৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘ঋণখেলাপকারীদের নাম প্রকাশ করুন’, আরবিআইকে নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: April 26, 2019 4:26 pm|    Updated: April 26, 2019 4:26 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নির্বাচনের মধ্যে দেশের আর্থিক পরিস্থিতি নিয়ে বড় রায় দিল  শীর্ষ আদালত৷ ব্যাংকগুলির পারফরম্যান্স কেমন? লেনদেনের হিসেব কী হয়েছে? তা সবিস্তারে জানাতে হবে রিজার্ভ ব্যাংককে৷ পাশাপাশি ঋণখেলাপি সম্পর্কে সমস্ত তথ্যও প্রকাশ করতে হবে৷ সব কেন্দ্রীয়, রাষ্ট্রায়ত্ত, বেসরকারি ব্যাংককে এমনই নির্দেশ দিল সুপ্রিম কোর্ট৷ নির্দেশ পালিত না হলে, আদালত অবমাননা মামলার মুখে পড়বে রিজার্ভ ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া৷

[আরও পড়ুন: সাধ্বী প্রজ্ঞার বিরুদ্ধে প্রচারে নারাজ মধ্যপ্রদেশ বিজেপির মুসলিম মুখ]

আরটিআইয়ের মাধ্যমে ব্যাংকগুলির বার্ষিক পারফরম্যান্স রিপোর্ট জানতে চাওয়া হয়েছিল৷ তাতেই সুপ্রিম কোর্টের এই নির্দেশ৷ স্পষ্ট বলা হয়েছে, আরটিআইয়ের জবাব দিতে হবে৷ বিস্তারিত জানাতে হবে ব্যাংকের লেনদেনের হিসেব৷ সেইসঙ্গে ঋণখেলাপের অঙ্ক সম্পর্কেও যা যা তথ্য আছে, তার সবটাই প্রকাশ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে সর্বোচ্চ আদালতের তরফে৷ জানাতে হবে ঋণখেলাপিদের নামও৷  এসব জানতে চেয়ে আরটিআই দায়ের করেছিলেন এসসি আগরওয়াল নামে এক সমাজকর্মী৷ তার পরিপ্রেক্ষিতেই সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি নাগেশ্বর রাওয়ের বেঞ্চ এই নির্দেশ দিয়েছে৷ এখানেই বাড়ছে আশঙ্কা৷ সমস্ত তথ্য প্রকাশিত হলে, ঋণখেলাপকারী হিসেবে বহু রাঘব বোয়ালের নাম উঠে আসবে বলে মনে করা হচ্ছে৷ ভোটের মরশুমে যা বিপাকে ফেলতে পারে বিভিন্ন রাজনৈতিক শিবিরকে৷

[আরও পড়ুন: শংকর লালওয়ানির নেপথ্যে ইন্দোরে ভোটযুদ্ধের রাশ সুমিত্রা মহাজনের হাতে]

এটাই প্রথম নয়৷ এর আগে জানুয়ারিতেও এই একই মামলায় আরবিআই তথ্য দেয়নি বলে আদালত অবমাননার নোটিস পাঠানো হয়েছিল শীর্ষ আদালতের তরফে৷ রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকগুলির বার্ষিক রিপোর্ট পেশ করা আইন অনুযায়ী বাধ্যতামূলক কর্তব্য৷ তাই ব্যাংকগুলি যেন তাদের এই নীতি পুনর্বিবেচনা করে, সেই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে সুপ্রিম কোর্টের তরফে৷ তথ্যের অধিকার আইনে ২০১৫ সালে ব্যাংকের বিস্তারিত জানার ক্ষেত্রে সবুজ সংকেত দিয়েছিল সুপ্রিম কোর্ট৷ কিন্তু তা সত্ত্বেও আরটিআই-তে এসব তথ্য জানা যায়নি বলে মামলা দায়ের করেছিলেন এসসি আগরওয়াল৷ তাই শেষবারের মতো সুপ্রিম কোর্টের তরফে কেন্দ্রীয় ব্যাংকগুলিকে নির্দেশ দিয়ে বলা হয়েছে, আরটিআইয়ের জবাবে যাবতীয় তথ্য দিতে বাধ্য থাকবে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ৷ প্রয়োজনে নিজেদের নীতি সংশোধন করতে হবে৷ এবার সুপ্রিম কোর্টের আদেশ অমান্য করলে, আদালত অবমাননা মামলায় কড়া পদক্ষেপের মুখে পড়তে হবে ব্যাংকগুলিকে৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement