Advertisement
Advertisement
Shashi Tharoor

কংগ্রেস ছেড়ে শরদ পওয়ারের দলে শশী থারুর? এনসিপি নেতার মন্তব্যে বাড়ল জল্পনা

কেরল কংগ্রেসের একাংশের সঙ্গে দূরত্ব বাড়ছে শশীর!

This is Shashi Tharoor said after NCP leader's 'warm invite' | Sangbad Pratidin
Published by: Kishore Ghosh
  • Posted:December 5, 2022 2:23 pm
  • Updated:December 5, 2022 8:32 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এনসিপির (NCP) আকাশে শশী দেখা দেবে? না, এখনও পর্যন্ত দল ছাড়ার কথা বলেননি তিরুবন্তপুরমের কংগ্রেস সাংসদ। তবে তাঁর ও কেরলের এনসিপি প্রেসিডেন্ট পিসি চাকোর (PC Chako) কথায় বিরাট জল্পনা তৈরি হয়েছে রাজনৈতিক মহলে। চাকো তো কেরল (Kerala) এনসিপিতে শশী থারুরকে (Shashi Tharoor) স্বাগতও জানিয়ে ফেলেছেন। গোটা ঘটনায় অস্বস্তিতে কংগ্রেস (Congress)।

কানপুরে সাংবাদিক সম্মেলনে এনসিপি নেতা চাকো ইঙ্গিতবাহী মন্তব্য করেন। বলেন, “কংগ্রেস প্রত্যাখ্যান করলেও থারুর তিরুবন্তপুরমের সংসদই থাকবেন।” চাকো এই মন্তব্য করেন থারুরের মালাবার সফর নিয়ে দলীয় জল্পনার পর। জল্পনা ছড়িয়েছিল শশীর ব্যক্তিগত সফর পছন্দ হয়নি কেরল কংগ্রেসের শীর্ষ নেতাদের একাংশের। যার পর সোমবার চাকো বলেন, “কংগ্রেস সাংসদ শশী থারুর যদি এনসিপিতে আসেন, আমরা তাঁকে আন্তরিকভাবে গ্রহণ করব। দল কংগ্রেস তাঁকে প্রত্যাখ্যান করলেও শশী থারুর তিরুবনন্তপুরমের সাংসদ থাকবেন। আমি জানি না কেন কংগ্রেস থারুরকে উপেক্ষা করছে।”

Advertisement

[আরও পড়ুন: একসঙ্গে যমজ বোনকে বিয়ে! আইন ভেঙে গ্রেপ্তার মহারাষ্ট্রের যুবক]

যদিও কেরল এনসিপি প্রধানের এই বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় থারুর নিশ্চিত করেছেন তিনি এনসিপিতে যোগ দিচ্ছেন না। সোমবার থারুর বলেন, “আমি যদি সেখানে (এনসিপি) যাই তাহলে আমাকে স্বাগত জানাতে হবে। আমি এনসিপিতে যাচ্ছি না। এই ধরনের বিষয়ে পিসি চাকোর সঙ্গে কোনও আলোচনা হয়নি।” যদিও শশীর এই মন্তব্যের পরেও জল্পনার অবসান হচ্ছে না। নেপথ্যে তাঁর চার দিনের মালাবার সফর। ওই সফর রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত, মনে করছে কেরল কংগ্রেসের একাংশ। তাঁদের আশঙ্কা, শশী থারুর নিজেকে মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী হিসেবে তুল ধরতে চাইছেন। তাঁর লক্ষ্য ২০২৬ সালের কেরল বিধানসভা নির্বাচন।

যদিও দলের সঙ্গে তাঁর সংঘাত নেই জানিয়ে দিয়েছেন শশী নিজে। বাজারে জল্পনা বাড়ায় কংগ্রেস নেতা এই বিষয়ে মন্তব্য করেন, “আমি কাউকে ভয় পাই না, আমাকে ভয় পাওয়ারও প্রয়োজন নেই।” সরাসরি বলেন, “দলের মধ্যে আলাদা গোষ্ঠী তৈরি করায় বিন্দুমাত্র উৎসাহ নেই আমার।”

Advertisement

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ