১৮ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ৫ ডিসেম্বর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

১৮ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ৫ ডিসেম্বর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নয়া মোটরযান আইন চালু হওয়ার পর এমনিতেই দেশজুড়ে বিপাকে পড়েছেন বাইক আরোহীরা। উত্তরপ্রদেশে ছাড় পেলেন না ট্রাক চালকরাও। ট্রাক চালকদের জন্য নয়া পোশাক বিধি বেঁধে দিল যোগী সরকার। যে পোশাক বিধির অন্যথা হলেই দিতে হবে মোটা অংকের জরিমানা। উত্তরপ্রদেশ সরকার মোটরযান আইনের সঙ্গেই নতুন ফরমান জারি করছে।

[আরও পড়ুন: ১০০ দিনে কোনও বিকাশ নেই! মোদি সরকারকে কটাক্ষ রাহুল গান্ধীর]

উত্তরপ্রদেশ বিধানসভায় নয়া মোটরযান আইনের সঙ্গে একটি অতিরিক্ত সংশোধনী জোড়া হয়েছে। এই সংশোধনী অনুযায়ী ফুলপ্যান্টের সঙ্গে শার্ট বা টিশার্ট পরেই ট্রাক চালাতে হবে। চটি নয়, পায়ে থাকতে হবে জুতো। এই পোশাক বিধি আগেও ছিল বলে জানানো হয়েছে। তবে তা কখনও সরকারিভাবে লাঘু করা হয়নি। মূলত গেঞ্জি এবং লুঙ্গি পরা ট্রাকচালকদের আটকাতেই এই আইন চালু করা হয়েছে মনে করা হচ্ছে। গোটা দেশেই ট্রাক চালকদের পছন্দের পোশাক লুঙ্গি। আসলে দিনের পর দিন গাড়িতেই কাটাতে হয় চালক ও খালাসিদের। তাই, তাদের পছন্দের পোশাক খোলামেলা লুঙ্গি এবং গেঞ্জি। শুধু উত্তরপ্রদেশ নয়, সারা দেশের ট্রাকচালকরাই লুঙ্গি পরতে পছন্দ করেন। কিন্তু, যোগীরাজ্যে আর লুঙ্গি পরে ট্রাক চালানো চলবে না। স্কুল ভ্যান এবং সরকারি গাড়ির চালকদের মধ্যেও এই নয়া আইন চালু করা হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে রাজ্যের এএসপি(ট্রাফিক) পূর্ণেন্দু সিং জানিয়েছেন, “১৯৮৯ সাল থেকেই পোশাক বিধি লঙ্ঘন করলে ৫০০ টাকা জরিমানা করার রীতি চালু ছিল। সেই ফাইনের পরিমাণ বাড়িয়ে ২০০০ টাকা করা হয়েছে। যারা আইন ভাঙবে তাদেরই এই ফাইন দিতে হবে।”

[আরও পড়ুন: ‘১০০ দিনে যা হয়েছে তা ৭০ বছরে হয়নি’, বললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি]


উল্লেখ্য, ১ সেপ্টেম্বর থেকে দেশজুড়ে (পশ্চিমবঙ্গ বাদে) চালু হয়েছে নয়া মোটরযান আইন। নতুন আইন অনুযায়ী, মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি চালালে জরিমানা ২০০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ১০,০০০ টাকা করা হয়েছে। কোনও এমারজেন্সি গাড়িকে রাস্তা না ছাড়লে ৫০০০ টাকা জরিমানা দিতে হবে। এর আগে দিতে হত ১০০০ টাকা। বিনা হেলমেটে গাড়ি চালালে দিতে হবে ১০০০ টাকা জরিমানা। পাশাপাশি তিনমাসের জন্য লাইসেন্স বাজেয়াপ্ত করা হবে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং