BREAKING NEWS

৩ মাঘ  ১৪২৮  সোমবার ১৭ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

ভারতীয় সেনা ছাউনি লক্ষ্য করে গুলি, ফের সংঘর্ষবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন পাকিস্তানের

Published by: Kumaresh Halder |    Posted: September 19, 2018 9:31 am|    Updated: September 19, 2018 9:31 am

Terrorists hurl grenade at CRPF camp in J-K's Pulwama

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের সীমান্তে সংঘর্ষবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করল পাক সেনা৷ বুধবার সকালে থেকে জম্মু ও কাশ্মীরের পুলওয়ামা জেলার কাকাপোরা রেল স্টেশন লাগোয়া এলাকায় শুরু হয়েছে গুলির লড়াই৷ ভারত-পাক গুলির লড়াইয়ে এখনও পর্যন্ত কোনও হতাহতের খবর পাওয়া না গেলেও এলাকায় ছড়িয়ে তীব্র উত্তেজনা৷ সীমান্ত পেরিয়ে জঙ্গি ভারতের ভূখণ্ডে প্রবেশ করতে পারে, এই আশঙ্কা কাকাপোরা রেল স্টেশন চত্বরে শুরু হয়েছে জঙ্গি নিকেশ অভিযান৷ চলছে, সেনা তল্লাশি৷

[‘দেশের বিরুদ্ধে যুদ্ধে নেমেছে জেএনইউ’, প্রতিরক্ষামন্ত্রীর মন্তব্যে বিতর্ক]

সেনা সূত্রে খবর, এদিন সকালে পুলওয়ামায় ভারতীয় সেনা ছাউনি লক্ষ্য করে অবিরাম গুলি ছুঁড়তে শুরু করে পাক সেনা৷ ঘটনার প্রাথমিক আকস্মিকতা কাটিয়ে উঠতে খুব বেশি দেরি করেনি সিআরপিএফ জওয়ানরা৷ মুহূর্তে পাল্টা জবাব দিতে শুরু করে ভারতীয় সেনা৷ সাতসকালে গুলিবর্ষণের তপ্ত হয়ে ওঠে উপত্যকা৷ শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী এখনও পর্যন্ত কোনও হতাহতের কোনও খবর পাওয়া না গেলেও গোটা এলাকা ঘিরে রেখেছে ভারতীয় জওয়ানরা৷ সীমান্তে সংঘর্ষের সুযোগ নিয়ে জঙ্গিরা ভারতে ঢুকতে পারে, এই আশঙ্কা এলাকায় নজরদারি কয়েক গুণ বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে৷ চলছে, সেনা অভিযান৷ অভিযান চলাকালীন এলাকায় অপ্রীতিকর পরিস্থিতি রুখতে সাময়িক ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ রাখা হয়েছে বলে খবর৷

[মুসলমানদের নিয়েই হবে হিন্দু রাষ্ট্র, সংঘের মঞ্চে ঘোষণা মোহন ভাগবতের]

এর আগে চলতি মাসেই সোপিয়ানে জঙ্গিদের লুকিয়ে থাকার খবর পায় সেনা৷ সেই খবরের ভিত্তিতে শুরু হয় তল্লাশি অভিযান৷ জঙ্গিদমন কর্মসূচি চলাকালীন সেনাদের উপর হামলা চালানো হয়৷ শুরু হয় গুলিবর্ষণ৷ পালটা জবাব দেয় ভারতীয় সেনা৷ তাতেই চার পুলিশকর্মী শহিদ হন৷ ইন্ডিয়ান মুজাহিদিন ও হিজবুল জঙ্গিরা এই হামলার দায় স্বীকার করে৷ সেনা জানিয়েছে, ওই ঘটনায় জড়িত ছিল আশাদুল্লা নাইকু৷ সে দীর্ঘদিন ধরেই হিজবুল মুজাহিদিন জঙ্গি গোষ্ঠীর সঙ্গে জড়িত৷ এরপরই আশাদুল্লা নাইকু ও তার বাবার বাড়িতে আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয়৷ এমনকী, জঙ্গিদের পরিবারের বারোজনের বেশি আত্মীয়কে পাকড়াও করা হয়৷ পুলিশকর্মীদের আত্মীয়দের অপহরণের পরই পুলিশ বারোজনকে মুক্তি দেয়৷ আশাদুল্লা নাইকুকেও মুক্তি দেয় সেনা৷

[এক ক্লিকেই হাতে মিলবে ‘নমো’র শার্ট, ঘড়ি ও টুপি]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে