১৩  আষাঢ়  ১৪২৯  বুধবার ২৯ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

ত্রিপুরায় তৃণমূলের মহিলা প্রার্থীর বাড়িতে হামলা, প্রতিবাদে আগরতলায় ধরনা সুস্মিতা দেবদের

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: November 11, 2021 1:25 pm|    Updated: November 11, 2021 1:35 pm

TMC stages protest against BJP in Agartala | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পুরভোটের আগে ত্রিপুরাজুড়ে (Tripura) ক্রমশ বাড়ছে হিংসা। বুধবার রাতে ফের তৃণমূল প্রার্থীর বাড়িতে হামলার অভিযোগ বিজেপির বিরুদ্ধে। প্রতিবাদে আজ সকাল থেকেই আগরতলায় ত্রিপুরা পুলিশের সদর দপ্তরের সামনে ধরনায় বসেছেন ত্রিপুরা তৃণমূলের শীর্ষ নেতৃত্ব। উপস্থিত সুস্মিতা দেব, সুবল ভৌমিকরা।

তৃণমূলের (TMC) অভিযোগ, গতকাল রাতে আগরতলা পুরসভার ৪৮ নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী অর্পণা বিশ্বাসের বাড়িতে হামলা চালায় একদল দুষ্কৃতী। বিজেপি (BJP) আশ্রিত ওই দুষ্কৃতীরা বাড়িতে সদস্যদের মারধর, অগ্নিসংযোগ এবং বাড়িতে তালা বন্ধ করে রাখার হুমকি দিয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন অপর্ণা বিশ্বাসের ছেলে। বাড়িতে ভাঙচুর করারও অভিযোগ তুলেছে তৃণমূল। এই ঘটনার প্রতিবাদে তৃণমূল রীতিমতো আক্রমণাত্মক। তাঁদের অভিযোগ, পুরভোটের আগে ত্রিপুরায় সন্ত্রাস চরম আকারে পৌঁছে গিয়েছে। কিন্তু এভাবে তৃণমূলকে লড়াই থেকে সরানো যাবে না।

[আরও পড়ুন: ত্রিপুরায় কুণাল ঘোষের বিরুদ্ধে আরও ৪ মামলা! ‘পারলে গ্রেপ্তার করুক’, চ্যালেঞ্জ তৃণমূল নেতার]

অপর্ণা বিশ্বাসের বাড়িতে হামলা এবং ত্রিপুরায় রাজনৈতিক হিংসার প্রতিবাদে আজ সকাল থেকেই আগরতলায় ধরনায় বসে পড়েছে ত্রিপুরা তৃণমূলের শীর্ষ নেতৃত্ব। তৃণমূল নেত্রী সুস্মিতা দেব (Susmita Dev), রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় (Rajib Banerjee), সুবল ভৌমিকের নেতৃত্বে ধরনা কর্মসূচি চলছে। এ প্রসঙ্গে তৃণমূলের স্টিয়ারিং কমিটির আহ্বায়ক সুবল ভৌমিক জানিয়েছেন, “বারবার প্রার্থী পদ প্রত্যাহার করার জন্যে চাপ দিচ্ছিল বিজেপি। আমরাই একমাত্র দল যারা আগরতলার ৫১ ওয়ার্ডেই প্রার্থী দিতে পেরেছি। এখন যাতে প্রচার করতে না পারি, তাই প্রতিদিন ভয় দেখানো হচ্ছে৷”

[আরও পড়ুন: ‘শৃঙ্খলা ভাঙলে দল ব্যবস্থা নেবেই’, সুরজিৎ সাহার বহিষ্কার নিয়ে মুখ খুললেন দিলীপ ঘোষ]

সুস্মিতা দেবের বক্তব্য, “ত্রিপুরায় তৃণমূলের (TMC) প্রতি জনসমর্থন বাড়ছে। তাতে ভীত বিজেপি। তৃণমূল প্রার্থীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে অত্যাচার করছে৷ সব জেনে শুনেও প্রশাসন নীরব। কোনও অভিযোগ গ্রহণ করছে না। কিন্তু এভাবে তৃণমূলকে লড়াই থেকে সরানো যাবে না। আমরা মানুষের সমর্থন নিয়ে আন্দোলন করে যাব।” একই সুর শোনা গিয়েছে রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের দেহও।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে