BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

সানি এলে গণ আত্মহত্যা, বর্ষবরণের অনুষ্ঠানে ঘিরে ধুন্ধুমার কর্নাটকে

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: December 15, 2017 8:29 am|    Updated: September 19, 2019 2:18 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বর্ষবিদায়টা সুখের হচ্ছে না সানি লিওনের। বছর শেষে নিউ ইয়ার ব্যাশ-এ পারফর্ম করার কথা ছিল সানির। কিন্তু সানি কর্নাটকে পা রাখলে তুলকালাম হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছিল একটি সংগঠন। এর আগে একদফা প্রতিবাদও করেছিলেন সংগঠনের সদস্যরা। ফের তা মাথাচাড়া দিল। শুক্রবার সানির ছবি পোড়ানো থেকে একাধিক কর্মসূচিতে নিজেদের অনাস্থা প্রকাশ করল কর্নাটক রক্ষাণা বৈদিকি যুবসেনী নামে সংগঠনের সদস্যরা।

লজ্জা নয় স্বাস্থ্য, ট্রেলারেই বার্তা নিয়ে হাজির ‘প্যাডম্যান’ অক্ষয় ]

বেঙ্গালুরুর এক ফাইভ স্টার হোটেলে নিউ ইয়ার ইভে পারফর্ম করার কথা ছিল সানি লিওনের। কিন্তু তাতে ঘোর আপত্তি এই সংগঠনের। কেন সানিতে আপত্তি? সদস্যরা জানাচ্ছেন, সাধারণ নাগরিক হিসেবে সানি রাজ্যে পা রাখতেই পারেন। সে অধিকার তাঁর আছে। তা নিয়ে কোনও আপত্তি নেই। কিন্তু তিনি আসছেন একজন পারফর্মার হিসেবে। অভিনেত্রী সানিকেই চায় না এই সংগঠন। কারণ সানির অতীত ইতিহাস কারও অজানা নয়। তিনি ভারতীয়ও নয় বলে দাবি তাঁদের। তাঁদের দাবি, সানি ভারতীয় সংস্কৃতির প্রতিনিধি নন। যে অভিনেত্রীর নামের সঙ্গে নীলছবি জড়িয়ে আছে, তাঁকে কর্নাটকে পারফর্ম করতে দেখতে চান না তাঁরা। কর্নাটক তা মেনে নেবে না। সংগঠনের রাজ্য সভাপতি জানিয়ে দিয়েছেন, “সানি ছোট পোশাক পরে নাচগান করেন। যা দৃষ্টিকটূ। উনি যদি শাড়ি পড়ে নাচে অংশ নেন, তাহলে আমরা দেখতে যাব। ওঁর অতীত তো ভাল নয়। এরকম মানুষকে আমরা উৎসাহ দিতে পারি না।” ওদিকে অনুষ্ঠান আয়োজকদের তরফে বলা হয়েছে, “এটি একটি ঘরোয়া অনুষ্ঠান। যেখানে সানি নাচে অংশ নেবেন। কর্নাটকের সংস্কৃতি কোনওভাবেই ক্ষতিগ্রস্ত হবে না। আরও বহু জায়গায় অনুষ্ঠানের অফার আছে তাঁর। কিন্তু হায়দরাবাদকে ভালবাসেন বলেই এই অনুষ্ঠানে আসতে চেয়েছেন।” প্রতিবাদীরা যে ঠিক কী চান, তা বোঝা যাচ্ছে না বলেই জানিয়েছেন আয়োজকরা।

[ ভাড়া বাকি ৬৪ লক্ষ টাকা, বাড়ি থেকে বিতাড়িত মল্লিকা ]

3-mos_121517124754

রিসেপশনের নিমন্ত্রণপত্রেও চমক বিরুষ্কার, জানেন কী? ]

এর আগেও একদফা বিক্ষোভ কর্মসূচি দেখানো হয়েছিল। শুক্রবার ফের বিক্ষোভে উত্তাল হয় সংগঠনের সদস্যারা। সানির ছবিতে ঝাঁটাপেটা করতে দেখা যায় তাঁদের। এমনকী ছবি পোড়ানোও হয়। সদস্যাদের হুমকি, সানি পারফর্ম করতে কর্নাটকে পা রাখলে আত্মহত্যা করবেন তাঁরা। এর আগেও একাধিক বৈষম্যমূলক আচরণের মুখে পড়েছেন সানি লিওন। এমনকী কপিল শর্মাও তাঁকে শোয়ে ডাকতে অস্বীকার করেছিলেন। কারণ একটাই। তাঁর অতীত। পর্নস্টার সানি কিছুতেই অভিনেত্রী সানিকে যেন মাথা তুলে দাঁড়াতে দিচ্ছে না। বলিউডে অনেকগুলো বছর কাটল। ছবি ও আইটেম সংয়ে প্রতিবছর মাতিয়ে দিচ্ছেন। কিন্তু তাতেও শেষরক্ষা হয়নি। সাম্প্রতিক এই প্রতিবাদ বুঝিয়ে দিল, সানি লিওনকে এখনও পর্নস্টার হিসেবেই দেখেন অধিকাংশ দেশবাসী।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement