১২ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ভারতে কবে আসতে পারে করোনার ভ্যাকসিন? জানিয়ে দিলেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী

Published by: Sulaya Singha |    Posted: September 13, 2020 6:45 pm|    Updated: September 13, 2020 9:16 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সব ঠিকঠাক থাকলে আগামী বছরের মার্চ মাসের মধ্যেই দেশে চলে আসবে করোনার ভ্যাকসিন (Corona vaccine)। রবিবার এমনটাই আশ্বাস দিলেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও মানব কল্যাণমন্ত্রী ডা. হর্ষ বর্ধন। এমনকী, তিনি এও বলেন যে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ তাঁকে নিতে হলে তিনি তা স্বচ্ছন্দেই গ্রহণ করবেন।

স্বাধীনতা দিবসের আগেই ভারতে করোনার ভ্যাকসিন আনা হবে। প্রথমে এমনটাই পরিকল্পনা করেছিল কেন্দ্র। সেই হিসেবে দ্রুত টিকা তৈরির তোড়জোড়ও শুরু হয়। কিন্তু করোনার ভ্যাকসিন আনার ক্ষেত্রে তাড়াহুড়োর পথে হাঁটা উচিত হবে না বলেই জানান বিজ্ঞানীরা। মানুষের জীবন নিয়ে কোনও প্রকার ঝুঁকি নেওয়া ঠিক নয় বলে পরামর্শ দেন তাঁরা। তারপর অনেকটা সময় বয়ে গিয়েছে। ভ্যাকসিনের ট্রায়ালও চলছে পুরোদমে। আর আনলক পরিস্থিতিতে দেশবাসীর প্রশ্ন একটাই, কবে আসবে করোনার টিকা? তবে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রীর কথায় স্পষ্ট চলতি বছর ভ্যাকসিন বাজারে আসার সম্ভাবনা নেই।

রবিবার এ প্রসঙ্গেই ডা. হর্ষ বর্ধন (Harsh Vardhan) জানান, ঠিক কবে ভ্যাকসিনের আত্মপ্রকাশ ঘটবে, এমন কোনও দিনক্ষণ এখনও ঠিক হয়নি। তবে মনে করা হচ্ছে, ২০২১ সালের প্রথম তিনমাসের মধ্যেই তা চলে আসবে। তিনি এও নিশ্চিত করেন, টিকার দাম যতই হোক না কেন, যাঁদের এই ভ্যাকসিন সবচেয়ে বেশি জরুরি, তাঁরাই সবার আগে পাবেন। এক্ষেত্রে প্রবীণ নাগরিক ও চিকিৎসক-স্বাস্থ্যকর্মীরাই তালিকার শীর্ষে রয়েছেন। যদিও তিনি জানান, ভ্যাকসিন আসার পরই এনিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হবে। পাশাপাশি, এর সঠিক মূল্য নির্ধারণ থেকে অন্যান্য বিষয়গুলির দিকেও বিশেষ নজর দেবে কেন্দ্র।

[আরও পড়ুন: এবারও রিমোট সেন্সিং স্যাটেলাইট পৌঁছল না কক্ষপথে, একই বছরে চারবার ব্যর্থ বেজিং]

উল্লেখ্য, অক্সফোর্ডের সম্ভাব্য করোনা (CoronaVirus) টিকা নিয়ে উদ্বেগের মাঝে শুক্রবারই সুখবর দিয়েছিল ভারত বায়োটেক। সম্পূর্ণ দেশীয় প্রযুক্তিতে তৈরি করোনার টিকা কোভ্যাক্সিন (Covaxin) মানুষের পাশাপাশি প্রাণীদের শরীরে দুর্দান্ত কাজ করছে। এই ভ্যাকসিনটির অ্যানিমাল ট্রায়ালের ফলপ্রকাশ করে এমনটাই দাবি করে প্রস্তুতকারী সংস্থাটি। ট্রায়াল সফল হলেও যে টিকাকরণের জন্য মানুষকে আরও  কয়েকমাস অপেক্ষা করতে হবে, তা স্পষ্ট হয়ে গেল। 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement