Advertisement
Advertisement

Breaking News

TMC in Tripura

TMC in Tripura: ত্রিপুরায় ফের হেনস্তার মুখে তৃণমূল, এক রাতের নোটিসে কুণাল ঘোষকে তলব পুলিশের

অভিষেকের সফরের আগে পুলিশের এই পদক্ষেপ 'রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত', মত তৃণমূলের।

TMC in Tripura: Police summons TMC leader Kunal Ghosh within one night for fresh allegation | Sangbad Pratidin
Published by: Sucheta Sengupta
  • Posted:October 30, 2021 12:30 pm
  • Updated:October 30, 2021 3:28 pm

সন্দীপ চক্রবর্তী: নতুন মামলায় মাত্র এক রাতের নোটিসে তৃণমূলের রাজ্য সম্পাদক তথা মুখপাত্র কুণাল ঘোষকে (Kunal Ghosh) তলব করল ত্রিপুরা পুলিশ। শুক্রবার গভীর রাতে তাঁকে নোটিস পাঠানো হয়েছে। আর শনিবার খোয়াই থানায় তাঁকে হাজিরা দিতে হবে। এতে ব্যাপক ক্ষুব্ধ কুণাল ঘোষ। তবে পুলিশের এই নোটিসকে চ্যালেঞ্জ করে তিনি থানায় হাজির হবেন বলেই জানিয়েছেন। এই মুহূর্তে দলের কাজে ত্রিপুরাতেই (Tripura) রয়েছেন কুণাল ঘোষ। রবিবার সেখানে যাচ্ছেন দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তার আগে কুণাল ঘোষকে এভাবে সমন পাঠানো ভাল চোখে দেখছে না তৃণমূল (TMC) নেতৃত্ব।

শনিবার সকালে একটি টুইট করেন কুণাল ঘোষ। তাতেই গোটা বিষয়টি তিনি জানিয়েছেন। তৃণমূল মুখপাত্রের বক্তব্য, ”ভীত বিজেপির আগরতলা পুলিশ শুক্রবার আমার নামে একটি মামলা করেছে। গতকাল রাত থেকেই খুঁজেছে। গভীর রাতে নোটিস পাঠিয়েছে। নজিরবিহীনভাবে মাত্র একদিনের মধ্যে, মানে আজ শনিবার থানায় ডেকেছে।” কিন্তু কী কারণে তাঁকে এভাবে ডেকে পাঠাল পুলিশ? টুইটে এই প্রশ্নের উত্তরও দিয়েছেন কুণাল ঘোষ। তিনি জানান, ”আমি হিন্দু হয়েও বলছি ‘জয় শ্রীরাম’ (Jai Sri Ram) রাজনৈতিক স্লোগান নয়। ধর্ম রাজনীতি থেকে দূরে থাকুক। মহিলারা মা সীতার পাতালপ্রবেশের যন্ত্রণাটাও মনে রাখবেন। আমি সভায় বলেছিলাম, জনবিরোধী নীতি জনগণকে পর্যুদস্ত করা বিজেপি নজর ঘোরাতে ‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগান দিয়ে হিন্দুত্বের রাজনীতি করছে।”

[আরও পডুন: Petrol Diesel Price: ফের পেট্রল ও ডিজেলের মূল্যবৃদ্ধি, জেনে নিন কলকাতায় জ্বালানির দাম কত]

কুণাল ঘোষের মত, তাঁর বিজেপি বিরোধী প্রচার বন্ধ করতেই এই পদক্ষেপ নিচ্ছে ত্রিপুরার পুলিশ। এর মধ্যে রবিবার আবার ত্রিপুরা সফরে যাচ্ছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। অভিষেক সভা আর আসন্ন পুরভোটের আগেই বিজেপি কুণাল ঘোষকে গ্রেপ্তার করাতে পুলিশকে নির্দেশ দিয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছেন তৃণমূলের মুখপাত্র। তাঁর আরও ব্যাখ্যা, ”আমিও হিন্দু। আমি ঈশ্বরবিশ্বাসী। আমিও রামচন্দ্রকে নমস্কার করি। কিন্তু তাঁর নামে ভোটের রাজনীতির বিরোধিতা করি। কিন্তু মা, বোনেদের বলব জয় শ্রীরাম বলে কেউ বিজেপির ভোট চাইতে এলে তাদের জিজ্ঞেস করবেন রামচন্দ্র রাজা হলেও মা সীতাকে অন্তঃসত্ত্বা অবস্থায় কেন জঙ্গলে যেতে হয়েছিল? কেন পাতালপ্রবেশ করতে হয়েছিল? বিজেপি হিন্দুত্বের দোকান খুলে ভোট চায়। আমরা ধর্মের নামে রাজনীতির বিরুদ্ধে। আমরা সম্প্রীতি, সংহতি চাই। ধর্ম থাকুক নিজের কাছে। রোটি কাপড়া আউর মাকানের অধিকারের লড়াই থাকুক রাজনীতির ময়দানে।”

[আরও পডুন: অগ্নি-৫ মিসাইলের পর অত্যাধুনিক গাইডেড বোমার সফল পরীক্ষা করল ভারত]

এসব মতামত সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিরোধী। এমনই দাবি পুলিশের। তাই তাঁকে একরাতের নোটিসে তলব করা হয়েছ বলে মনে করছেন তৃণমূল নেতা। সূত্রের খবর, কুণাল ঘোষের বিরুদ্ধে শুক্রবার থেকেই অভিযান শুরু করেছিল পুলিশ। ত্রিপুরায় তৃণমূল স্টিয়ারিং কমিটির আহ্বায়ক সুবল ভৌমিকের অফিসে গিয়ে কুণাল ঘোষের নামে নোটিস দেওয়া হয়েছে। এই মুহূর্তে তৃণমূলের মুখপাত্র তথা রাজ্য সম্পাদক আগরতলাতেই রয়েছেন। তাই নোটিসের নির্দেশ মেনে দুপুরেই থানায় গিয়ে পুলিশের মুখোমুখি হবেন বলে জানিয়েছেন। দুপুরের পর এভাবে থানায় তলবের প্রতিবাদে ছাত্রনেতৃত্বের সঙ্গে থানার সামনে ধরনায় বসেন কুণাল ঘোষ।

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ