৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

শুধু ব্যবসার কথা না ভেবে মানুষের দুর্ভোগের কথাও ভাবুন, কেন্দ্রকে তোপ সুপ্রিম কোর্টের

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: August 26, 2020 2:27 pm|    Updated: August 26, 2020 2:27 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: স্থগিত EMI-এর উপর সুদ আদায় নিয়ে এবার কেন্দ্রকে তুলোধোনা করল সুপ্রিম কোর্ট। আগামী ১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে এই ইস্যুতে সরকারকে অবস্থান স্পষ্ট করার নির্দেশ দিয়েছে সর্বোচ্চ আদালত। সুপ্রিম কোর্ট (Supreme Court) বলছে, মানুষের দুর্ভোগের সময় ব্যবসায়িক লাভ দেখা উচিত নয় কেন্দ্রের।

উল্লেখ্য, লকডাউনে মানুষের দুর্ভোগ কমাতে ব্যাংকগুলিতে বেশ কয়েকমাস ঋণের EMI স্থগিত রাখার নির্দেশ দিয়েছিল কেন্দ্র। মার্চ মাসের ২৭ তারিখ EMI স্থগিত রাখার বিষয়টি সরকারিভাবে ঘোষণা করেন RBI-এর গভর্নর শক্তিকান্ত দাস। তিনি জানিয়েছিলেন, দেশের অর্থনীতি চাঙ্গা করতে এবং আর্থিক বৃদ্ধি সচল রাখতে এই পদক্ষেপ করেছে রিজার্ভ ব্যাংক। এর ফলে লকডাউনের জেরে ঘরে বসে থাকা কোটি কোটি দেশবাসীকে স্বস্তি পাবেন। কিন্তু তাঁর ঘোষণার কিছুদিন পরই দেখা যায় স্থগিত হয়ে যাওয়া ওই EMI-এর উপর সুদ নেওয়া শুরু করেছে কিছু রাষ্ট্রায়ত্ত ও বেসরকারি ব্যাংক। যাতে দুর্ভোগ আরও বাড়ে ঋণগ্রহীতাদের। লকডাউন আবহে ঋণের মোরেটোরিয়ামে সুদের উপর সুদ নেওয়ার প্রতিবাদে মামলা হয় সুপ্রিম কোর্টে। এ নিয়ে ব্যাংকগুলিকে আগেই তুলোধোনা করেছে সর্বোচ্চ আদালত। কিন্তু ব্যাংকগুলির দাবি, সুদ ছাড়া এভাবে ঋণের কিস্তি স্থগিত করে দিলে লোকসান সামাল দিতে গিয়ে তারা নাজেহাল হয়ে যাবে। রিজার্ভ ব্যাংকও জানায়, এই সুদ মকুব করে দিলে ২ লক্ষ কোটি টাকা ক্ষতি হবে। এদিকে এই পুরো বিষয়টিতে কেন্দ্র এখনও নিজেদের অবস্থান স্পষ্ট করেনি। আর সেকারণেই এবার শীর্ষ আদালত কেন্দ্রকে বেনজির কটাক্ষে বিঁধল।

[আরও পড়ুন: গালওয়ানের সংঘর্ষ ‘দুর্ভাগ্যজনক ও বিক্ষিপ্ত ঘটনা’, বরফ গলাতে কৌশলী চাল চিনা রাষ্ট্রদূতের]

এই সংক্রান্ত একটি মামলার শুনানিতে এদিন বিচারপতি অশোক ভূষণের ডিভিশন বেঞ্চ কেন্দ্রের আইনজীবীকে বলে,”মানুষের এই দুর্ভোগের সময় আপনারা শুধু ব্যবসায়িক লাভ দেখতে পারেন না। মনে হচ্ছে কেন্দ্র এই ইস্যুতে রিজার্ভ ব্যাংকের সিদ্ধান্তের আড়ালে লুকিয়ে থাকার চেষ্টা করছে। অথচ, বিপর্যয় মোকাবিলা আইন অনুযায়ী এই মুহূর্তে কেন্দ্রের হাতে বহু ক্ষমতা আছে। কেন্দ্র চাইলেই ব্যাংকগুলিকে EMI পিছিয়ে দেওয়ার জন্য অতিরিক্ত চার্জ এবং সুদের উপর সুদ নেওয়া থেকে বিরত থাকার নির্দেশ দিতে পারে।” এরপরই আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে হলফনামা জমা দিয়ে এই ইস্যুতে কেন্দ্রকে অবস্থান স্পষ্ট করার নির্দেশ দিয়েছে সর্বোচ্চ আদালত।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement