BREAKING NEWS

১২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  শুক্রবার ২৭ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

ভোটের আগে প্রতিশ্রুতির বন্যা রাজনৈতিক দলগুলির! নির্বাচন কমিশনকে নোটিস সুপ্রিম কোর্টের

Published by: Kishore Ghosh |    Posted: January 25, 2022 3:34 pm|    Updated: January 25, 2022 4:14 pm

SC notice to Centre, EC on PIL against freebies by political parties | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভোট এলেই প্রতিশ্রুতির বন্যা বইয়ে দেয় রাজনৈতিক দলগুলি। বহু ক্ষেত্রে ভোটারদের অভিযোগ, ভোটের পর সেই সব বিরাট প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ হয় তো বটেই, এমনকি প্রতিশ্রুতি দানকারী নেতাদের টিকি পর্যন্ত খুঁজে পাওয়া যায় না। এই বিষয়ে প্রতিবাদ জানিয়ে সম্প্রতি সুপ্রিম কোর্টে (Supreme Court) একটি জনস্বার্থ মামলা করা হয়েছে। ওই মামলায় আবেদন করা হয়েছে, যে দলগুলি ভোটে জিততে মাত্রাতিরিক্ত ‘দান খয়রাতি’র প্রতিশ্রুতি দেবে, তাদের প্রতীক কেড়ে নিতে হবে, দলের রেজিস্ট্রেশন বাতিলেরও আরজি জানানো হয়েছে। এই মামলাতেই মঙ্গলবার কেন্দ্র ও নির্বাচন কমিশনকে নোটিস পাঠাল শীর্ষ আদালত।

মামলাটি শুনতে রাজি হওয়ার পর প্রধান বিচারপতি এনভি রামানা (NV Ramana), বিচারপতি এএস বোপান্না (AS Bopanna) ও বিচারপতি হিমা কোহলির (Hima Kohli) বেঞ্চের পর্যবেক্ষণ ছিল, বিষয়টি গুরুত্বপূর্ণ। ভোটে এর প্রভাব পড়ে। অবাধ নির্বাচনে বাধা হয়ে দাঁড়ায়।

[আরও পড়ুন: ‘মুসলিম নেতাদেরও শাস্তি হোক’, হরিদ্বার ধর্ম সংসদ ইস্যুতে সুপ্রিম কোর্টে পালটা আবেদন হিন্দুত্ববাদীদের]

এদিন শুনানিতে পাঞ্জাবের প্রসঙ্গ তোলেন মামলাকারী আইনজীবী। প্রধান বিচারপতি এন ভি রামান্না জানতে চান, আইনজীবী কি নির্দিষ্টভাবে কোনও নাম করতে চান? উত্তরে আইনীজীবী বলেন, “পঞ্জাবের বিষয়টি দেখুন। আপনি যদি প্রতি মহিলাকে ১,০০০ টাকা বা ২,০০০ টাকা দিতে চান, কে সেই টাকা জোগাবে?”

মঙ্গলবার চার সপ্তাহ পর শুনানি হয় মামলাটির। বিচারপতিদের বেঞ্চ মন্তব্য করে, “বর্তমান মামলাটি যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ। অনেক ক্ষেত্রে সাধারণ বাজেটকে ছাড়িয়ে যাচ্ছে দান খয়রাতির বাজেট। যদিও তা দুর্নীতি নয় তবে এক ধরনের বৈষম্য তৈরি করে। বিষয়টি নিয়ে বাড়বাড়ি হচ্ছে।

[আরও পড়ুন: এখনই গ্রেপ্তার করতে পারবে না সিবিআই, ‘সুপ্রিম’ নির্দেশে স্বস্তিতে শেখ সুফিয়ান]

ক’ দিন পরেই পাঁচ রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচন। প্রতিশ্রুতির প্রতিযোগিতা চলছে সবজায়গায়। এই বিষয়ে দেশের সমস্ত রাজনৈতিক দলের চরিত্রগত মিল রয়েছে। তবে আইনজীবী অশ্বিনী উপাধ্যায় যে মামলাটি করেছেন সেখানে পাঞ্জাবের উদাহরণই টানা হয়েছে। যা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে বেঞ্চ। উল্লেখ্য, পঞ্জাবে ক্ষমতায় এলে ১৮ বছরের ঊর্ধ্বে সব মহিলাকে মাসে ১,০০০ টাকা ভাতা দেওয়া হবে বলে ঘোষণা করেন আম আদমি পার্টি প্রধান তথা দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। প্রতি পরিবারের সর্বোচ্চ তিনজন সেই টাকা পাবেন বলে প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে। মঙ্গলবারের শুনানি শেষে বিচারপতিদের বেঞ্চ রাজনৈতিক প্রতিশ্রুতির বিষয়ে কেন্দ্র ও নির্বাচন কমিশনকে নোটিস পাঠিয়েছে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে