BREAKING NEWS

৪ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

লিঙ্গবৈষম্যের বিরুদ্ধে সুপ্রিম রায়, এবার নৌসেনায় স্থায়ী কমিশন পাবেন মহিলারা

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: March 17, 2020 11:38 am|    Updated: March 17, 2020 11:38 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভারতীয় সেনাবাহিনীতে লিঙ্গবৈষম্য দূর করে যুগান্তকারী রায় দিল সুপ্রিম কোর্ট। মঙ্গলবার নৌবাহিনীতে মহিলা আধিকারিকদের স্থায়ী কমিশন দেওয়ার নির্দেশ দিল শীর্ষ আদালত।

মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্ট সাফ জানিয়ে দেয় যে নৌসেনায় মহিলা অফিসারদের ‘পারমানেন্ট কমিশন’ না দেওয়া অন্যায়। পুরুষদের মতোই মহিলা ক্যাডেটরাও একইভাবে নিজেদের দায়িত্ব পালনে সক্ষম। এই নির্দেশিকা কার্যকর করার জন্য কেন্দ্রকে তিনমাসের সময়সীমা বেঁধে দিয়েছে শীর্ষ আদালত। উল্লেখ্য, ‘পার্মানেন্ট কমিশন’ বা স্থায়ী পদের মানে হল অবসর নেওয়ার নির্দিষ্ট বয়স পর্যন্ত পুরুষ সহকর্মীদের মতোই পদে বহাল থাকবেন মহিলারাও। বর্তমানে নৌসেনায়, SSC বা ‘শর্ট সার্ভিস কমিশন’-এর আওতায় সব মিলিয়ে ১৪ পর্যন্ত কাজ করতে পারেন মহিলা আধিকারিকরা। 

উল্লেখ্য, গত ফেব্রুয়ারি মাসে ভারতের স্থলসেনায় মহিলা অফিসারদের ‘পারমানেন্ট কমিশন’ দেওয়ার নির্দেশ দেয় সুপ্রিম কোর্ট।  সেবার, রায় পড়ে শোনানোর সময় সেনায় মহিলাদের স্থায়ী নিয়োগ প্রসঙ্গে ‘লিঙ্গ নিয়ে কেন্দ্রের চিরাচরিত ধারণা’র সমালোচনা করেছিলেন শীর্ষ আদালতের বিচারপতি ডি ওয়াই চন্দ্রচূড়। তিনি সাফ বলেছিলেন, “নিজেদের কাজ করার জন্য প্রত্যেক সৈনিকের শারীরিক যোগ্যতা থাক উচিত। সেনায় মহিলাদের জায়গা ক্রমে পালটাচ্ছে। কেন্দ্রের উচিত দিল্লি হাই কোর্টের নির্দেশ পালন করা।” উল্লেখ্য, ২০১০ সালে ভারতীয় সেনার তিন বাহিনীতেই মহিলাদের ‘পারমানেন্ট কমিশন’ দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল দিল্লি হাই কোর্ট। তারপরই এই রায়ের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে মামলা করে প্রতিরক্ষা মন্ত্রক। গত বছর স্থলসেনার সিগন্যালস, ইঞ্জিনিয়ারস, আর্মি এভিয়েশন, আর্মি এয়ার ডিফেন্স, আর্মি সার্ভিস কোর-সহ ১০টি শাখায় মহিলাদের স্থায়ী নিয়োগ দেওয়া হয়।   

[আরও পড়ুন: নজরে চিন-পাকিস্তান, ৮৩টি তেজস যুদ্ধবিমান কিনছে ভারতীয় বায়ুসেনা   ]             

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement