BREAKING NEWS

১১ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  সোমবার ২৫ মে ২০২০ 

Advertisement

ঐতিহাসিক সিদ্ধান্ত সুপ্রিম কোর্টের, ভিডিও কনফারেন্সে সওয়াল-জবাব আইনজীবীদের

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: March 23, 2020 4:58 pm|    Updated: March 23, 2020 4:58 pm

An Images

ফাইল ফটো

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা সংক্রমণ রুখতে গৃহবন্দি সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবীরাও।  বাকি সংস্থাগুলির মত এবার আইনজীবীদেরও ‘ওয়ার্ক ফ্রম হোম’-এর নির্দেশ দিল সুপ্রিম কোর্ট। ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে শুনানি হবে বলে জানায় দেশের শীর্ষ আদালত।

ভারতীয় বিচারব্যবস্থার ইতিহাসে এই প্রথম, ‘ওয়ার্ক ফ্রম হোম’ করবেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবীরা। ঘরে বসে চলবে সওয়াল-জবাবের পালা। এমনই সিদ্ধান্তের কথা ঘোষণা করেছেন সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি এস এ বোবদে। দেশের শীর্ষ আদালতের তালিকায় রয়েছে অনেকগুলি অমীমাংসিত মামলা। সেই সমস্ত মামলাগুলির সমাধান শুনানি চলবে শুধুমাত্র ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের (Video Conferncing) মাধ্যমে। পাশাপাশি একথাও জানানো হয়েছে, সব মামলার ক্ষেত্রে নয়, এই সংকটের মুহূর্তে শুধুমাত্র গুরুত্বপূর্ণ মামলারই শুনানি চলবে।

[আরও পড়ুন:মুখ্যমন্ত্রী পদ নিয়ে দড়ি টানাটানি! গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে জেরবার মধ্যপ্রদেশ বিজেপি

পাশাপাশি সুপ্রিম কোর্টে (Supreme Court) যাতে কোনওরকম ভাবে ওই মারণ ভাইরাসের সংক্রমণ ছড়িয়ে না পড়ে তাই সুপ্রিম কোর্টে ক্যাম্পাসে থাকা আইনজীবীদের চেম্বারও বন্ধের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আদালত জানিয়েছে, সোমবার বিকেল ৫টার মধ্যে ওই চেম্বার থেকে আইনজীবীদের নিজেদের ফাইল এবং প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র সরিয়ে নিতে হবে। মঙ্গলবার সন্ধেতেই সমস্ত আইনজীবীর চেম্বার সিল করে দেওয়া হবে। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত সুপ্রিম কোর্ট চত্বরে প্রবেশ নিষেধ। করোনা সংক্রমণের জেরে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার জন্য এখন শুধুমাত্র জরুরি মামলাগুলিরই শুনানি হচ্ছে সুপ্রিম কোর্টে। এর আগে সর্বোচ্চ আদালতের তরফে জানানো হয়েছিল যে, শুনানির সময় এজলাসে সংশ্লিষ্ট মামলার আইনজীবী ছাড়া অন্য কেউই প্রবেশ করতে পারবেন না। এ বার তার থেকে আরও এক ধাপ এগিয়ে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সওয়াল-জবাব চালানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হল।

প্রধান বিচারপতি বোবদে বলেছেন,”এখন আর আদালতের এজলাসে শুনানি হবে না। ফলে আইনজীবীদেরও আর সুপ্রিম কোর্টে আসতে হবে না। প্রতি সপ্তাহের শেষে আদালত করোনা পরিস্থিতি পর্যালোচনা করবে। তারপরে পরবর্তী পদক্ষেপ নিয়ে সিদ্ধান্ত গৃহীত হবে। সুপ্রিম কোর্ট পরবর্তী আদেশ না দেওয়ার পর্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ মামলাগুলিরই শুনানি হবে আদালতে।”

[আরও পড়ুন:‘অনেকেই লকডাউনকে গুরুত্ব দিচ্ছেন না’, ক্ষোভপ্রকাশ মোদির]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement