১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ২ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

জেএনইউ ইস্যুতে জরুরি বৈঠক মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকের, পদত্যাগ হস্টেলের ওয়ার্ডেনের

Published by: Paramita Paul |    Posted: January 6, 2020 3:44 pm|    Updated: January 6, 2020 3:44 pm

Sabarmati hostel warden resigns on moral grounds

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পদত্যাগ করলেন জেএনইউ-এর সবরমতী হস্টেলের ওয়ার্ডেন আর মীনা। তাঁর কথায়, “ছাত্রীদের উপযুক্ত নিরাপত্তা দিতে পারেনি। তাই পদ থেকে সরে দাঁড়ালাম।” ইতিমধ্যে কর্তৃপক্ষের কাছে পদত্যাগপত্রও পাঠিয়ে দিয়েছেন তিনি। এদিকে মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকের প্রতিনিধিরা জেএনইউ কর্তৃপক্ষের সঙ্গে দেখা করেন। সেখানে রবিবারের গোটা ঘটনা বিস্তারিত বিবরণ শোনেন তাঁরা। যদিও সেই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন না JNU-এর উপাচার্য  এম জগদীশ কুমার।    

প্রসঙ্গত, রবিবার সন্ধেবেলা জেএনইউ ক্যাম্পাসে ঢুকে অন্তত তিনটি গার্লস হস্টেলে হামলা চালায় মুখ ঢাকা ‘বহিরাগত’র দল। অভিযোগ, হস্টেল থেকেই ছাত্র সংসদের সভানেত্রী ঐশী ঘোষকে টানতে টানতে বাইরে বের করে দেওয়ালে মাথা ঠুকে ফাটিয়ে দেওয়া হয়। ব্যাট, লাঠির ঘায়ে আহত অধ্যাপিকা সুচরিতা সেন-সহ অন্তত ১৮ জন। যাঁদের প্রত্যেককেই এইমসে ভরতি করানো হয় চিকিৎসার জন্য। এমন হামলার নেপথ্যে অভিযোগের তির এবিভিপির দিকে। যদিও রেজিস্ট্রার প্রমোদ কুমারের বিবৃতি সম্পূর্ণ উলটো। তাঁর অভিযোগ, এতদিন ধরে হস্টেল ফি বৃদ্ধির প্রতিবাদে লাগাতার আন্দোলন করেছে একদল পড়ুয়া। বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সংসদের ক্ষমতায় থাকা বামপন্থী ছাত্র সংগঠন এসএফআইয়ের মদতই ছিল সবচেয়ে বেশি। দীর্ঘদিন ধরে পড়াশোনা বাদ দিয়ে প্রতিবাদে শামিল হওয়া শিক্ষার পরিবেশ নষ্ট করেছে। যারা মন দিয়ে পড়াশোনা করতে চায়, তাদেরও বাধা দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ রেজিস্ট্রারের। তিনি আরও অভিযোগ করেন, শনিবার সেমিস্টারের রেজিস্ট্রেশনে অন্যান্য পড়ুয়াদেরও বাধা দেওয়া হয়েছে বামপন্থী ছাত্রছাত্রীদের তরফে। এর পালটা প্রতিরোধও হয়েছে। যার বহিঃপ্রকাশ শনি ও রবিবার হস্টেলে হামলা। 

[আরও পড়ুন : সুপ্রিম কোর্টে ধাক্কা, আরও বিপাকে পলাতক বিজয় মালিয়া]

রবিবার হস্টেলে হামলার পর তড়িঘডি গোটা ঘটনার রিপোর্ট চেয়ে পাঠায় মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রক। এরপর সোমবার সকলে ক্যাম্পাস চত্বরে শাস্ত্রী ভবনে বৈঠকে বসেন মন্ত্রকের আধিকারি্করা। বাইরে ছিল কড়া পুলিশি প্রহরা। এদিনের  সেই বৈঠকে হাজির ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার, প্রোক্টর ও অন্যান্য আধিকারিকরা। তাঁরা গোটা ঘটনার বিস্তারিত বিবরণ মন্ত্রকের আধিকারিকদের কাছে তুলে ধরেন। এদিকে ইতিমধ্যে পদত্যাগ করেছেন সবরমতী হাসপাতালের ওয়ার্ডেন।    

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে