জানিয়েছে ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন (IMA)-সহ অন্য সংগঠনগুলিও।

কীভাবে বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন চিকিৎসকরা? বহু ডাক্তারই হাতে কালো ব্যাচ পরে রয়েছেন। এমনকী করোনা (Coronavirus) ওয়ার্ডে কর্মরত ডাক্তাররাও পিপিই কিটের উপরেই কালো ব্যাচ বেঁধে নিয়েছেন। পাশাপাশি অনেক হাসপাতালেই রীতিমতো প্ল্যাকার্ড হাতেও বিক্ষোভ দেখাতে দেখা গিয়েছে ডাক্তারদের। দিল্লির এইমস-এর মতো হাসপাতালেও রেসিডেন্ট ডাক্তারদের বিক্ষোভে অংশ নিতে দেখা গিয়েছে। সব মিলিয়ে দিল্লি থেকে জম্মু ও কাশ্মীর, সারা দেশেই পালিত হচ্ছে ‘কালা দিবস’।

[আরও পড়ুন: রাজ্যসভার সাংসদ পদে মনোনীত দেশের বিশিষ্ট আইনজীবী মহেশ জেঠমালানি]

তবে এই ধরনের বিক্ষোভ কর্মসূচির ফলে যে চিকিৎসা পরিষেবায় কোনও সমস্যা হবে না তা আগে থেকেই স্পষ্ট করে দেওয়া হয়েছে। পরিষেবা স্বাভাবিকই থাকবে। তার মধ্যেই নিজেদের প্রতিবাদ জানাবেন চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীরা। স্বাস্থ্যকর্মীদেরও পিপিই কিটের উপরে কালো ব্যাচ বা পট্টি পরে নিতে দেখা গিয়েছে।

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল এক ভিডিওতে যোগগুরু রামদেবকে বলতে শোনা গিয়েছিল,‘‘অ্যালোপ্যাথি চিকিৎসা আসলে বোকামি। চিকিৎসার নামে তামাশা চলে। লক্ষ লক্ষ মানুষ মারা যাচ্ছে শুধুমাত্র অ্যালোপ্যাথি ওষুধ খেয়ে।”

যোগগুরুর দাবি ছিল, করোনার বিরুদ্ধে একের পর এক অ্যালোপ্যাথি ওষুধ ব্যর্থ হচ্ছে। কারণ, ওই চিকিৎসা পদ্ধতিতে রোগের আসল কারণ অনুসন্ধানই করা হয় না। এই মন্তব্যের জেরে তীব্র বিতর্ক তৈরি হয়েছে। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন চিঠি লিখে রামদেবকে ক্ষমা চাইতে অনুরোধ করেন। স্বাস্থ্যমন্ত্রীর আহ্বানে বাবা রামদেব প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইলেও পালটা অ্যালোপ্যাথি চিকিৎসা নিয়ে গোটা ২৫ প্রশ্ন ছুঁড়ে দেন। যোগগুরুর প্রশ্ন, অ্যালোপ্যাথি যদি এতই ভাল হবে, তাহলে চিকিৎসকরা অসুস্থ হন কেন।

তারপর থেকেই বিতর্ক আরও ঘনিয়েছে। IMA ১ হাজার কোটি টাকার মানহানির মামলা করেছে। পাশাপাশি ফোরডার তরফে দাবি তোলা হয়েছে, রামদেব যদি তাঁর মন্তব্যের জন্য ক্ষমা না চান তাহলে তাঁর বিরুদ্ধে মহামারি রোগ আইন, ১৯৮৭-এর ভিত্তিতে ব্যবস্থা নিতে হবে। তাঁর গ্রেপ্তারির দাবি উঠেছে নেট দুনিয়াতেও।

[আরও পড়ুন: বড়সড় স্বস্তি! ৫৪ দিনের মধ্যে সর্বনিম্ন দেশের দৈনিক করোনা সংক্রমণ, অনেক কম মৃত্যুও]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে