২২ আষাঢ়  ১৪২৭  মঙ্গলবার ৭ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

লকডাউনে নয়া উদ্যোগ, প্রত্যন্ত এলাকার মানুষদের অত্যবশ্যকীয় পণ্য পৌছে দেবে SpiceJet

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: May 29, 2020 5:05 pm|    Updated: May 29, 2020 5:05 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দীর্ঘ দু মাস ধরে চলছে লকডাউন। দেশের অর্থনীতির হাল ফেরাতে বেশ কিছু ক্ষেত্রে ছাড় দেওয়া হলেও তথৈবচ অবস্থা দেশের গণপরিবহনের। ফলে প্রান্তিকভাগে থাকা মানুষের জীবনে অভাব দেখা দিচ্ছে অত্যাবশ্যকীয় পণ্য-সহ ওষুধের। সেই সমস্যা মেটাতে সাহায্যের হাত বাড়ালো স্পাইসজেট (SpiceJet) বিমান সংস্থা। ড্রোন (Drone)-এর সাহায্যে  দ্রুত সেই এলাকাগুলিতে প্রয়োজনীয় সামগ্রী পাঠানোর প্রক্রিয়া শুরু করা হবে বলে জানানো হয়।

লকডাউনের ৬৪ দিন পার। নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রীর অভাবে নাজেহাল অবস্থা দেশের প্রত্যন্ত এলাকায় থাকা মানুষের। গণপরিবহন না থাকায় রফতানি করায় সমস্যা দেখা দিয়েছে। তাই তাঁদের দিকে সাহায্যের হাত বাড়াতে ড্রোনে করে প্রয়োজনীয় সামগ্রী পাঠানোর প্রক্রিয়া শুরু করতে চায় বেসরকারি বিমান সংস্থা, স্পাইসজেট। চলতি মাসের শুরুতেই ডিরেক্টরেট জেনারেল অফ সিভিল অ্যাভিয়েশেন (DGCA)১৩ টি সংস্থাকে ড্রোন ওড়ানোর অনুমতি দেয়। তাদের মধ্যে অনুমতি পায় এই বেসরকারি বিমান সংস্থা স্পাইসজেট। এই সংস্থারই কার্গো বিভাগ স্পাইসএক্সপ্রেস (SpiceXpress) ড্রোনের মাধ্যমে যাবতীয় সামগ্রী পাঠানোর কাজ পরিচালনা করবে। স্পাইসজেটের চেয়ারম্যান ও ম্যানেজিং ডিরেক্টর অজয় সিং জানিয়েছেন, “এই প্রক্রিয়ার সব কাজ মোটামুটি শেষের দিকে। ট্রায়াল রান দিয়ে টেস্ট করেও দেখা হয়ে গেছে। এই পদ্ধতিতে নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী পাঠানো সম্ভব হলে আমরা পরিবহণের দুনিয়ায় আরও এক ধাপ এগিয়ে যাব। এর মাধ্যমে দেশের প্রত্যন্ত এলাকা যেখানে অন্য কোনও পরিবহণ মাধ্যমের সুবিধা নেই সেখানেও ওষুধ, নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী পাঠানো সম্ভব হবে।” তবে কবে থেকে এই কাজ শুরু হবে তা এখনও জানায়নি স্পাইসজেট।

[আরও পড়ুন:‘দেশবাসীকে জানান কী হচ্ছে’, ইন্দো-চিন সীমান্ত বিবাদ নিয়ে মোদিকে প্রশ্ন রাহুলের]

গত ২৫ মার্চ থেকে দেশজোড়া লকডাউন চলছে। তারপর থেকেই গণপরিবহন বন্ধ করে দেওয়া হয়। ফলে দেশের অনেক এলাকায় করোনা সংক্রমণের জেরে পরিস্থিতি ক্রমশ খারাপ হচ্ছে। সেখানে মানুষের দুর্দশা উদ্বেগ বাড়িয়েছে প্রশাসনের। আর তাই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্র। সব জায়গায় নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী পৌঁছে দেওয়ার জন্য ড্রোনের সাহায্য নেওয়া হচ্ছে। তবে চলতি মাসের শুরু থেকে আমাজন ইন্ডিয়া ৫০ হাজার অস্থায়ী কর্মীদের নিযুক্ত করেছেন। তাঁরাই মানুষের বাড়ির দোড়গোড়ায় পৌঁছে দিচ্ছেন নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী।

[আরও পড়ুন:এবার বাংলা ক্রিকেটের অন্দরে করোনার হানা, আক্রান্ত বর্তমান সিনিয়র দলের নির্বাচক]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement