BREAKING NEWS

১০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  শনিবার ২৭ নভেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

বেতন দিতে না পারায় ক্লাসে ঢুকতে দেয়নি স্কুল কর্তৃপক্ষ, আত্মঘাতী অবসাদগ্রস্ত ছাত্রী

Published by: Paromita Kamila |    Posted: February 12, 2021 1:45 pm|    Updated: February 12, 2021 5:20 pm

Student committed suicide for fail to pay fees | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মাত্র তিন হাজার টাকা স্কুলের ফি দিতে না পারায় বহিষ্কৃত ছাত্রীর আত্মহত্যার ঘটনার চাঞ্চল্য। হায়দরাবাদের (Hyderabad) নেরেদমেটের ঘটনায় ইতিমধ্যেই পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেছেন ছাত্রীর মা-বাবা। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ১৬ বছর বয়সী অশ্বিনী কাকাটিয়া নগরে থাকত। তাঁর মা-বাবা শ্রমিকের কাজ করেন। বেশ কিছুদিন ধরেই আর্থিক অনটনের কারণে সমস্যায় পড়েছে ওই পরিবার। কোনওরকমে দিন চলছিল তাঁদের।

সেই পরিবারের মেয়ে, অশ্বিনীর স্বপ্ন ছিল পড়াশোনা করে বড় হওয়ার। নিজের পায়ে দাঁড়িয়ে কিছু করার। কিন্তু তার স্বপ্নের কাছে বাধা হয়ে দাঁড়ায় আর্থিক সমস্যা। মাত্র তিন হাজার টাকা স্কুল ফিজ বাকি থাকায় ওই ছাত্রীকে হেনস্থার মুখে পড়তে হয় বলে জানা যায়। অমানবিকতার পরিচয় দেয় হায়দরাবাদের বেসরকারি ওই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানও। টাকা দিতে না পারায় স্কুলের তরফ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয় ওই ছাত্রী আর ক্লাস করতে পারবেন না।

[আরও পড়ুন: দেশে একদিনে করোনার কবলে ৯ হাজার ৩০৯ জন, অনেকটা কমল অ্যাকটিভ কেস] 

এরপরই ধীরে ধীরে অবসাদগ্রস্থ হয়ে পড়ে অশ্বিনী। বেছে নেয় চরম পথ। বাবা-মায়ের অনুপস্থিতিতে আত্মহত্যা করে ওই ছাত্রী। কাজ থেকে ফিরে এসে পরিবারের লোকেরা বাড়ির দরজা বন্ধ দেখেন। বেশ কিছুক্ষণ ডাকাডাকির পর সাড়াশব্দ না পেয়ে প্রতিবেশীদের সাহায্যে দরজা ভেঙে তাঁরা ছাত্রীকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পান। তড়িঘড়ি অশ্বিনীকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসকেরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। ছাত্রীর কাছ থেকে কোনও সুইসাইড (Suicide) নোট পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছেন তদন্তকারী আধিকারিক নরসিংহ স্বামী। ছাত্রীর অবসাদের পিছনে স্কুল কর্তৃপক্ষ দায়ী কিনা তা তদন্ত করে দেখছে পুলিশ।

[আরও পড়ুন: ৩০ শতাংশ বাড়ল ঘরোয়া বিমান ভাড়া, জ্বালানি জ্বালায় জর্জরিত হয়ে সিদ্ধান্ত কেন্দ্রের]

 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে