৩১ ভাদ্র  ১৪২৬  বুধবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করার পর রবিবার ১০০ দিনে পা দিয়েছে নরেন্দ্র মোদির নতুন সরকার। আর সেই কথা মনে করিয়ে গত ১০০ দিন পরিবর্তনের দিন বলে উল্লেখ করলেন প্রধানমন্ত্রী। রবিবার হরিয়ানার রোহতকে বিধানসভা নির্বাচনের প্রচারে গিয়েছিলেন তিনি। আর সেখানে গিয়ে তাঁর সরকারের ১০০ দিনের সাফল্যের কথা মনে করিয়ে দেন।

[আরও পড়ুন: ‘৩৭১ ধারায় হাত দেবে না বিজেপি’, NRC পরবর্তী অসম সফরে বার্তা অমিতের]

ভিড়ঠাসা জনসভায় দাঁড়িয়ে লোকসভার সব আসনে জয়ী করার জন্য হরিয়ানাবাসীকে ধন্যবাদ দেন তিনি। বলেন, ‘২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে হরিয়ানার সব আসনে জয়ী হয়েছে বিজেপি। এর জন্য আপনাদের সবাইকে আমি ধন্যবাদ জানাতে চাই। অনেক সময় হরিয়ানার মানুষরা নিজেদের রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর নাম নিয়ে সমস্যায় পড়েন। মনোহর ও নমোহরের মধ্যে গুলিয়ে ফেলেন। কিন্তু, আমি আপনাদের বলতে চাই দুটোই সমানভাবে ঠিক। তাঁরা দুজনেই এক। আমি খুবই ভাগ্যবান। কারণ, যেদিন এনডিএ সরকার তার ১০০ দিনে পা রাখছে সেদিনই হরিয়ানায় এসেছি। গত ১০০ দিন হল পরিবর্তন, স্থির সংকল্প, উন্নয়ন ও শুভবুদ্ধির। এই কয়েকদিনে যা হয়েছে তা গত ৭০ বছরেরও হয়নি।’

গত ১০০ দিনে নেওয়া বড় সিদ্ধান্তগুলির পিছনে দেশের ১৩০ কোটি নাগরিকের অনুপ্রেরণা ছিল বলেও রবিবার জানান প্রধানমন্ত্রী। কাশ্মীর প্রসঙ্গে বলেন, ‘জম্মু ও কাশ্মীর এবং লাদাখই হোক বা ক্রমবর্ধমান জলসংকট। ভারতের ১৩০ কোটি নাগরিক বিভিন্ন সমস্যার নতুন সমাধান খোঁজা শুরু করেছেন।’

[আরও পড়ুন: দলিত বলতে কী বোঝো? ষষ্ঠ শ্রেণির প্রশ্নপত্র নিয়ে নেটদুনিয়ায় বিতর্কের ঝড়]

চন্দ্রযান-২ নিয়ে বলেন, ‘সেপ্টেম্বরের সাত তারিখ রাত দেড়টা নাগাদ পুরো দেশ টিভির সামনে বসে চন্দ্রযান মিশন দেখছিল। ওই ১০০ সেকেন্ড পুরো দেশকে কীভাবে নাড়া দিয়েছিল, সবাই কী করে এক হয়ে উঠেছিল তার সাক্ষী ছিলাম আমি। সবাই এখন স্পোর্টসম্যান স্পিরিটের কথা বলছেন। এটা ইসরোর অবদান। যা গোটা দেশে ছড়িয়ে পড়েছে।’

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং