২২ আষাঢ়  ১৪২৭  মঙ্গলবার ৭ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

গরিবদের সাহায্যে পড়াশোনার ৫ লক্ষ টাকা দান তামিলনাড়ুর কিশোরীর, প্রশংসায় পঞ্চমুখ রাষ্ট্রসংঘ

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: June 6, 2020 4:43 pm|    Updated: June 6, 2020 4:53 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দেশের কঠিন পরিস্থিতিতে মানুষ হিসেবে থাকতে হবে মানুষের পাশে। জীবনের এই সহজ সত্যটাকে মেনে নিয়ে গরিব পরিবারগুলোর দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়েছে তামিলনাড়ুর (Tamil Nadu) এক কিশোরী। নিজের পড়াশোনার জন্য জমানো ৫ লক্ষ টাকা অবলীলায় দান করেছে সে। তাঁর এই কাজের জন্য কুর্নিশ জানিয়েছে রাষ্ট্রসংঘ (United Nations)।

‘সকলের তরে সকলে আমরা প্রত্যেকে আমরা পরের তরে’, বইয়ের পাতায় এমন রকমারি কথা লেখা থাকে। কিন্তু কতজন তা জীবনের মূলমন্ত্র হিসেবে মেনে নেন? আপন হতে বাহির হয়ে লকডাউনের আবহে গরিবদের পাশে দাঁড়ানোর সাহস দেখিয়েছে তামিলনাড়ুর মাদুরাইয়ের এক কিশোরী, এম নেথ্রা। জানা যায়, মাদুরাইতে নেথ্রার বাবা একটি সেলুনের দোকান রয়েছে। সেখান থেকেই উপার্জন করে মেয়েকে বড় করে তোলার স্বপ্ন দেখেন তিনি। দশের মধ্যে একজন করতে হবে মেয়েকে, এই লক্ষ্যে মেয়ের পড়াশোনার খরচ হিসেবে তিল তিল করে জমিয়েছিলেন ৫ লক্ষ টাকা। তবে শুধু পুঁথিগত বিদ্যায় নয় সামাজিক জ্ঞান ও মনুষত্বের মিশেলে নিজের ভবিষ্যতকে দৃঢ় করতে চায় এই কিশোরী। তাই সেই ৫ লক্ষ টাকা অবলীলায় খরচ করে ফেলে দেশের গরিব-দুঃখীদের মধ্যে। এই দুঃসময়ে সাধারণ মানুষের মুখে অন্তত দু’বেলা দু’মুঠো অন্নসংস্থানের ব্যবস্থা করে দিতে চেয়েছে নেথ্রা। তবে মানুষের পাশে এভাবে দাঁড়ানোয় এম নেথ্রা নামের ওই কিশোরীকে “গুডউইল অ্যাম্বাসাডর টু দ্য পুওর” বা “দরিদ্রদের শুভেচ্ছাদূত” হিসাবে নিয়োগ করেছে রাষ্ট্রসংঘ (United Nations)।

[আরও পড়ুন:বিস্ফোরণে উড়ে গেল গর্ভবতী গরুর চোয়াল, কেরলের পর নৃশংস ঘটনার সাক্ষী হিমাচল প্রদেশ]

বাবার সামান্য সেলুনের দোকানের উপর ভরসা রেখে অপরের জন্য নিজের সঞ্চয়কে বিলিয়ে দিয়েছে এই কিশোরী। নেথ্রার এই কাজের জন্য তাঁর ভূয়সী প্রশংসা করে রাজ্য সরকারও। তামিলনাড়ুর এই সোনার মেয়ের প্রশংসা করেন তামিলনাড়ুর প্রতিমন্ত্রী সেল্লুর রাজু। কিশোরীর এই উদ্যোগকে আরও উৎসাহিত করতে তাঁকে ইউনাইটেড নেশনস অ্যাসোসিয়েশন ফর ডেভেলপমেন্ট অ্যান্ড পিস (UNADAP)-এর অ্যাম্বাসাডর হিসাবেও নিয়োগ করেছে রাষ্ট্রসংঘ। UNADAP জানিয়েছে যে, এম নেথ্রাকে নিউইয়র্ক এবং জেনেভাতে আয়োজিত রাষ্ট্রসংঘের সম্মেলনেও বক্তব্য রাখার সুযোগ দেওয়া হবে।

[আরও পড়ুন:আগামী ৮০ বছরে ভারতের জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব হবে ধ্বংসাত্মক! বলছেন গবেষকরা]

গত সপ্তাহে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ‘মন কি বাত’ অনুষ্ঠানে এম নেথ্রার কথা তুলে ধরেন। পাশপাশি নেথ্রাকে জে জয়ললিতা পুরস্কার দেওয়ার জন্য তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রীকে সুপারিশ করেন। এভাবেই সোনার মেয়েকে বিশ্বের দরবারে তুলে ধরার চেষ্টা চালিয়েছেন সকলে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement